বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ফিরে দেখা ২০২০ : দিল বেচারা থেকে গরমি, বছরভর যে সকল গানে ডুব দিল গোটা ইন্ডিয়া
২০২০ সাল জুড়ে দর্শক মনে রাজ করল কোনও গান? 
২০২০ সাল জুড়ে দর্শক মনে রাজ করল কোনও গান? 

ফিরে দেখা ২০২০ : দিল বেচারা থেকে গরমি, বছরভর যে সকল গানে ডুব দিল গোটা ইন্ডিয়া

  • দিল বেচারা নিঃসন্দেহে বছরের সবচেয়ে চর্চিত ফিল্মি অ্যালবাম, এর পাশাপাশি একাধিক নন-ফিল্মি গান ঝড় তুলল দর্শক মনে। 

ভারতীয় ছবির ওতোপ্রোত অংশ মিউজিক। গান ছাড়া কোনও ছবির কথা ভাবতেই পারে না ভারতীয় দর্শক। আমাদের প্রত্যেকটি মুডের সঙ্গে তাল মিলিয়ে একাধিক সুর বাঁধেন সংগীত পরিচালকরা। করোনা আবহে ভারতবাসীর ঘরবন্দি জীবনে কিছুটা শান্তি বয়ে এনেছে একাধিক ছবির গান, আবার বেশ কিছু পার্টি নম্বরেও ঘরে বসেই নেচেছে গোটা ইন্ডিয়া। নন-ফিল্মি গানের তালিকাটাও কম লম্বা নয়। ২০২০ সালে প্লে-লিস্টের সেরা হিন্দি গান রইল এক নজরে-

দিল বেচারা (টাইলেট ট্র্যাক) : সুশান্ত সিং রাজপুতের শেষ ছবি হিসাবে দিল বেচারার আলাদা একটা জায়গা রয়েছে দর্শক মনে। এআর রহমানের কম্পোজিশনে এই ছবির প্রতিটি গানই সুপারহিট। তবে ছবির টাইটেল ট্র্যাক সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে সোশ্যালে। ইউটিউবে প্রায় ১১ কোটি বার স্ট্রিম হয়েছে এই গান। দিল বেচারা ছবি নিয়েই বছরে সবচেয়ে বেশি টুইট করেছে ভারতীয়রা, এছাড়াও গুগুল সার্চেও সবার উপরে রয়েছে এই ছবি।

আবাদ-বরবাদ (লুডো) :  অনুরাগ বসুর নেটফ্লিক্স ফিল্ম লুডো দর্শকদের কাছে প্রশংসা কুড়িয়েছে, পাশাপাশি ছবিতে অরিজিত সিংয়ের গাওয়া আবাদ-বারবাদ গানটি দর্শকদের মনে গেঁথে গিয়েছে। খারাপ মুডেও এই গান আপনার মুশকিল আসান করে দেবে। গানটি কম্পোজ করেছেন প্রীতম। 

মেয়ে লিয়ে তুম কাফি হো ( শুভ মঙ্গল জায়দা সাবধান) : অভিনয়ের পাশাপাশি গায়ক হিসাবেও সুপ্রতিষ্ঠিত আয়ুষ্মান খুরানা। অভিনেতার শুভ মঙ্গল জায়গা সাবধান ছবির ‘গান ‘মেরে লিয়ে তুম কাফি হো’ চলতি বছরের অন্যতম চর্চিত রোম্যান্টিক ট্রাক। ইউটিউবে ৪৫ মিলিয়নের বেশি বার দর্শকরা দেখেছেন এই গান। মেলোডি এবং মিষ্টি কথা- এই গানের ইউএসপি। গানটি কম্পোজ করেছেন তনিষ্ক-ভায়ু।

