বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Hrithik Roshan: ‘মরতে বসেছিলাম’, অবসাদ গ্রাস করছিল হৃতিককে! ‘ওয়ার’ ছবির শ্যুটিংয়ের সময় কী ঘটেছিল?

Hrithik Roshan: ‘মরতে বসেছিলাম’, অবসাদ গ্রাস করছিল হৃতিককে! ‘ওয়ার’ ছবির শ্যুটিংয়ের সময় কী ঘটেছিল?

হৃতিক রোশন

অতীতের তিক্ত স্মৃতি ফিরে দেখলেন হৃতিক। ‘ওয়ার’ ছবির শ্যুটিং চলাকালীন কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে গিয়েছেন হৃতিক। ডিপ্রেশন প্রায় ঘিরে ধরেছিল তাঁকে, মাঝেমধ্যেই তাঁর মনে হত, ‘এবার বোধহয় মরেই যাব’। 

৪৮ বছরের হৃতিকের ‘এইট প্যাকস’ নিয়ে সম্প্রতি হইচই পড়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সুদর্শন হৃতিককে দেখে মন উতলা অনুরাগীদের। শরীরের প্রতিটি ভাঁজে ফুটে উঠেছে কঠিন পরিশ্রমের ঝলক। পেশাদার জীবন হোক বা ব্যক্তিগত জীবন- হৃতিক রোশনকে ঘিরে চর্চা থামছে না। সাবা আজাদের সঙ্গে হৃতিকের প্রেম ২০২২ জুড়ে থেকেছে সংবাদ শিরোনামে। সম্প্রতি অভিনেতা ফাঁস করলেন তাঁর জীবনের ‘কালো অধ্যায়’-এর কথা। বছর চারেক আগে হৃতিকের জীবনে শান্তির লেশমাত্র ছিল না, বরং অন্ধকার ঘিরে ধরেছিল তাঁকে। অবসাদ ধীরে ধীরে তাঁকে গ্রাস করতে শুরু করেছিল, মৃত্যুফাঁদে পড়েছিলেন অভিনেতা। 

২০১৯ সালের অক্টোবর মাসে মুক্তি পেয়েছিল ‘ওয়ার’। হৃতিকের কেরিয়ারের অন্যতম ব্যবসা সফল ছবি এটি। হৃতিক-টাইগারের যুগলবন্দি মুগ্ধ করেছিল সকলকে। তবে এই ছবির শ্যুটিং চলাকালীন কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন হৃতিক, আর পুরোটাই আভ্য়ন্তরীণ। হৃতিক সম্প্রতি নিজের ফিটনেস ট্রেনারের সঙ্গে আলোচনায় জানালেন, ‘নিজের জীবনে পরিবর্তন আনে বাধ্য হয়েছিলাম, প্রায় ডিপ্রেশনের শিকার হয়ে পড়ি’। 

ফিটনেস কোট ক্রিসের সঙ্গে আলোচনায় অতীতের সেই তিক্ত স্মৃতি ফিরে দেখে হৃতিক বলেন, ‘আমি প্রায় মরতে বসেছিলাম যখন ওয়ার শ্য়ুট করছিলাম। আমি তৈরি ছিলাম না ওই ছবির জন্য। আমার সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ ছিল। আমি চেষ্টা করছিলাম নিঁখুত হওয়ার কিন্তু আমি তৈরি ছিলাম না। ছবি শেষ হতেই অ্যাড্রিনালিন ফ্যাটিগ আমাকে ঘিরে ধরল। তিন-চার মাস সময় ধরে আমি কোনও শরীরচর্চাই করতে পারিনি। অবসাদ প্রায় আমাকে গ্রাস করে নিয়েছিল। আমি শেষ হয়ে যেতে বসেছিলাম। সেইসময়ই মনে হল, না আমায় ঘুরে দাঁড়াতে হবে। তার পরেই আবারও পুরনো চর্চায় ফিরি আমি।’

আমি প্রায় মরতে বসেছিলাম। অবসাদ গ্রাস করেছিল ‘ওয়ার’ সিনেমার শুটিংয়ের ঠিক আগে। তিন মাসের বেশি সময় আমি কোনও শরীরচর্চাই করতে পারিনি। শেষ হয়ে যেতে বসেছিলাম। কিন্তু শেষে মনে হল, না আমায় ঘুরে দাঁড়াতে হবে। তার পরেই আবারও পুরনো চর্চায় ফিরি আমি।"

নিজের শরীরের প্রতি বরাবরই যত্নবান হৃতিক। তাঁর ফিটনেস কোচ ক্রিস গেথিন জানান ২০১৩ সালে সাত মাসে একদিনও শরীরচর্চা থেকে বিরাম নেননি হৃতিক। গত বছর হৃতিকের একমাত্র রিলিজ ছিল ‘বিক্রম বেদা’। তিন বছর পর রুপোলি পর্দায় ফিরলেও বক্স অফিসে ব্যর্থ হয় এই ছবি। অভিনেতাকে আগামিতে দেখা যাবে ‘ফাইটার’ ছবিতে। সিদ্ধার্থ আনন্দের এই ফিল্মে দীপিকার সঙ্গে জুটি বেঁধেছেন হৃতিক। আগামি বছর (২০২৪)-এর জানুয়ারিতে মুক্তি পাবে ‘ফাইটার’। 

 

বন্ধ করুন