বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Gadar 2: ২১ দিনে ৪৮০ কোটি! অস্কারে যাবে সানি-আমিশার ‘গদর ২’, জানালেন পরিচালক অনিল

Gadar 2: ২১ দিনে ৪৮০ কোটি! অস্কারে যাবে সানি-আমিশার ‘গদর ২’, জানালেন পরিচালক অনিল

অস্কারের জন্য পাঠানো হবে গদর ২-কে। 

পরিচালক অনিল শর্মা জানান, লোকেরা তাঁকে বারবার ফোন করে বলছে, গদর ২-কে অস্কারে পাঠানোর জন্য। তাঁর মতে, গদর-ও যোগ্য ছিল অস্কারের দৌড়ে সামিল হওয়ার জন্য়। 

বক্স অফিসে একাধিক রেকর্ড ভেঙে দিয়েছে সানি দেওল আর আমিশা পাটেলের গদর ২। মাত্র ২১ দিনে ৪৮০ কোটি টাকার ব্যবসা করে ফেলেছে এই সিনেমা। ১৭ দিনে ৪৫০ কোটি রোজগার করেও রেকর্ড গড়েছে এটি। যেখানে এর আগে পাঠানের লেগেছিল ১৮ দিন আর বাহুবলী ২-এর ২০ দিন ৪৫০ কোটির মুখ দেখতে। এবার গদর ২ নিয়ে বড় পদক্ষেপ নিয়ে ফেললেন পরিচালক অনিল শর্মা। জানিয়ে দিলেন, সানির ছবি যাবে অস্কারের মঞ্চে। তাঁর টিম এখন থেকেই আবেদন প্রক্রিয়ার কাজটি শুরু করে দিয়েছে। 

দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে এক সাক্ষাৎকারে অনিল শর্মা জানান, লোকেরা তাঁকে বারবার ফোন করে বলছে, গদর ২-কে অস্কারে পাঠানোর জন্য। যদিও ‘গদর: এক প্রেম কথা’ অ্যাকাডেমি পুরস্কারের জন্য যায়নি। বরং একইদিনে মুক্তি পাওয়া আমির খানের লগন সামিল হয়েছিলে ২০০১ সালে অস্কার পাওয়ার দৌঁড়ে। আরও পড়ুন: মুম্বইতে ২৩০০, দিল্লিতে ২৪০০! কলকাতায় শাহরুখের ‘জওয়ান’-এর টিকিটের দাম কত?

‘আমরা এবার আছি এতে। গদর ২ সত্যিই অস্কার পাওয়ার যোগ্য। গদর-ও অস্কার পাওয়ার যোগ্য ছিল। আমরা ১৯৪৭ সালের দেশের স্বাধীনতা পাওয়ার গল্পটিকে একেবারে আলাদা ভঙ্গিতে বলেছিলাম। ওটা একটা নতুন এবং মৌলিক গল্প ছিল। গদর ২-ও নতুন এবং মৌলিক গল্প।’, জানান অনিল। 

অনিল আরও বলেন, দর্শকদের কাছ থেকে যে পরিমাণ ভালোবাসা পাচ্ছে গদর ২ তা তাঁকে আনন্দ দিয়েছে। তবে ৪০ বছর ধরে ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে থেকেও কোনও অ্যাওয়ার্ড না পাওয়া তাঁর কাছে খুব কষ্টের। অনিলের কথায়, ‘মিথ্যে বলব না আমিও অ্যাওয়ার্ড চাই। পেলে ভালোই লাগবে।’ অনিল মনে করেন, কোনও লবিতে না থাকার কারণেই এতদিনে একটাও পুরস্কার আসেনি তাঁর ঝুলিতে। 

‘আমি মন থেকে ছবি বানাই। সেরকমটাই দেখাই যা আমার ভালো লাগে। দর্শকদের কাছ থেকে প্রশংসা পেলে মন আনন্দে ভরে ওঠে। নিন্দে আসলে কষ্ট পাই। তবে তারপর দর্শকরা যেগুলো ভুল বলছে তা শুধরে নেওয়ার চেষ্টা করি। কারণ নির্মাতা ভুল হতে পারেন, দর্শকরা ভুল হতে পারেন না কখনো।’, আরও জানান অনিল শর্মা। 

গদর ২-তে সানি দেওলের চরিত্রের নাম তারা সিং। স্ত্রী সাকিনার চরিত্রে আমিশা। এবারের সিনেমায় ১৯৭১ সালের ভারত-পাক দ্বন্দের সময়তেই পড়শি দেশে প্রবেশ করে সানি ওরফে তারা সিং। উদ্দেশ্য প্রেম ঘটিত কারণে পাক সেনার হাতে বন্দি ছেলেকে ছাড়িয়ে আনা। 

বায়োস্কোপ খবর
বন্ধ করুন

Latest News

রবিতে শনির দশা সোনার রেটে, তিলোত্তমায় আজ হলুদ ধাতু বিকোচ্ছে কততে? সম্প্রীতি উড়ালপুলে দুর্ঘটনা, গার্ডরেলে ধাক্কা মেরে ছিটকে পড়ল বাইক, মৃত ২ ভবিষ্যতের ধোনি, রাঁচিতে ধ্রুব'র ব্যাটিং দেখে দরাজ সার্টিফিকেট এই কিংবদন্তির আম্পায়ারকে 'অন্য কাজ খুঁজতে বলে' ICC-র শাস্তির কবলে হাসারাঙ্গা, নিষিদ্ধ ২ ম্যাচ ফের ক্যানসারে আক্রান্ত সঙ্গীতশিল্পী, কবীর সুমনের স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন কল্যাণী এইমসের আগে ভারতের দীর্ঘতম কেবল ব্রিজের উদ্বোধন মোদীর, জানুন সেতুর বিশদ আনন্দপুরে বেসরকারি হাসপাতালের সামনে পরপর বিস্ফোরণ, ভয়াবহ আগুনে পুড়ে ছাই বস্তি সারমেয়র অটো রাইড! খুদে পোষ্যর কারনামা দেখলে তাজ্জব বনে যাবেন যাঁরা মনে করেন বাংলায় বিজেপি শেষ, তাঁদের চমকে দেবে লোকসভার ফল: প্রশান্ত কিশোর সব থেকে বেশি ছক্কা, সিরিজ শেষ হওয়ার আগেই রেকর্ড গড়লেন রোহিত-স্টোকসরা

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.