বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Exclusive Interview of Riddhi Sen: 'জনসংযোগ হারাচ্ছে বাংলা ছবি', কেন এমনটা মনে করেন ‘আজকের সাজাহান’-এর সুব্রত ওরফে ঋদ্ধি

Exclusive Interview of Riddhi Sen: 'জনসংযোগ হারাচ্ছে বাংলা ছবি', কেন এমনটা মনে করেন ‘আজকের সাজাহান’-এর সুব্রত ওরফে ঋদ্ধি

একের পর এক হলের বেহাল অবস্থা, রক্ষণাবেক্ষণ নিয়ে কী বললেন ঋদ্ধি

Riddhi Sen: শহরের বুকে এখন সাড়া ফেলেছে যে গুটিকয় নাটক তার অন্যতম হল সুমন মুখোপাধ্যায়ের আজকের সাজাহান। আর এই নাটকের অন্যতম প্রধান চরিত্র হল সুব্রত, তথা ঋদ্ধি সেন। এই যুগের প্রতিভাবান অভিনেতার মুখোমুখি হয়েছিল HT বাংলা। সাক্ষাৎকারে একাধিক বিষয় তুলে ধরলেন তিনি।

হ্যামলেট বলুন বা আজকের সাজাহান, একটার পর একটা নাটকে এখন দাপিয়ে অভিনয় করছেন ঋদ্ধি সেন। পর্দায় তাঁকে বিগত কয়েক বছরে দেখা না গেলেও যাঁরা থিয়েটারের নিয়মিত দর্শক তাঁরা কিন্তু এই প্রজন্মের এই সুদক্ষ অভিনেতাকে হামেশাই নাটকের মঞ্চে দেখতে পাচ্ছেন। রবিবার সুমন মুখোপাধ্যায়ের আজকের সাজাহান নাটকের মঞ্চ উপস্থাপনা ছিল। সেদিনই HT বাংলার মুখোমুখি হন এই নাটকের সুব্রত তথা ঋদ্ধি। কথায় কথায় একাধিক বিষয়ে নিজের মতামত তুলে ধরেন আমাদের কাছে।

কিছুদিন আগেই হ্যামলেট নাটকের একটি দৃশ্যের অন্তর্বাস পরা ছবি আপলোড করেছিলেন। শুরু হয়েছিল ট্রোল। আজকাল এভাবেই কি কোথাও ক্রিয়েটিভিটিকে খর্ব করার চেষ্টা হচ্ছে? ক্রিয়েটিভ স্বাধীনতা হারাচ্ছে?

ঋদ্ধি: এগুলোকে আমরা পাত্তা দিয়ে ফেলি আসলে। রণবীরের ছবির সময় বলুন, বা অন্যান্য সময় এই একই জিনিস হয়েছে আগেও। আমাদের দেশে আসলে এই ন্যুডিটি কনসেপ্টের সঙ্গে মানুষ ঠিক পরিচিত নয়। কিন্তু লক্ষ্য করলে দেখা যাবে আমাদের দেশ কিন্তু প্রগ্রেসিভ মানসিকতার দেশ। এখন পলিটিসাইজ করে সেটা ভুলিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। কিন্তু এই চেষ্টা এখনও হাতের বাইরে চলে যায়নি। ৬ হাজার, ৩.৫ হাজার, ২ হাজার- এই কটা কমেন্ট দেখেই আমরা জনমত বলে ধরে নিই। অথচ দেশের বাসিন্দা কয়েকশ কোটি! ফলে এই গুটিকয় কমেন্টকে যদি আমরা মেজরিটি ভাবি তাহলে সেটা আমাদেরই ভুল। হ্যামলেট কিন্তু ইতিমধ্যেই সফল, ১৭টা শো হাউজফুল গিয়েছে। প্রশংসা পেয়েছি দর্শকদের থেকে প্রচুর। এটাই কিন্তু আমাদের উদ্দীপনা যোগায়।

মাঝে একটা সময় থিয়েটার নিয়ে মানুষের মধ্যে সেই উন্মাদনা দেখা যাচ্ছিল না। সাম্প্রতিককালের একাধিক নাটক হাউজফুল হচ্ছে। দর্শকদের মধ্যে সাড়া ফেলেছে সেগুলো। বিশেষ কোনও কারণ?

