বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘মেয়েদের নিশানা করা এবার বন্ধ করুন’, হিজাব ইস্যুতে বিস্ফোরক বিশ্বসুন্দরী হারনাজ
হিজাব নিয়ে প্রশ্ন করতেই রেগে গেলেন হারনাজ। 

‘মেয়েদের নিশানা করা এবার বন্ধ করুন’, হিজাব ইস্যুতে বিস্ফোরক বিশ্বসুন্দরী হারনাজ

  • ‘দরকার হলে নিজেদের ডানা কাটুন’, হিজাব নিয়ে প্রশ্ন করা হলেই রেগে যান হারনাজ।

মাঝে হিজাব ইস্যুতে উত্তাল হয়েছিল গোটা দেশ। প্রায় সমস্ত তারকাই এই নিয়ে নিজেদের মতামত দিয়েছিলেন সোশ্যাল মিডিয়ায়, সাক্ষাৎকারে। এবার এই নিয়ে কথা বলতে শোনা গেল মিস ইউনিভার্স খেতাব জয়ী হারনাজ কৌর সান্ধুকে। দিনকয়েক আগেই দেশে ফেরেন হারনাজ। আর এসেই যেন বোমা ফাটালেন।

এক সাংবাদিক সম্মলনে হারনাজকে প্রশ্ন করা হয় হিজাব নিয়ে। প্রথমেই সুন্দরী জানিয়ে দেন তিনি রাজনৈতিক কোনও ইস্যু নিয়ে মন্তব্য করতে চান না। তারপরেও তাঁকে হিজাব নিয়ে প্রশ্ন করা হলে জবাব দেন, ‘দেখুন সবসময় আমাদের এখানে মেয়েদেরকেই নিশানা করা হয়। এই যেমন এখন আমাকে নিশানা বানানো হচ্ছে।’ তারপরেই হিজাব নিয়ে ক্ষোভ উগড়ে দিতে দেখা যায়।

হারনাজ বলেন, ‘আপনারা মেয়েদের ওঁদের মতো করে বাঁচতে দিন। ডানা মেলে উড়তে দিন। ওদের ডানা কাটার তেষ্টা করবেন না। দরকারে নিজেদের ডানা কাটুন। মেয়েদের নিজেদের ইচ্ছে মতো পোশাক পরার অধিকার আছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘কেউ যদি হিজাব পরতে চায়, তাহলে সেটা তাঁর ইচ্ছে। কোনও মহিলাকে যদি দমিয়ে রাখার চেষ্টা করা হয়, তবে তাঁর উতিত এগিয়ে এসে প্রতিবাদ করা। আমরা নানা ধর্মের মহিলারা আছে, সবার উচিত একে-অপরকে সম্মান জানানো।’

এর আগে কর্ণাটক আদলতের রায়ে বলা ‘ধর্ম চর্চায় হিজাব অপরিহার্য নয়’ নিয়ে হইচই হয়। সঙ্গে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হিজাব পরার নিষেধাজ্ঞা নিয়েও সরব হয় একটা বড় অংশ। এমনকী, নোবেল জয়ী মালালা ইউসুফজাই এক টুইট বার্তায় লিখেছেন, ‘হিজাব পরে মেয়েদের স্কুলে যেতে নিষেধ করার বিষয়টি ভয়াবহ।’ সঙ্গে ভারতীয় নেতাদেরও অনুরোধ জানিয়েছিলেন তাঁরা যেন এভাবে মুসলিম মহিলাদের কোনঠাসা করার চেষ্টা না করেন।

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালে বিশ্বসুন্দরীর মঞ্চে ভারতের নাম উজ্জ্বল করেন হরনাজ সান্ধু। দীর্ঘ ২১ বছর পর মিস ইউনিভার্সের খেতাব পান কোনও ভারতীয়।

বন্ধ করুন