বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > প্রতিপক্ষ মহম্মদ সেলিম, স্বাতী খন্দকার, তবুও আত্মবিশ্বাসী 'রাজনীতি না বোঝা' যশ
যশ দাশগুপ্ত
যশ দাশগুপ্ত

প্রতিপক্ষ মহম্মদ সেলিম, স্বাতী খন্দকার, তবুও আত্মবিশ্বাসী 'রাজনীতি না বোঝা' যশ

  • 'এখন বহু পরিবারের দায়িত্ব আমার কাঁধে', বললেন বিজেপির তারকা প্রার্থী যশ।

রবিবার তৃতীয় ও চতুর্থ দফার প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করল বিজেপি। প্রথম দু'দফার প্রার্থী তালিকায় অভিনেতা-অভিনেত্রী প্রার্থীর সংখ্যা একে সীমাবদ্ধ রেখেছিলেন নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহরা। রবিবার সব হিসাব পালটে তালিকায় উঠে এল একের পর এক তারকার নাম। যশ দাশগুপ্ত, পায়েল সরকার, তনুশ্রী চক্রবর্তী, অঞ্জনা বসু- এক কথায় তরকার ছড়াছড়ি। 

গত ১৭ ফেব্রুয়ারি পদ্ম শিবিরে যোগ দিয়েছিলেন যশ, রাজনীতিতে এসেছেন এখনও এক মাসও হয়নি। এরমধ্যেই বিজেপির প্রার্থী হয়ে ভোট লড়বার চ্যালেঞ্জ। ‘গ্যাংস্টার’ খ্যাত তারকা যশ দাশগুপ্ত বিজেপির হয়ে লড়ছেন হুগলি জেলার ‘চণ্ডীতলা’ বিধানসভা আসন থেকে।

রাজনীতিতে আনকোড়া হলেও এক ইঞ্চিও জমি ছাড়বেন না যশ। এদিন হিন্দুস্তান টাইমস বাংলার তরফে অভিনেতাকে যোগাযোগ করা হয়েছিল। আত্মবিশ্বাসী বিজেপি প্রার্থী জানালেন, ‘দায়িত্ব অনেক বেড়ে গেছে। এতদিন আমার ওপর নিজের পরিবারের দায়িত্ব ছিল। এখন বহু পরিবার ও বাবা মায়ের দায়িত্ব আমার কাঁধে। সবার জন্য কাজ করবো’।

লড়াই সহজ হবে না যশের জন্য। চণ্ডীতলা বিধানসভা আসনে যশের বিপরীতে লড়ছেন তৃণমূলের দু'বারের বিধায়ক স্বাতী খন্দকার এবং সিপিআই(এম) নেতা মহম্মদ সেলিম। দুই পোড় খাওয়া রাজনীতিবিদের প্রতি আগে থেকেই সৌজন্যবোধ দেখিয়ে রাখলেন যশ। তাঁর কথায়,  ‘আমার বিপরীতে যে প্রবীণ রাজনীতিবিদরা রয়েছেন তাঁদের আমার প্রণাম। নিজের সম্পর্কে এটাই বলবো যে আমি রাজনীতি অত বুঝি না। মানুষের হয়ে কাজ করতে চাই, মানুষের পাশে থাকতে চাই’।

এদিন সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে যশ লেখেন, ‘এতদিন অভিনেতা হিসাবে আপনারা আমায় ভালোবেসেছেন। এবার আমি আপনাদের মধ্যে আসছি, আপনাদেরই ছেলে হয়ে। হুগলি জেলার চণ্ডীত বিজেপি প্রার্থী আমি । দেখা হবে খুব তাড়াতাড়ি। আর্শীবাদ করুন, এই নতুন যাত্রায় আমার পাশে থাকুন’। 

প্রচার অভিযানে নামবার প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন যশ। শীঘ্রই হাজির হবেন নিজের বিধানসভা কেন্দ্রে। 

বন্ধ করুন