ঋদ্ধি: খেয়াল করলে দেখবেন মহামারী পরবর্তী সময়ে বাংলা থিয়েটারে সব থেকে বেশি লোক হয়েছে। বাংলা ছবির থেকে দর্শক বেশি হয়েছে নাটকে। এটার প্রধান কারণ আমার মনে হয় গত ২ বছর মানুষ বাড়ি বন্দি ছিল। আর এই দুবছরে ডিজিটাল মিডিয়াম স্যাচুরেশন পয়েন্টে চলে গিয়েছে। এখন কিন্তু আর সিনেমা প্রাইমারি বিনোদনের মাধ্যম নয়। সবার হাতে হাতে এখন ফোন, তাতে ইচ্ছে হলেই ইউটিউব, রিলস আরও কত কী আছে। ডিজিটাল মিডিয়া এখন আমাদের জীবনের সঙ্গে ওতপ্রোত ভাবে জড়িয়ে গিয়েছে। সেখানে লাইভ পারফরমেন্স মানুষের কাছে অনেকটা স্নিগ্ধ বাতাসের মতো হয়ে উঠেছে। নাটক মানেই কালেকটিভ রিইউনিয়ন। এখানে আপনাকে সময় মেনে চলতেই হবে, সবাইকে একত্রিত হতেই হবে। একা একা নাটক হয় না। ফলে এই সময় দাঁড়িয়ে নাটক জরুরি। তাছাড়া...

বলুন...

ঋদ্ধি: বাংলা থিয়েটার এখন বাংলা নাটকের থেকে ভালো কাজ করছে। কয়েকটা ছবি নিঃসন্দেহে ভালো হচ্ছে, কিন্তু বাকিগুলোতে মৌলিকতা নেই। কোথাও থেকে টুকে করা ছবি আর চলছে না এই যুগে। সবার হাতেই তো ফোন, সবাই কোনও না কোনও মাধ্যমে আসল ছবিটা দেখে নিচ্ছেন। একই সঙ্গে জনজীবনের সঙ্গে সংযোগ মুছে যাচ্ছে বাংলা ছবির। সেখানে দাঁড়িয়ে থিয়েটার আজকের সময়ের কথা বলছে। পুরনো নাটক এখনও প্রাসঙ্গিক। মানুষ এটার সঙ্গে নিজেদের জীবনের মিল খুঁজে পাচ্ছে, যা ছবিতে পাচ্ছে না।

<p>'জনসংযোগ হারাচ্ছে বাংলা ছবি' মত ঋদ্ধির</p>

'জনসংযোগ হারাচ্ছে বাংলা ছবি' মত ঋদ্ধির

যেখানে বাংলা থিয়েটারে এত দর্শক হচ্ছে, কম বেশি সব শো হাউজফুল হচ্ছে সেখানে আকাদেমি থেকে জ্ঞান মঞ্চের মতো হলে যদি বারবার এসি বিভ্রাট হতে থাকে সেটা দর্শকদের কোথাও বিমুখ করে তুলছে না তো?

ঋদ্ধি: কী বলুন তো, সব ক্ষেত্রেই না আমাদের দেশে রক্ষণাবেক্ষণ কম। আমরা পুরনো জিনিসকে পুনরুদ্ধার করতে পারি না, রক্ষণাবেক্ষণ বলতে বুঝি পুরনো হল উঠিয়ে ঝাঁ চকচকে শপিং মল বানিয়ে দেওয়া। কিন্তু পুরনো কিছুকে স্বমহিমায় নিজের জায়গায় রেখেই রেনোভেট করা, প্রিসার্ভ করতে আমরা জানি না। করতে পারছি না। এটা সরকার, কোম্পানির কাজ। আমরা আমাদের মতো চেষ্টা করছি, চাপ দিচ্ছি, কিন্তু বিশ্বাস করুন সবটা আমাদের হাতেও নেই। সরকার দুর্নীতিগ্রস্ত হলে স্বাভাবিকভাবে এসব ক্রিয়েটিভ দিকে তার মূল ফোকাস থাকে না। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ফোকাস তো এখন এসব একদমই নেই। সরকার যদি উদ্যোগ নেয়, জোর করে রিস্টোর করে তাহলেই একমাত্র কিছু হতে পারে। কিন্তু সেটার জন্য উঠে পড়ে লাগতে হবে।

বেশ, এখন কি তবে নাটকের মঞ্চেই আপনাকে দেখা যাবে? পর্দায় কবে ফিরছেন?

