বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বিয়ার এবং পাকা কলার টুইস্টে চুলে আসবে ম্যাজিক লুক! রইল হেয়ার এক্সপার্টের টিপস
ছবি সৌজন্য শুভশ্রী রায়।
ছবি সৌজন্য শুভশ্রী রায়।

বিয়ার এবং পাকা কলার টুইস্টে চুলে আসবে ম্যাজিক লুক! রইল হেয়ার এক্সপার্টের টিপস

বর্ষায় চুলের দফারফা? হারিয়েছে জেল্লা? শুভশ্রী রায় (হেয়ার এক্সপার্ট) HT BANGLA-র পাঠকদের জানালেন, ঘরে বসে কেমন করে পাবেন একরাশ স্বাস্থ্যোজ্জ্বল চুল, এবং নিয়মিত যত্নে বন্ধ হবে রোজকার চুল ওঠার সমস্যা।

বর্ষায় সব থেকে বেশি করে চুলের যত্ন নিতে  হয়। প্রথমত সব জায়গার জল সমান নয়। কোথাও মিষ্টি জল, কোথাও আয়রন জল, কোথাও বা নোনা ধরণের জল। এই বৈশিষ্ট্যগত পার্থক্য মাথায় রেখেই আমাদের চুলের যত্নের কথা ভাবতে হয়। গত সাড়ে তিন মাস সব কিছু বন্ধ থাকার ফলে যাঁরা বিউটি সাঁলোতে অভস্থ্য তাঁদের নিয়মিত রূপ চর্চায় ছেদ পড়েছে। সেক্ষেত্রে বাড়িতেই সারতে হয়েছে চুল ও ত্বকের পরিচর্চা। অনেকেই ভাবেন বাড়িতে বসে যে রূপচর্চা আমরা করি সেগুলি ঠিক সাঁলোর মতো পার্ফেক্ট নয়, সেই জেল্লা এবং ঝলমলে ব্যাপারটা ঘরোয়া চর্চায় ঠিক আসে না। কিন্তু বাড়িতে বসেই আপনি পেতে পারেন সাঁলোর মতো ম্যাজিক। তার জন্য সঠিক কিছু পদ্ধতি রয়েছে , সেগুলিই আজ আপনাদের পাঠকদের জানাচ্ছেন বিউটি এক্সপার্ট শুভশ্রী রায়।

এটা ঠিক হেয়ার ট্রিটমেন্ট,বিভিন্ন ধরণের স্পা, মাসাজ, ইত্যাদির জন্য অবশ্যই বিউটি স্যাঁলো যেতে হবে। কারণ সেই ট্রিটমেন্টগুলি একমাত্র এক্সপার্ট দ্বারাই সম্ভব। তাছাড়া অনেকেই নিজে হাতে এইসব করার সময় পান না। তবে আমার মতে যদি বাড়িতে নিয়মিত যত্ন নেওয়া যায় তার কোনও বিকল্প নেই।

১) মূলত বর্ষাকালে আর শীতকালের শেষ দিকটায়  চুল নিয়ে প্রচুর সমস্য দেখা দেয়। বিশেষত চুল ওঠার সমস্যাটা এই সময় মারাত্মক। এর থেকে বাঁচতে গেলে সপ্তাহে ২ থেকে ৩ দিন খুব ভালো করে হার্বাল শ্যাম্পু বা আপনার পছন্দের যে শ্যাম্পু  রয়েছে তাই দিয়ে ভালো করে শ্যাম্পু করে মাথা ধুয়ে ফেলুন। মনে রাখবেন শ্যাম্পু করার আগে  চুল আঁচরে জট ছাড়িয়ে নিতে ভুলবেন না। 

 ২) সপ্তাহে দু'দিন নারকেল তেল গরম করে তার সঙ্গে সম পরিমানে অলিভ অয়েল মিশিয়ে এবং একটি ভিটামিন ই-ক্যাপসুল ভেঙ্গে মিশিয়ে সেই মিশ্রনটা স্ক্যাল্পে লাগিয়ে হালকা ম্যাসাজ করতে হবে। 

৩) হাফ কাপ বিয়ারের সঙ্গে দু'টি পাকা কলা ভালো করে মিশিয়ে একটি প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাকটি  সম্পূর্ণ মাথায় এবং চুলের আগা গোড়ার লাগিয়ে রাখুন। দু'ঘন্টা পর শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। এটি আপনার চুলে স্পায়ের মতো কাজ করবে। নিমেষেই পেয়ে যাবেন একরাশ ঝলমলে স্বাস্থ্যকর চুল।

) মেথি গুঁড়ো করে, নারকেল তেলের সঙ্গে মিশিয়ে একটা সেমি লিকুইড পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। সেটি স্ক্যাল্পে ভালো করে লাগান। আধা ঘন্টা পর ধুয়ে ফেলুন।

৫) যদি মনে করেন এক চা চামচ মেথি নারকেল তেলে ফুটিয়ে ঠাণ্ডা করে নিয়ে মাথায় লাগাতে পারেন। অত্যন্ত ভালো কাজ দেবে। সপ্তাহে তিন দিন ব্যাবহার করুন।

৬) মেথি ২ চা চামচ, কালো জিরে ১ চা চামচ জলে দিয়ে ভালো করে ফুটিয়ে নিন। এরপর জলটা ছেঁকে আলাদা করে রাখুন। সেদ্ধ হয়ে যাওয়া কালো জিরে এবং মেথি একসঙ্গে বেটে নিয়ে একটা প্যাক তৈরি করুন। এই প্যাকটি মাথায় লাগিয়ে রাখুন এক ঘন্টা। তারপর শ্যাম্পু করে ধুয়ে ফেলুন। সব শেষে ওই আলাদা করে রাখা জলটা সম্পূর্ণ চুলে লাগিয়ে নিন।

বন্ধ করুন