বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Rajkumar Santoshi: ইতিহাস 'বিকৃত করে' গান্ধীকে নিয়ে ছবি! মৃত্যুর হুমকি পেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ পরিচালক

Rajkumar Santoshi: ইতিহাস 'বিকৃত করে' গান্ধীকে নিয়ে ছবি! মৃত্যুর হুমকি পেয়ে পুলিশের দ্বারস্থ পরিচালক

হুমকির মুখে রাজ কুমার সন্তোষী

Rajkumar Santoshi gets death threat: গান্ধীর হত্যাকারী নাথুরাম গডসকে ‘নায়ক’ হিসাবে তুলে ধরার অভিযোগ, মৃত্যুর হুমকি পেলেন রাজ কুমার সন্তোষী। 

মহাত্মা গান্ধীর মৃত্যুবার্ষিকীর ঠিক আগে মুক্তি পাচ্ছে পরিচালিত রাজ কুমার সন্তোষীর ‘গান্ধী গডসে: এক যুদ্ধ’। ২৬শে জানুয়ারি এই ছবির মুক্তির তারিখ নির্দিষ্ট, তার আগে মৃত্যুর হুমকি পেলেন পরিচালক। এই ছবির ট্রেলার সামনে আসবার পর থেকেই বিতর্ক মাথাচাড়া দিয়েছে। ছবির প্রমোশনে হামলা চালিয়েছিল একদল উত্তেজিত জনতা, প্রেক্ষাগৃহেও বিক্ষোভ প্রদর্শন চলেছে। এবার পরিচালককে প্রাণে মারার হুমকি দেওয়া হল। নিজের এবং পরিবারের জন্য অসুরক্ষিত বোধ করছেন রাজ কুমার সন্তোষী। মুম্বই পুলিশের কাছে অতিরিক্ত সুরক্ষা চেয়ে কাতর আর্তি পরিচালকের। 

মুম্বই পুলিশকে লেখা চিঠিতে ‘গান্ধী গডসে: এক যুদ্ধ’ পরিচালত লেখেন, ‘ছবির প্রচার ও মুক্তি বন্ধ করতে বলে অজ্ঞাত পরিচয় লোকজন হুমকি দিচ্ছে। নিজের ও পরিবারের সুরক্ষা নিয়ে চিন্তিত। এই রকম লোকজন চারপাশে স্বাধীন ভাবে চলাফেরা করলে আমার ও পরিবারের বিপদ হতে পারে।’ মুম্বই পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার দেবেন ভারতীকে চিঠি লিখে পরিচালক জানান, ইতিমধ্যেই ছবির সাংবাদিক বৈঠক চলাকালীন খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে কিছু মানুষ ভিতরে ঢোকে এবং তা ভেস্তে দেয়। 

ট্রেলার মুক্তির পর থেকেই বিতর্কে এই ছবি। ‘জাতির জনক' মহাত্মা গান্ধীকে গুলি করে হত্যা করেছিল নাথুরাম গডসে। যদিও এই ছবিতে স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ের এই ইতিহাসকেই পালটে দেওয়া হয়েছে। ট্রেলারে দেখানো হয়েছে গডসের প্রাণঘাতী হামলায় বেঁচে যান গান্ধী, এরপর জেলে গিয়ে গডসের সঙ্গে দেখা করেন বাপু। ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগ তো রয়েইছে, পাশাপাশি এই ছবিতে নাথুরাম গডসের মতো আততায়ীকে গৌরবান্বিত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ তুলেছেন অনেকেই। এই ছবিতে অভিনেতা চিন্ময় মান্ডলেকরকে দেখা যাবে গডসের চরিত্রে, অন্যদিকে দীপক আন্তানি অভিনয় করেছেন গান্ধীজির ভূমিকায়।

গান্ধী পরিবারের তরফেও এই ছবির বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করা হয়েছে। গান্ধীজির প্রপৌত্র তুষার গান্ধী জানান, ‘আমি খুব বেশি চমকে যাইনি। কারণ ওদের কাছে গডসে নায়ক। আমি এই ছবিটা ভালো না খারাপ সেই নিয়ে মন্তব্য করব না যেহেতু আমি দেখেনি। আর যে ছবিতে এক হত্যাকারীকে গৌরবান্বিত করা হয়, সেই ছবি আমি জীবনেও দেখব না’। 

এই ছবির প্রচারে পরিচালকের মন্তব্য ঘিরেও কম শোরগোল হয়নি। পরিচালক রাজকুমার সন্তোষী এক সাক্ষাৎকারে বলে বসেন, ‘মহাত্মা গান্ধীর আদর্শে বিশ্বাস করি। তবে কাপুরুষতা ও হিংসার মধ্যে নির্বাচন করতে হলে হিংসাকেই বেছে নেব।’ পরে অবশ্য নিজের মন্তব্যের সাফাই দিয়ে তিনি বলেন, ‘অহিংসা আর কাপুরুষতা এক নয়, অনেকে সেটাই মনে করে’। 

 

বন্ধ করুন