বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘এক তরফা পেয়ার’! দেখে নিন কীভাবে বেরিয়ে আসবেন এই অনুভূতি থেকে
শুরু করুন নতুন জীবন
শুরু করুন নতুন জীবন

‘এক তরফা পেয়ার’! দেখে নিন কীভাবে বেরিয়ে আসবেন এই অনুভূতি থেকে

একতরফা প্রেমের স্মৃতি, যা জীবনের মূল্যবান সময়কে নষ্ট করছে, ভুলে যান এখনই!

‘এক তরফা পেয়ার কি তাকত হি কুছ অর হোতা হ্যায়’ রুপোলি পরদায় রণবীর কাপুরের মুখে এই ডায়লগ যতই ভালো লাগুক, আসল জীবনে তা বেশ সমস্যার। বরং, একতরফের ভালোবাসার যন্ত্রণা থেকে যত তাড়াতাড়ি বেরিয়ে আসা যায়, ততই মঙ্গল। কোনও পুরুষ বা নারীকে ভালোবাসেন, কিন্তু জানেন কোনওদিনই পাবেন না তাঁর ভালোবাসা— এ বড়ই যন্ত্রণার! এর থেকে বাঁচার উপায় নিজের উপলব্ধি ধীরে ধীরে বদলে নিন। 

নিজেকে সময় দিন

কোনও একটি মানুষকে ভোলার জন্য অন্য মানুষের প্রেমে পড়ার ফান্ডা কিন্তু একদম ভুল। মনোচিকিৎসকরা সেরকমটাই বলে থাকেন! তাই নিজেকে সময় দিন। গান গাওয়া বা ছবি আঁকার মতো পছন্দের কাজ, যা সময়ের অভাবে করে উঠতে পারেন না, তা নিয়ে বসে পড়ুন। ২৪ ঘণ্টা থেকে অন্তত একঘণ্টা রাখুন শুধুমাত্র নিজের জন্য।

ব্যাগ গুছিয়ে বেরিয়ে পড়ুন

মন খারাপ ভালো করার আরেক সেরা উপায় ঘুরতে যাওয়া। সোলো ট্রিপ বা গ্রুপ টিপ, যেটা ভালো লাগে সেটাই বেছে নিন। শুধু মনে রাখবেন গল্পের ফাঁকে বারবার ‘সেই মানুষটাকে’ টেনে আনবেন না। 

কষ্ট হওয়া স্বাভাবিক

মনের মানুষের কাছ থেকে প্রত্যাশিত সাড়া না-পেলে কষ্ট হবেই।  তবে একসময় এই যন্ত্রণা ধীরে ধীরে ফিকে হতে শুরু করবে। রাতারাতি পরিস্থিতি পাল্টাবে না, কমবে না মন খারাপও। তাই সেই সময়টা নিজেকে দিন!

আত্মবিশ্বাস রাখুন

একটি সম্পর্ক হল না মানেই— আপনি খারাপ, এরকম চিন্তাভাবনা মাথায় এলে কিন্তু মুশকিল। অনেকেই এই সময় নিজেকে নিয়ে হীনমন্যতায় ভোগে। নিজের ওপর বিশ্বাস রাখুন। নিজেকে ভালোবাসুন। বিশ্বাস রাখুন, নিশ্চিতভাবেই ভালো কিছু অপেক্ষা করে রয়েছে আপনার ভবিষ্যতে।   

বন্ধ করুন