বুর্জ খলিফা (লক্ষ্মী) : অক্ষয়ের দিওয়ালি রিলিজ ‘লক্ষ্মী’ ওটিটি প্ল্যাটফর্মে পুরোপুরি ব্যর্থ হলেও ছবির ‘বুর্জ খালিফা’ গান বেশ হইচই ফেলেছে সোশ্যালে। গানের অদ্ভূত লিরিকস নিয়ে সমালোচনা হলেও এই গানে কিয়ারা আডবানির সেনচুয়াস অবতার কারুর চোখ এড়ায়নি। পঞ্জাবি আপবিট এই ট্র্যাকটি গেয়েছেন শশী ও ডিজে খুসি। গগণ আহুজা এই গানের কথা লিখেছেন।

গরমি (স্ট্রিট ডান্সার থ্রিডি) : রেমো ডিসুজার ডান্স ফিল্ম স্ট্রিট ডান্সার থ্রিডির ‘গরমি’ গান সোশ্যালে উত্তেজনার পারদ অনেকখানি বাড়িয়েছে তা বলাই যায়। বাদশা ও নেহা কক্করের আওয়াজ, অন্যদিকে পর্দায় আগুন ঝরিয়েছেন নোরা ফতেহি, সঙ্গ দিয়েছেন বরুণ ধাওয়ান। ডিসেম্বরের শীতেও ‘গরমি’ জাগাচ্ছে এই গান।

 

নাচ মেরি রানি- যে গানে নোরা ফতেহি থাকবেন, সেই গানে হটনেট এবং ম্যাডনেস যে চরম পর্যায়ের হবে সেই নিয়ে কোনও দ্বিমত থাকতে পারে না। গোটা বছরে যে গানের তালে দেশবাসী সবচেয়ে বেশি নেচেছে তাঁর মধ্যে অন্যতম ‘নাচ মেরি রানি’। এই ডান্স নম্বরটি গেয়েছেন গুরু রান্ধাওয়া, নিকিতা গান্ধী ও তানিশক বাগচী। ডান্স ফ্লোরে আগুন লাগাচ্ছে এই গান। ৩১ ডিসেম্বর প্রত্যেক পার্টির কেন্দ্রবিন্দুতে থাকবে এই গান তা পরিষ্কার। 

নেহু দা বিহা- এই গানের হাত ধরেই বাস্তব জীবনে প্রেমের গল্প লিখে ফেলেছেন নেহা কক্কর ও রোহন প্রীত সিং। অগস্ট মাসে এই গানের শ্যুটিং সেটেই প্রথম আলাপ নেহা ও রোহনের, এরপর বন্ধুত্ব ও প্রেম এবং অক্টোবর মাসে রূপকথার বিয়ে সারবার দিন কয়েক আগেই মুক্তি পেয়েছে এই গান। বিয়ের গানই মিলিয়ে দিল এই জুটিকে। ইউটিউবে প্রায় ১০ কোটি বার দর্শকরা দেখেছে নেহু দা বিহা। গানের সুর ও কথা নেহা কক্করের নিজের। বিয়ের জন্য এই গান, নাকি গানের জন্যই বিয়ে- এই বিষয় নিয়ে কিন্তু কনফিউশন রয়েই গেছে!

গেন্দা-ফুল-  ব়্যাপার বাদশার গেন্দা-ফুল গোটা দেশে যেমন ঝড় তুলেছে, তেমন বাংলায় এই গান নিয়ে অন্য বিতর্ক মাথাচাড়া দিয়েছিল। ‘বড়লোকের বিটি লো’ গানের স্রষ্টা রতন কাহারকে এই গানে যোগ্য সম্মান দেওয়া না হওয়ায় প্রতিবাদের সুর চড়িয়েছিল বাংলার নেট নাগরিকরা। সেই বিতর্কের আগুন অনেকটাই কমেছে। তবে এই গানে বঙ্গ সুন্দরীর অবতারে সুপারহট জ্যাকলিন ফার্নান্দিজকে দেখে মন হারিয়েছেন লক্ষ পুরুষ।

২০২০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত কোন গানটি আপনার সবেচেয়ে ভালো লাগল?

 

বন্ধ করুন