বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > আলি জাফরের বিরুদ্ধে মি টু-র অভিযোগ, প্রমাণ না করতে পারলে জেল হতে পারে মিশার
আলি জাফর ও মিশা সাফি
আলি জাফর ও মিশা সাফি

আলি জাফরের বিরুদ্ধে মি টু-র অভিযোগ, প্রমাণ না করতে পারলে জেল হতে পারে মিশার

  • মিথ্যা যৌন হেনস্থার অভিযোগ আলি জাফরের বিরুদ্ধে! তিন বছর পর্যন্ত কারাদণ্ডের সম্মুখীন মিশা।

২০১৮ সালে ‘মি-টু’র প্রচারে সামিল হয়ে, পাকিস্তানি অভিনেতা এবং গায়ক আলি জাফরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগ তুলেছিলেন পাকিস্তানি সংগীতশিল্পী এবং অভিনেত্রী মিশা সাফি। আলির বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ আনার জন্য তিন বছর জেল খাটতে হতে পারে মিশাকে। ‘ভাগ মিলখা ভাগ’ চলচ্চিত্র অভিনয় করেছিলেন মিশা।

সামাজিক মাধ্যমে মিশা জানিয়েছিলেন, একাধিকবার তাকে যৌন হেনস্থা করেছেন অভিনেতা সংগীতশিল্পী আলী জাফর। তিনি যুবতী থাকাকালীন বা সদ্য ইন্ডাস্ট্রিতে প্রবেশ করেছেন সেই সময় এই ঘটনা ঘটেনি। তিনি দুই সন্তানের মা হওয়ার পর সেই সময় তাঁর সঙ্গে এগুলো ঘটেছে বলে অভিনেত্রী অভিযোগ তোলেন। 

তিনি আরো বলেন, ‘আলী জাফরের সঙ্গে আমার পরিচয় বহুদিনের। আমরা একসঙ্গে মঞ্চনাটকেও কাজ করেছি। কাছের একজন মানুষের কাছে এধরনের আচরণ আমাকে স্তম্ভিত করে দিয়েছিল। চরম হতাশায় ভুগছিলাম আমি। সেসময় আমার পরিবার আমার পাশে থেকেছে। একজন মা, একজন স্ত্রী হয়ে একথা প্রকাশ্যে বলা কতটা কঠিন তা আমি বলে বোঝাতে পারব না’।

এরপরই মিশার বিরুদ্ধে জেলা আদালতে মানহানির মামলা দায়ের করেন আলি জাফর। ১০০ কোটি টাকার মানহানির মামলার পাশাপাশি আলি এও দাবি করেন, মিশা মিথ্যা অভিযোগ তুলে তাঁর সুনাম ক্ষতিগ্রস্থ করছে।

একটি টুইটে আলি জানিয়েছিলেন, ‘মালালা সত্যিকারের যোদ্ধা যে সত্য ও ন্যায়বিচারের পক্ষে দাঁড়িয়ে মহান ত্যাগ স্বীকার করেছেন। মিথ্যা কথা বলে এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় ভুয়া প্রোফাইলের পিছনে লুকিয়ে বিচার থেকে দূরে পালিয়ে মিশা তার মতো হতে পারবে না #FaceTheCourtMeeshaShafi’।

‘তেরে বিন লাদেন’, ‘মেরে ব্রাদার কি দুলহন’, ‘চশমে বদ্দুর’ ও ‘ডিয়ার জিন্দেগি’-র মত বেশ কয়েকটি বলিউড ছবির অভিনেতা আলী জাফর।  আলী জাফর অবশ্য সমস্ত ঘটনা অস্বীকার করে সামাজিক মাধ্যমে জানিয়েছিলেন, মিশার বিরুদ্ধে তিনি আইনি ব্যবস্থা নিতে চলেছেন।

বন্ধ করুন