জবাব দিলেন হৃত্বিক (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
জবাব দিলেন হৃত্বিক (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

সিগারেট হাতে ছেলেদের সঙ্গে আড্ডা দিচ্ছেন হৃত্বিক? জবাব দিলেন সুপারহিরো কৃষ

  • হৃত্বিকের সাফ জবাব, যদি বাস্তবে তিনি কৃষ হতেন তাহলে পৃথিবীর বুক থেকে প্রত্যেক সিগারেট তিনি 'ধ্বংস' করে দিতেন।

লকডাউনের সময় হৃত্বিকের বাড়িতেই থাকছেন প্রাক্তন পত্নী সুজান খান। সম্প্রতি দুই ছেলে রিহান ও রিদানের সঙ্গে হৃত্বিকের একটি মিষ্টি মুহূর্তের ছবি ইনস্টাগ্রামে শেয়ার করে নিয়েছেন সুজান। যেখানে বাড়ির ব্যাকলনিতে দাঁড়িয়ে দুই ছেলের সঙ্গে খোসমেজাজে পাওয়া গেল হৃত্বিককে। কিন্তু এই ছবিতেই অদ্ভূত এক বিষয় খুঁজে পেয়েছেন হৃত্বিকের এক অনুরাগী।

মনে প্রশ্ন জাগায়, দেরি না করে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রিয় তারকার উদ্দেশ্যে তিনি জানান, 'হৃত্বিক রোশন কি তাঁর হাতে সিগারেট নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে? নাকি আমি ভুল দেখছি? আশা করছি আপনি সেটা করেননি হৃত্বিক। আমার খুব খারাপ লাগছে'।

সেই মহিলা অনুরাগীর প্রশ্নের জবাব দিয়েছেন হৃত্বিক। দূর করেছেন সব সন্দেহ। টুইট বার্তায় অভিনেতা জানান, 'আমি স্মোকার নই। আর আমি যদি কৃষ হতাম তাহলে এই ভাইরাসকে(করোনা) দূর হটানোর পর প্রথম যে কাজটা আমি করতাম সেটা হল এই পৃথিবী থেকে সব সিগারেট ধ্বংস করে দেওয়া'। প্রিয় তারকার কাছে এহেন উত্তর পেয়ে বেজায় খুশি সেই ভক্ত। সে লেখে,'আমি তো ভাবতেও পারছি না দ্বিতীয়বার আপনি আমাকে জবাব দিলেন।আমি জনতাম আপনি স্মোকার নন,কিন্তু সবাই এটা নিয়ে কথা বলছিল, আমি চিন্তায় পড়েগিয়েছিলাম তাই এই প্রশ্নটা করি। আমি আপনাকে ভালোবাসি এবং আপনার পরোয়া করি তাই এই প্রশ্ন। ধন্যবাদ উত্তর দেওয়ার জন্য। অনেক ভালোবাসা।


বলিউডের প্রথম সুপরাহিরো ফ্রাঞ্চাইসি, রাকেশ রোশন পরিচালিত এবং হৃত্বিক রোশন অভিনীত কৃষ। ২০০৩ সালে কোই মিল গায়া ছবির সঙ্গে শুরু এই ফ্রাঞ্চাইসির পথচলা। ২০০৬ সালে মুক্তি পায় কৃষ।৭ বছর পর,২০১৩ সালে কৃষ থ্রি নিয়ে ফেরেন পিতা-পুত্র জুটি। আগামী বছর মুক্তি পাওয়ার কথা কৃশ ফোরের। ২০১৬ সালেই কৃষ ফোরের ঘোষণা সেরেছিলেন রাকেশ রোশন। করোনার জেরে আপতত থমকে রয়েছে ছবির কাজ।

সম্প্রতি রাকেশ রোশন ও পিঙ্কি রোশনের ৪৯তম বিবাহবার্ষিকী সপরিবারে সেলিব্রেট করে নিয়েছেন হৃত্বিক। প্রাক্তন স্ত্রী সুজান ও দুই ছেলে রিহান ও রিদানের সঙ্গে পিয়ানো বাজিয়ে 'হ্যাপি অ্যানিভার্সারি' গানে গেয়ে 'মাম্মা-পাপা'কে শুভকামনা জানিয়েছেন হৃত্বিক।


বন্ধ করুন