বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > উত্তর কোরিয়ায় পাইরেসির শাস্তি গুলি করে মারা! কিমের ‘উদ্ভট’ নিয়মে থ গোটা বিশ্ব
ওয়েব সিরিজ পাইরেসির জন্য মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হল নর্থ কোরিয়ায়। 
ওয়েব সিরিজ পাইরেসির জন্য মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হল নর্থ কোরিয়ায়। 

উত্তর কোরিয়ায় পাইরেসির শাস্তি গুলি করে মারা! কিমের ‘উদ্ভট’ নিয়মে থ গোটা বিশ্ব

  • এক স্কুল ছাত্রকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের শাস্তিও দেওয়া হয়েছে। তটস্থ হয়ে পড়েছে গোটা উত্তর কোরিয়া। 

সিনেমা বা ওয়েব সিরিজের পাইরেসির শিকার হয়ে থাকে সব দেশই। পাইরেসি আটকাতে কড়া আইন, ধরপাকড়ও চলে সবজায়গায়! তবে সেই শাস্তি যে মৃত্যুদণ্ড হতে পারে সেটা মনে হয় কেউ ভাবেনি। তবে কিম রাজার দেশে নিয়ম সব আলাদা! কিম জং উনের উদ্ভট দেশ শাসনের প্রমাণ আবারও মিলল হাতেনাতে। নেটফ্লিক্সের জনপ্রিয় ওয়েব সিরিজ ‘স্কুইড গেম’-এর বেআইনি কপি বিক্রি করার অপরাধে গুলি করে মারার সাজা দেওয়া হয়েছে এক ব্যক্তিকে। ফায়ারিং স্কোয়াডে দাঁড় করিয়ে গুলি করে মারা হবে বলে জানা গিয়েছে।

এখানেই শেষ নয়, সাজার বহর যে এখনও বাকি। যারা কিনেছেন, তাঁরাও বাদ যাবেন না সাজার থেকে। মৃত্যুদণ্ড না হলেও, তা এমনকিছু কমও নয়! ক্রেতা পড়ুয়াকে দেওয়া হয়েছে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের শাস্তি। সঙ্গে এই ওয়েব সিরিজের পাইরেসি ভার্সন আরও যে ছয় জন দেখেছেন তাঁদের দেওয়া হয়েছে সশ্রম কারাদণ্ড। 

মার্কিন গণমাধ্যম ‘রেডিও ফ্রি এশিয়া’র সূত্রে জানা যাচ্ছে, চিন থেকে ওই কপি আমদানি করেছিল ওই ব্যবসায়ী। তারপর ইউএসবি ফ্ল্যাশ ড্রাইভে ভরে তা বিক্রি করতে শুরু করেন। তারপর হাইস্কুলের এক ছাত্র তা কিনে স্কুলে নিয়ে যান বন্ধুদের সাথে দেখার জন্য। ক্লাসের অন্যান্য পড়ুয়াদের সাথে দেখেও। তবে তা আরও ছাত্রদের মধ্যে জানাজানি হয়ে যেতেই প্রশাসনের নজরে আসে। তারপরই ধরা পড়ে ওই ব্যবসায়ী ও ছাত্র। ইতিমধ্যে গোটা উত্তর কোরিয়ায় তল্লাশি চালিয়ে দেখা হচ্ছে আর এরকম ধরনের কোনও ঘটনা ঘটেছে কি না!

প্রসঙ্গত, স্কুইড গেম ওয়েব সিরিজেরও যোগ রয়েছে মৃত্যুর সঙ্গে। যেখানে এমন এক প্রতিযোগিতা রয়েছে, যাতে জয় হলেই মিলবে বিরাট আর্থিক পুরস্কার। হেরে গেলেই মৃত্যু। সত্যিই এ যেন এক আশ্চর্য সমাপতন!

বন্ধ করুন