বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মোহর-শঙ্খর জন্য সুবিচার চেয়ে ‘বরণ’ বয়কটের ডাক তুলল ভক্তরা
ছবি সৌজন্যে মোহর ধারাবাহিক
ছবি সৌজন্যে মোহর ধারাবাহিক

মোহর-শঙ্খর জন্য সুবিচার চেয়ে ‘বরণ’ বয়কটের ডাক তুলল ভক্তরা

 তলানিতে টিআরপি, প্রাইম স্লট থেকে নামিয়ে আনা হল মোহরকে! মানতে পারছেন না ভক্তরা। 

আজ থেকেই ‘মোহর’-এর জীবনে নতুন মোড়, এবং নতুন সময়ে সম্প্রচার শুরু ধারাবাহিকের। একটা সময় বাংলা টেলিভিশনের টিআরপি টপার ছিল স্টার জলসার এই ধারাবাহিক। গত কয়েক মাসে অনেকখানি তলানিতে ঠেকেছে মোহর-এর জনপ্রিয়তা। গত কয়েক সপ্তাহ ধরে টিআরপি তালিকায় সেরা পাঁচে জায়গা হচ্ছে না ‘মোহর’-এর। টিআরপি রেটিংয়ে তেমন কোনও পরিবর্তন না আসবার জেরেই প্রাইম স্লট থেকে ‘মোহর’কে সরিয়ে দিয়েছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। সোমবার, ৫ই এপ্রিল থেকে দুপুর ২টোয় সম্প্রচারিত হবে মোহর। কিন্তু এই সিদ্ধান্তে একেবারেই খুশি নয় মোহর ভক্তরা। সোনামণি সাহা ও প্রতীক সেনের মতো তারকা জুটির কাছে এটা ঘোর অপমানের, দাবি ভক্তদের। তাই মোহরের জন্য একদিকে সুবিচার চেয়ে #JusticeforMohor হ্যাশট্যাগে চ্যানেলের ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামের পেজ ভরিয়ে দিচ্ছে ভক্তরা, অন্যদিকে মোহর-এর জায়গায় রাত ৮টায় শুরু হতে চলা ‘বরণ’ ধারাবাহিক বয়কটের ডাক দিয়েছে।

এক নেটিজেন লিখেছেন, ‘যেই জুটি আপনাদের এত সম্মান আর নাম এনে দিয়েছে তাদের সাথে এমন অন্যায় করতে আপনাদের রুচিতে বাধলো না। ছি ছি আর কতো নিচে নামবেন আপনারা?’ অপর একজন লেখেন, ‘মোহরের স্থান থেকে মোহরকে সরিয়ে বরণকে বরণ করেছেন। আমরা মোহর প্রেমীরা মরে যাবো তাও বরণ দেখবো না। আপনারা আমাদের সাথে যে অন্যায় যে অবিচার করেছেন তার দাম আপনাদের দিতে হবে। আপনারা কি করে ভাবতে পারলেন যে সময়ে আমরা টিভির সামনে বসে মোহর দেখতাম আর সেখানে মোহর না দেখে বরণ দেখবো ? এই জীবনে এই আশা অন্তত করবেন না। আপনারা প্লিজ ভাবুন মোহরকে রাতে মোহরের জায়গায় নিয়ে আসার জন্য তাহলে আমরা জলসার সাথে থাকবো’।

প্রতিবাদী মোহর ভক্তরা
প্রতিবাদী মোহর ভক্তরা

এর আগে ‘এখানে আকাশ নীল’ ধারাবাহিক বন্ধ করে দেওয়ার পরেও এহেন ক্ষোভের মুখে পড়তে হয়েছিল চ্যানেল কর্তৃপক্ষকে। মোহর-এর সময় বদল নিয়েই রুষ্ট অনুরাগীরা। 

গল্পের নতুন মোড়ে এবার ছাত্রী মোহর নয়, শঙ্খর কলেজে পা রাখছে শিক্ষিকা মোহর। নতুন পর্বে মোহর-এর লুকও পালটে গিয়েছে। এবার সালোয়ার ছেড়ে নায়িকার পরনে শাড়ি। চেনা জায়গাতে নতুন চ্যালেঞ্জ নিয়ে মোহর। যে কলেজে নিজের ছাত্রী জীবন কাটিয়েছে মোহর, সেই কলেজই এখন তাঁর কাছে নতুন ভাবে ধরা দিচ্ছে। মোহরের অঙ্গীকার- ‘লক্ষ্য ছিল পড়াশোনা করে জীবনে প্রতিষ্ঠিত হব। সেই লক্ষ্য পূরণ করতে পেরেছি। আজ এই কলেজের শিক্ষিকা হয়ে আমার আর এক নতুন পথচলা শুরু।’

মোহর-এর নতুন সফরেও কাঁটা হয়ে দেখা দেবেন শ্রেষ্ঠা ম্যাম। শিক্ষিকা মোহরের সঙ্গে শঙ্খ স্যারের রয়াসন কেমন হয়, সেই দিকেই চোখ থাকবে সকলের। 

বন্ধ করুন