বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Hrithik Roshan birthday: এ বছরই বসবেন বিয়ের পিঁড়িতে? হৃতিকের ৪৯-এর জন্মদিনে মনে রামধনু উঠেছে সাবার

Hrithik Roshan birthday: এ বছরই বসবেন বিয়ের পিঁড়িতে? হৃতিকের ৪৯-এর জন্মদিনে মনে রামধনু উঠেছে সাবার

হৃতিককে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে একগুচ্ছ আদুরে ছবি শেয়ার করেছেন সাবা

Hrithik Roshan birthday: জন্মদিনের সকাল থেকেই নেটমাধ্যমের পাতায় শুভেচ্ছায় ভাসছেন হৃতিক। অভিনেতাকে জন্মদিনের আদুরে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রেমিকা সাবা আজাদও। জুটির বিয়ের গুঞ্জনে সরগরম টিনসেল টাউন।

১০ জানুয়ারি। ৪৯-এ পা দিলেন বলিউডের গ্রিক গড হৃতিক রোশন। দুই দশকের বেশি সময় বলিউড দর্শক মুগ্ধ হয়েছে হৃতিকের নিখুঁত নাচ, অভিনয় দক্ষতা, মারকাটারি অ্যাকশন দৃশ্যে অভিনয় দেখে। ২০০০ সালে রাকেশ রোশন পরিচালিত ‘কহো না পেয়ার হ্যায়’ দিয়ে বলিউডে ডেবিউ করেন হৃতিক। এরপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি অভিনেতাকে।

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে বলিউড নিজের পায়ের তলার মাটি আরও শক্ত করেছেন হৃতিক। অ্য়াকশন থেকে রোম্যান্স কিংবা কাল্পনিক চরিত্র দর্শক তাঁকে পর্দায় বিভিন্ন সময় দেখতে পেয়েছে বিভিন্ন অবতারে। দেখতে দেখতে পঞ্চাশ ছুঁইছুঁই অভিনেতা। দুই সন্তান রেহান, হৃদানের বাবা তিনি। জন্মদিনের সকাল থেকেই নেটমাধ্যমের পাতায় শুভেচ্ছায় ভাসছেন হৃতিক। অভিনেতাকে জন্মদিনের আদুরে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন প্রেমিকা সাবা আজাদও।

আরও পড়ুন: সমুদ্র সৈকতে বিকিনিতে ভূমি, ‘বিশ্রী লাগছে’, নেটিজেনের হাতে চরম ট্রোল হলেন নায়িকা

৪৮ বছরে পা দিয়েছে বয়ফ্রেন্ড হৃতিক। প্রেমিকের জন্মদিনে আনন্দে আত্মহারা সাবা। জুটির বিয়ের গুঞ্জন এখন বলিউডের হট টপিক। এ দিন হৃতিকের সঙ্গে একগুচ্ছ অদেখা ছবি শেয়ার করেছেন গায়িকা। শুভেচ্ছা জানিয়ে লিখেছেন, ‘তুমি সবসময়ই প্রতিভাবান। বোকা এবং মটরশুটির মতো। সমস্ত ফলের মধ্যে অদ্ভুত। তোমাকে জন্মদিনের অনেক শুভেচ্ছা।’ সাবার পোস্টে শুভেচ্ছায় ভরিয়ে দিয়েছেন অভিনেতার-ভক্তরা।

প্রেমিকাকে কখনওই লোকচক্ষুর আড়ালে রাখেননি হৃতিক। সাবার সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে শুরু থেকেই খুল্লামখুল্লা অভিনেতা। প্রাক্তন স্ত্রী সুজান খানের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদের পরই সাবা আজাদের সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান হৃতিক। প্রেমিকের পরিবার এবং দুই ছেলের সঙ্গেও ভালো সম্পর্ক গড়ে উঠেছে সাবার। নতুন ফ্ল্যাট কিনেছেন হৃতিক। ইতিমধ্যে একসঙ্গে থাকাও শুরু করেছেন তাঁরা।

জুটির ঘনিষ্ঠ মহলে জোর জল্পনা, সাবাকে বাড়ির বৌ করে নিয়ে আসার ইচ্ছে হৃতিকের। এই মুহূর্তে বেশ কিছু কাজ রয়েছে হৃতিক-সাবার হাতে। বছর শেষেই কাজের প্রতিশ্রুতি মিটলে চার-হাত এক হতে পারে তাঁদের। গোটা পরিবার উপস্থিত থাকবে তাঁদের বিয়েতে। যদিও বিয়ে নিয়ে এখনও পর্যন্ত প্রকাশ্যে কোনও মন্তব্য করেননি হৃতিক-সাবা।

উল্লেখ্য, ২০০০ সালের ডিসেম্বরে হৃতিকের সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়েছিলেন সুজান খান। ২০১৪ সালে তাঁদের বিবাহবিচ্ছেদ হয়। ছেলেবেলার প্রেম, তারপর ১৪ বছরের সংসার। তবে বন্ধুত্বের সম্পর্কটা আজও অটুট। এমনকি ছেলেদের স্বার্থে এক ছাদের তলায় থাকতেও কুন্ঠাবোধ করেন না তাঁরা। বাবা-মা'র দায়িত্ব পালনে সর্বদাই দু-পা এগিয়ে হৃতিক-সুজান। প্রাক্তন হয়েও যে বন্ধু থাকা যায়, সন্তানদের সব দায়িত্ব পালন করা যায় তা দেখিয়ে দিয়েছেন দুজনে।

 

বন্ধ করুন