বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মহানায়কের বাড়িতে এলেন গোবিন্দা! পাঞ্জাবি, মিষ্টিতে আপ্যায়ন 'হিরো নম্বর ওয়ান'-কে
ভবানীপুরের মহানায়কের বাড়িতে গোবিন্দা। (ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)

মহানায়কের বাড়িতে এলেন গোবিন্দা! পাঞ্জাবি, মিষ্টিতে আপ্যায়ন 'হিরো নম্বর ওয়ান'-কে

  • উত্তমকুমারের নাত বৌ দেবলীনা কুমারের আমন্ত্রণে ভবানীপুরের মহানায়কের বাড়িতে হাজির হয়েছিলেন গোবিন্দা। বেশ কিছুক্ষণ সময় সেখানে গল্প গুজব করার পর প্রত্যেকের আবদারে তাঁদের সঙ্গে আলাদা করে ছবিও তোলেন 'হিরো নম্বর ওয়ান'।

এইমুহূর্তে কলকাতায় রয়েছেন গোবিন্দা। জি বাংলার একটি ডান্স রিয়েলিটি শোয়ের বিচারক হিসেবে কাজ করছেন তিনি। শহরে সশরীরে রয়েছেন গোবিন্দা আর বাংলা ছবির মহানায়ক-এর বাড়িতে পা রাখবেন না একটিবারের জন্যেও তা কী আর হয়? আর যেখানে একই রিয়েলিটি শোয়ে উত্তমকুমারের নাত বৌ দেবলীনা আপাতত ওই একই নাচের রিয়্যালিটি শো ‘ডান্স বাংলা ডান্স’-এ গোবিন্দার সঙ্গে কাজ করছেন।

ঘটনাটা নিজেই জানিয়েছেন দেবলীনা। শুটিং ব্রেকে কথায় কথায় গোবিন্দা তাঁর কাছে জানতে চেয়েছিলেন কোথায় থাকেন তিনি। সেই প্রসঙ্গেই উঠে আসে উত্তমকুমারের কথা। মহানায়কের নাম শুনেই নাকি দারুণ উৎসাহিত হয়ে পড়েন বলি-অভিনেতা। এরপরেই গোবিন্দাকে ভবানীপুরের বাড়িতে আসার আমন্ত্রণ জানাতে সাগ্রহে রাজি হয়ে যান তিনি। বৃহস্পতিবার রাতেই ভবানীপুরের চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে হাজির হন তিনি। ঘন্টা দেড়েকের মতো সেখানে সময় কাটান তিনি। বাড়ির প্রত্যেক সদস্যের সঙ্গে আলাদা আলাদা করে ছবি তোলার পাশাপাশি তাঁদের সঙ্গে গল্প গুজবে মেতে ওঠেন তিনি। চট্টোপাধ্যায় পরিবারের সদস্য ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দেবলীনার বাবা বিধায়ক দেবাশিস কুমার, মা দেবযানী কুমার।এই প্রসঙ্গে খানিকটা আফসোসের সুরেই দেবলীনা জানালেন, 'রাতে যেহেতু গোবিন্দা কিছু খান না তাই মিষ্টি ছাড়া কিছুই খাওয়াতে পারিনি আমরা'। এছাড়া বলি-নায়ককে পাঞ্জাবি উপহার দেওয়া হয় চট্টোপাধ্যায় পরিবারের তরফে।

গোটা ঘটনায় এবং গোবিন্দার ব্যবহারে মুগ্ধ দেবলীনা। গোবিন্দার সঙ্গে কাটানো মুহূর্তের বেশ কিছু ছবি ইনস্টাগ্রামে ভাগ করে নিয়েছেন এই টলিপাড়ার অভিনেত্রী।জানিয়েছেন সামান্য কয়েক দিনের পরিচয় তাঁর সঙ্গে গোবিন্দার। সেই সূত্রেই একবার আমন্ত্রণে সটান তিনি চট্টোপাধ্যায় বাড়িতে। এতবড় তারকার এরকম সৌজন্যতাবোধ দেখে তিনি মুগ্ধ।

 

বন্ধ করুন