বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Fact Check : নেতাজির লুকে প্রসেনজিতের ছবির উন্মোচন করলেন রাষ্ট্রপতি?
নেতাজির জন্মজয়ন্তিতে রাষ্ট্রপতি ভবনে এই ছবির উন্মোচন করেন রাষ্ট্রপতি
নেতাজির জন্মজয়ন্তিতে রাষ্ট্রপতি ভবনে এই ছবির উন্মোচন করেন রাষ্ট্রপতি

Fact Check : নেতাজির লুকে প্রসেনজিতের ছবির উন্মোচন করলেন রাষ্ট্রপতি?

  • শনিবার রাষ্ট্রপতি ভবনে নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর এই ছবিটি উন্মোচন করেন রামনাথ কোবিন্দ। নেটিজেনদের একাংশের দাবি এটি নাকি ‘গুমনামী’ সিনেমায় প্রসেনজিত্ চট্টোপাধ্যায়ের লুকের ছবি।

নেতাজি জন্মজয়ন্তীকে ঘিরে বিতর্ক থামছে না। ভিক্টোরিয়ার অনুষ্ঠানে ‘জয় শ্রী রাম’ স্লোগান বিতর্কের এবার কেন্দ্রবিন্দুতে রাষ্ট্রপতি ভবনে উন্মোচিত ছবিকে ঘিরে। শনিবার, নেতাজির ১২৫তম জন্মবার্ষিকীকে ‘দেশনায়ক’ সুভাষচন্দ্র বসুকে শ্রদ্ধার্ঘ জানাতে রাষ্ট্রপতি ভবনে নেতাজির একটি ছবি উন্মোচন করেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। সেই ছবি প্রেসিডেন্ট অফ ইন্ডিয়ার অফিসিয়্যাল টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে শেয়ার করা হয়। 

তবে এই ছবি ঘিরেই শুরু হয় বিতর্ক। নেটিজেনদের একটা অংশ দাবি করেন, এটি নেতাজির ছবি নয়। বরং অভিনেতা প্রসেনজিত্ চট্টোপাধ্যায়ের ছবি। সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ‘গুমনামী’ ছবিতে নেতাজির ভূমিকাতে অভিনয় করেছিলেন বুম্বাদা। এটি নাকি সেই লুকের ছবি। 

এই নিয়ে হইচই কাণ্ড পড়ে যায় টুইটারে। তবে সবচেয়ে চমকে দেওয়ার মতো বিষয় হল, এটি প্রসেনজিতের ছবি এমন দাবি জানিয়ে টুইট করে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্র। তিনি রাষ্ট্রপতি ভবনের ওই টুইট রিটুইট করে লেখেন- ‘ভগবান ভারতকে রক্ষা করুক, কারণ এই সরকার তো করতে পারবে না’।  পরে অবশ্য বিতর্কিত টুইটটি মুছে দেন মহুয়া মৈত্র।

বিশিষ্ট সাংবাদিক রবখা দত্ত পর্যন্ত টুইট বার্তায় লেখেন- ‘আমি এটা জেনে খুব চমকে গেলাম যে অভিনেতা প্রসেনজিত চট্টোপাধ্যায় যিনি ছবিতে নেতাজির চরিত্রে অভিনয় করেছেন তাঁর ছবি রাষ্ট্রপতি উন্মোচন করেছেন। আমাকে দুবার দেখতে হল এটা বিশ্বাস করবার জন্য, এটা ভীষণরকমভাবে লজ্জাজনক’। 

মহুয়া মৈত্র ও বরখা দত্তের টুইট
মহুয়া মৈত্র ও বরখা দত্তের টুইট

যদিও নেটিজেনদের একটা অংশ দাবি করেন, এটা কোনওরকম ভিত্তিহীন বিতর্ক। কারণ এটি নেতাজির আসল ছবির উপর ভিত্তি করে আঁকা ছবির পোট্রেট। চিত্রকর পরেশ মাইতি,বসু পরিবারের সদস্যা জয়ন্তী বসু রক্ষিতের কাছ থেকে নেওয়া একটি নেতাজির ছবির উপর ভিত্তি করে এঁকেছেন।

অন্যদিকে পুরোনো টুইট ঘেঁটে দেখা যায় নেতাজির পরিবারের সদস্য তথা বিজেপি নেতা চন্দ্র কুমার বসু ২০১৯ সালের ২৬ ডিসেম্বর নিজের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে নেতাজির এই ছবিটি টুইট করে ছিলেন। 

এই বিতর্ক নিয়ে এখনও কোনও মন্তব্য করেননি সৃজিত-প্রসেনজিতরা। রাষ্ট্রপতি ভবনের তরফেও কোনওরকম বিবৃতি জারি করা হয়নি। 

বন্ধ করুন