বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > তাইওয়ানকে দেশ বলায়, চিনের আপামর জনসাধরণের কাছে ক্ষমা চাইতে হল F9 তারকা জন সিনাকে
চিনের কাছে ক্ষমা চাইলেন জন সিনা।
চিনের কাছে ক্ষমা চাইলেন জন সিনা।

তাইওয়ানকে দেশ বলায়, চিনের আপামর জনসাধরণের কাছে ক্ষমা চাইতে হল F9 তারকা জন সিনাকে

  • তাইওয়ানকে নিজেদেরই দেশের অংশ বলে মনে করে চিন। গোটা বিশ্ব অবশ্য তাইওয়ান আর চিনের সম্পর্কে নিয়ে রীতিমতো দ্বিধাগ্রস্ত। স্বতন্ত্র সরকার রয়েছে তাইওয়ানের। তবু তাইওয়ানকে কেউ আলাদা দেশ বললে, তাঁকে চিন শত্রু মনে করে থাকে।

তাইওয়ানকে একটি পৃথক দেশ বলে উল্লেখ করেছিলেন পেশাদার কুস্তিগীর এবং এফনাইন তারকা জন সিনা। আর এর মারাত্মক প্রতিক্রিয়া হয়েছিল গোটা চিন জুড়ে। জন সিনার মন্তব্যে সরব হয়েছিল চিন। আর তার জেরেই চিনের কোটি কোটি মানুষের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিলেন ‘এফ নাইন’ তারকা।

এই মাসের শুরুতে ‘ফাস্ট এন্ড ফিউরিয়াস নাইন’ ছবির প্রমোশনে তাইওয়ানেরই একটি চ্যানেলে এমন মন্তব্য করেছিলেন জন সিনা। এর পর থেকেই শুরু হয় বিতর্ক। আসলে তাইওয়ানকে নিজেদেরই দেশের অংশ বলে মনে করে চিন। গোটা বিশ্ব অবশ্য তাইওয়ান আর চিনের সম্পর্কে নিয়ে রীতিমতো দ্বিধাগ্রস্ত। স্বতন্ত্র সরকার রয়েছে তাইওয়ানের। তবু তাইওয়ানকে কেউ আলাদা দেশ বললে, তাঁকে চিন শত্রু মনে করে থাকে।

আর সেই ভুলটাই করে বসেছিলেন জন সিনা। তবে নিজের ভুলের জন্য দুঃখ প্রকাশও করেছেন তিনি। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে জন সিনা বলেছেন, ‘আমি একটা ভুল করে ফেলেছি। আমি এর জন্য দুঃখ প্রকাশ করছি। এটা সত্যিই খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমি চিনের লোকেদের ভালবাসি এবং সম্মান করি। আমি নিজের ভুলের জন্য খুবই দুঃখিত। সরি সরি। আই অ্যাম রিয়েলি সরি। আমি সত্যি চিন এবং চিনের মানুষদের ভালবাসি এবং সম্মান করি, এটা সবাই বোঝার চেষ্টা করুন।’ 

কোভিড অতিমারী কাটিয়ে ওঠার পর চিনে ‘ফাস্ট এন্ড ফিউরিয়াস নাইন’ ছবিটি খুব ভাল ব্যবসা করছে। চিনই এখনই বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বড় চলচ্চিত্রের ক্ষেত্র হয়ে উঠেছে। গত বছর তারা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকেও ছাপিয়ে গিয়েছে। হলিউডের ছবির মুক্তির জন্য চিনই এখন বড় ক্ষেত্র  হয়ে উঠেছে। চিনের কিছু সংবাদমাধ্যমের থেকে জানা গিয়েছে, জন সিনা যে ক্ষমা চেয়েছেন, তাতে রাগ রাগ কমেছে এই দেশের কিছু নেটিজেনের। সেই নেটিজেনরা দাবি করেছেন, জন সিনাকে ভুল তথ্য দেওয়া হয়েছিল। এবং ভুল বোঝানো হয়েছিল।

‘এফ নাইন’ ছবিটি চিনের বক্সঅফিসে সুপার ডুপার হিট। ২১ মে ছবিটি চিনে মুক্তি পায়। তার পর থেকেই সাড়া ফেলে দিয়েছে। মঙ্গলবার সন্ধ্যের মধ্যেই শুধু চিনের থেকেই ১৫৫ মিলিয়ন ডলার উপার্জন করে ফেলেছে ছবিটি।

বন্ধ করুন