বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Exclusive Rohit Shetty: খতরোকে খিলাড়িতে সবকিছু আগে থেকে ফিক্স থাকে? অভিযোগ নিয়ে বিস্ফোরক রোহিত শেট্টি

Exclusive Rohit Shetty: খতরোকে খিলাড়িতে সবকিছু আগে থেকে ফিক্স থাকে? অভিযোগ নিয়ে বিস্ফোরক রোহিত শেট্টি

খতরোকে খিলাড়ি নিয়ে ফিরছেন রোহিত শেট্টি

‘সবার সামনে কীভাবে আমরা কারচুপি করব?’ পালটা প্রশ্ন রোহিত শেট্টির। আট নম্বরবার ‘খতরোকে খিলাড়ি’র হোস্ট হিসাবে ফিরছেন ‘সিংহম’ পরিচালক। 

শনিবার থেকে টেলিভিশনের পর্দায় ফিরছেন ‘খতরোকে খিলাড়ি সিজন ১২’। ফিয়ার ফ্যাক্টর ইন্ডিয়ার নতুন সিজনের হোস্ট ফের একবার রোহিত শেট্টি। ‘সিংহম’ পরিচালক এই নিয়ে আট নম্বরবার ‘খতরোকে খিলাড়ি’ হোস্ট করছেন। একগুচ্ছ ডেয়ারডেভিল স্টান্ট নিয়ে হাজির ‘সিংহম’ পরিচালক।

এইবার সূদূর দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে শ্যুটিং হচ্ছে এই শো-এর। শ্যুটিং নিয়ে বেজায় ব্যস্ত রোহিত শেট্টি। সেই ব্যস্ততার ফাঁকেই হোয়াটসঅ্যাপ কলে হিন্দুস্তান টাইমস বাংলার সঙ্গে আড্ডা দিলেন তিনি।

এখনও পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকায় শ্যুটিং-এর কেমন অভিজ্ঞতা?

রোহিত: এককথায় দুর্দান্ত। এই নিয়ে চার নম্বরবার আমরা কেপ টাউনে শ্যুট করছি। খুব ভালো টিম, এবং এখনকার জানোয়াররাও খুব ভালো। যা শ্যুটিং-এর অভিজ্ঞতা আরও দুর্দান্ত করে দেয়। এটাই বলব কম্পিটিশন জমে উঠেছে। অডিয়েন্সদের জন্য একঝাঁক চমক থাকছে।

শো'তে, সবার ভয় দূর করেন আপনি, সত্যি করে বলুন তো রোহিত শেট্টি কীসে ভয় পায়?

রোহিত: মুচকি হেসে। আমার ভয়… সে তো অবশ্যই রয়েছে। আমার ভয় লাগে কাছের মানুষজনকে হারানোর। সবসময় চেষ্টা করি যাতে প্রিয়জনেদের চোট না লাগে। এটাই আমার জীবনের একমাত্র ভয়।

ছবি নিয়ে ব্যস্ততার মাঝে, বারবার এই শো-এর অংশ হওয়ার পিছনের মোটিভেশনটা কী?

রোহিত: অডিয়েন্সদের ভালোবাসাই আমার জন্য এই শো-এর অংশ হওয়ার একমাত্র কারণ। ‘খতরোকে খিলাড়ি’র সাতটা সিজন এর আগে আমি করেছি। এই শো-এর সুবাদে আমি যে জনপ্রিয়তা পেয়েছি সেটাও অতুলনীয়। আমার সঙ্গে যখনই কোনও দর্শকদের দেখা হয়। তাঁরা দুটো প্রশ্ন জিজ্ঞেস করেন- ১) আপনার পরের ছবি কবে আসছে? ২) খতরোকে খিলাড়ির পরের সিজন কবে আসছে? তাহলে বুঝতেই পারছেন এই শো নিয়ে কেন বারবার আমি ফিরে আসি।

রিয়ালিটি শো-র বিরুদ্ধে বারবার অভিযোগ ওঠে এগুলো সাজানো, আগে থেকে সবটাই ফিক্স করা, এমনকি বিজয়ীও? এই অভিযোগ নিয়ে কী বলবেন?

রোহিত: এই অভিযোগের কথা আমার অজানা নয়। অনেকেই বলেন খতরোকে খিলাড়িতে যে গেমগুলো দেখানো হয় সেগুলো পুরোটাই ফেক। কিন্তু আপনাদের আশ্বাস দিয়ে বলছি এগুলো এক শতাংশও মিথ্যা। আমাদের সঙ্গে এই সময় অনেক সংবাদমাধ্যম কেপটাউনে রয়েছে। সবার সামনে কীভাবে আমরা কারচুপি করব? সেটা কি সম্ভব? সবচেয়ে বড় কথা হল এই শো'টা এমনিতেই জনপ্রিয়। টেলিভিশনের বড় বড় স্টারেরা এই শো'তে এসে হেরে যায়। আপনারা টেলিভিশনের পর্দায় যে সকল স্টান্ট দেখন, তা অবশ্যই ১০০% অরিজিন্যাল, হাসি-মজার অংশগুলো অবশ্যই স্ক্রিপ্টেড।

স্টান্ট নিয়ে শো, কোন দিকটার খেয়াল সবচেয়ে বেশি রাখেন সঞ্চালক রোহিত শেট্টি?

রোহিত: আমার ছবির সেটে হোক বা খতরোকে খিলাড়ির, আমার কাছে সবচেয়ে জরুরি হল কলাকুশলীদের সুরক্ষা। আমরা স্টান্ট এমনভাবে প্ল্যান করি যাতে অভিনেতা, প্রতিযোগী হোক বা স্টান্টম্যান তিনি সুরক্ষিত থাকেন। ভগবানের দয়ায় কোনওদিন কোনও দুর্ঘটনা ঘটেনি। আমি সবার সুরক্ষা নিশ্চিত করাটাকে সবচেয়ে গুরুত্ব দিই।

এই সিজনে খতরোকে খিলাড়িতে অংশ নিচ্ছেন রুবিনা দিলাইক, শিবাঙ্গি জোশি, ফয়জল শেখ, জন্নত জুবির, প্রতীক সহজপাল, মোহিত মালিক, তুষার কালিকা, নিশান্ত ভাটের মতো তারকারা।

আজ থেকে শনি ও রবিবার কালার্স চ্যানেলে রাত ৯টায় সম্প্রচারিত হবে ‘খতরোকে খিলাড়ি’।

 

 

বন্ধ করুন