ঋদ্ধি: (একটু হেসে) এই বছরই আমার তিনটি ছবি মুক্তি পেতে চলেছে। প্রথমত, পাভেলের পরিচালনায় আসছে মন খারাপ। এখানে আমি, অঙ্কুশ দা (অঙ্কুশ হাজরা), আর বাবা (কৌশিক সেন) আছি। এছাড়া আরও একটি প্রজেক্টের শুটিং চলছে। ওটাও পাভেল পরিচালনা করছে, অভিনয়ে আমি আর বুম্বা কাকু (প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়) আছি। ধ্রুব বন্দ্যোপাধ্যায় পরিচালিত বগলামামার শুটিং সদ্যই শেষ হল। এই ছবিটাও হয়তো এই বছরই আসবে। তাছাড়া আমার পরিচালিত ছোট ছবির ফেস্টিভ্যাল রাউন্ড শেষ হয়েছে। নবারুণ ভট্টাচার্যের গল্পের উপর ভিত্তি করে বানানো। এটা এবার আমরা ওটিটিতে আনার কথা ভাবছি। দেখি।

ওপেন টি বায়োস্কোপ তো ওটিটিতে এল, দ্বিতীয় ভাগ কি আসবে দর্শকদের দাবি মেনে?

ঋদ্ধি: এই রে, এটা তো আমি বলতে পারব না। আসতেও পারে, আবার...

<p>ওপেন টি বায়োস্কোপ নিয়ে কী বললেন?</p>

ওপেন টি বায়োস্কোপ নিয়ে কী বললেন?

সর্বশেষ প্রশ্ন আপনাকে, সুরঙ্গনার সঙ্গে বিয়েটা কবে করছেন?

ঋদ্ধি: আমাদের কাছে একসঙ্গে থাকার অর্থই হচ্ছে বিয়ে। সুতরাং কবে একটা আইনি রেজিস্ট্রি করলাম তাতে কী যায় আসে। আমরা যেমন বন্ধু, বিগত কয়েক বছরে যেভাবে একসঙ্গে আছি, একসঙ্গে একাধিক কাজ করছি আবার নিজেদের ভিন্নতা বজায় রাখছি সেটাই তো জরুরি। এটাকেই বিয়ে ধরুন না। ফরমালি সেটা কবে হবে জানি না। হবে হয়তো কোনও একদিন...

বায়োস্কোপ খবর

Latest News

টসে জিতল Texas Super Kings , প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নিল| সিংহ-কন্যা-তুলা-বৃশ্চিকের কেমন কাটবে বৃহস্পতিবার? জানুন রাশিফল মেষ-বৃষ-মিথুন-কর্কট রাশির কেমন কাটবে বৃহস্পতিবার? জানুন রাশিফল আর্জেন্তিনা-মরক্কো ম্যাচে ধুন্ধুমার,মাঠে উড়ে এল বোতল-আতসবাজি,হারল বিশ্বকাপজয়ীরা 'জঙ্গিরা প্ররোচিত হতে পারে মমতার কথায়, মিথ্যা বলেছেন’, চটলেন হাসিনারা- রিপোর্ট ৬০ লাখ টাকা দাম উঠেছিল নিটের প্রশ্নের, কতজন পেয়েছিলেন? CBI তদন্তে বিস্ফোরক তথ্য 'অভিনয় করেছি তাই...' ট্রোল্ড হতেই পুরস্কার নিয়ে সটান জবাব 'মহানায়ক' নচিকেতার! হাসপাতালে এসে ‘প্রেম রোগে’ আক্রান্ত বৃদ্ধ, লেডি-ডাক্তারকে লিখলেন লাভ লেটার ‘ওয়াহ, ওয়াহ’, ‘পক্ষপাতিত্বের জন্য’ ঠোঁটে আঙুল দিয়ে স্পিকারকে কটাক্ষ অভিষেকের উত্তমের শেষ ইচ্ছে পূরণ করেননি মহানায়িকা! সুচিত্রার কাছে কী চেয়েছিলেন তিনি?

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.