বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘সারেগামাপা’য় অর্কদীপের জয়ের পর হয়েছিল ট্রোলিং, মনোবিদের সাহায্য নিয়েছিলেন ইমন
অর্কদীপের সঙ্গে ইমন। (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
অর্কদীপের সঙ্গে ইমন। (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

‘সারেগামাপা’য় অর্কদীপের জয়ের পর হয়েছিল ট্রোলিং, মনোবিদের সাহায্য নিয়েছিলেন ইমন

  • নিজেকে ঘরবন্দি রেখেছিলেন ২-৩ দিন। এখনও ভাবতে পারেন না কেন তাঁকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছিল নেটনাগরিকরা। 

সোশ্যাল মিডিয়ায় তারকাদের নিয়ে চলা ট্রোলিং নিয়ে মুখ খুললেন ইমন চক্রবর্তী। সম্প্রতি, আনন্দবাজার ডিজিটালের লাইভে গায়িকা জানালেন ‘সারেগামাপা’র অনুষ্ঠানের বিজেতা হিসেবে অর্কদীপের নাম ঘোষণা হওয়ার পর তাঁকে নিয়ে নানা কুৎসিত মন্তব্য হয়েছিল নেট দুনিয়ায়। তিনি টাকা খাইয়ে অর্কদীপকে জিতিয়েছেন, এমনকী তাঁদের মধ্যেকার গুরু-শিষ্যের সম্পর্ক নিয়েও প্রশ্ন উঠেছিল সেই সময়। যা শুনে মন থেকে ভেঙে পড়েছিলেন এই গায়িকা। 

লাইভে ইমন জানান, ‘সারেগামাপা-র ঘটনাটা ঘটে যাওয়ার পর আমি ৩-৪ দিন ঘর থেকে বাইরে বের হতে পারিনি। আমি একজন মহিলা। কিন্তু, অন্য মহিলারাই আমার গায়ে কাদা ছিটিয়েছিলেন তখন। আমি শুধু ভাবতাম, কোনও অন্যায় না-করেও কেন আমাকে এই ধরনের কথার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। আমি তখন বাইরে বের হতে চাইতাম না। মনে হত, আমি বাইরের বেরলেই সকলে আমাকে খারাপ চোখে দেখছে। আমার ব্যাপারে খারাপ কথা বলছে। তারপর মনোবিদের সাহায্য নেই এসবের থেকে বেরিয়ে আসতে।’

শুধু এখন নয়, এর আগেও ব্যক্তিগত জীবনের নানা ঘটনা নিয়ে ট্রোলিং সহ্য করতে হয়েছে তাঁকে। তাঁর ও নীলাঞ্জনের সম্পর্ক নিয়েও অনেক কুকথা হয়েছিল। এমনকী, হানিমুনে গিয়ে নীলাঞ্জনকে চুমু খাওয়ার জন্যও ‘নীতি পুলিশ’-এর নজরে পড়েছিলেন তিনি। 

তবে, সেসব নিয়ে ভেবে সময় নষ্ট করতে একেবারেই রাজি নন এখন আর তিনি। নেতিবাচকতা কাটিয়ে ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছেন। আপাতত এই দুঃসময়ে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। বেশ কিছু স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে হাত মিলিয়ে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে।

বন্ধ করুন