বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'কখনও চিৎকার করে কেঁদে ওঠেন', নিজের সব কথা মা রিনা দত্তের সঙ্গে ভাগ করেন ইরা!
মা রিনা দত্তের সঙ্গে ইরা খান

'কখনও চিৎকার করে কেঁদে ওঠেন', নিজের সব কথা মা রিনা দত্তের সঙ্গে ভাগ করেন ইরা!

  • ইরার ‘পিঙ্কি প্রমিস টু মি’..

অভিনেতা আমির খান এবং তাঁর প্রথম স্ত্রী রিনা দত্ত কন্যা ইরা খান। সম্প্রতি মায়ের সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে নিজের ছবি শেয়ার করেছেন ইরা। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, মা রিনা দত্তের কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ তিনি। মায়ের সঙ্গে তাঁর অনুভূতিগুলি ভাগ করেন আমির কন্যা। সম্প্রতি ইরা তাঁর অগস্ত্য ফাউন্ডেশন সম্পর্কেও মুখ খুলেছেন। সেখানে নিজের যত্ন নেওয়ার দিবস সম্পর্কে কথা বলতে দেখা যায় তাঁকে।

ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে সম্প্রতি মা রিনা দত্তের সঙ্গে একটি ছবি শেয়ার করেছেন ইরা। ছবিতে দুজনকে গাড়িতে করে যেতে দেখা যাচ্ছে। কোথাও ট্রাভেল করছেন তাঁরা। ছবিতে ইরাকে ট্যাঙ্ক টপের সঙ্গে গলায় স্কার্ফ নিয়ে দেখা গেছে। সম্পূর্ণ কালো পোশাকে দেখা গেছে রিনাকে।

ইরার ইনস্টাগ্রাম স্টোরি
ইরার ইনস্টাগ্রাম স্টোরি

গাড়ির সামনের সিটে বসে থাকতে দেখা যায় ইরাকে। পিছনের সিটে বসে রয়েছেন রিনা। ক্যাপশনে আমির কন্যা লেখেন, ‘আমার অনুভূতি সম্পর্কে সব সময় আমি আমার মায়ের সঙ্গে কথা বলি। এই কথোপকথনগুলি ব্যক্তিগতভাবে রাখতে জিনিসগুলোতে সাধারণত আমি করি, চিৎকার করে কেঁদে ফেলি @agatsufoundation and #pinkypromisetome'।

 

ইরার ইনস্টা স্টোরি
ইরার ইনস্টা স্টোরি

নিজের আরও একটি সেলফি শেয়ার করেন ইরা। সেখানে ক্যাপশনে তিনি বলেন, 'নিজের স্বাচ্ছন্দ্যের জায়গা থেকে বেরানো সব সময় ভাল মনে না-ও হতে পারে। কখনও কখনও এটা মোটেও কিছু মনে হয় না। অনেক সময় সেটা হতাশ করে। তবে এটায় জীবন পরিবর্তন হওয়ার কথা নয়। অধিকাংশ সময়.. একটা ছোট্ট পদক্ষেপ মাত্র। এবং দিন শেষে ... এটি সামান্য জিনিস। ঠিক?' এই ছবিতেও হ্যাসট্যাগ 'pinky promise to me' এবং @agatsufoundation ব্যবহার করেছেন।

মে নিজের নিজের জন্মদিনের দিন অগস্ত্য ফাইন্ডেশন স্থাপন করেন ইরা। সেই সম্পর্কে বলতে গিয়ে তিনি জানিয়েছিলেন, ‘আগস্ত্য আমার প্রয়াস, এটি আমার জীবনকে আরও উন্নত করার জন্য ভারসাম্য অর্জনের চেষ্টা করবে, জীবনকে আপনার পক্ষে আরও সুন্দর এবং সুবিধার্থ করবে। আপনার পক্ষে যা সহজ উপায় তাই বোঝাবে’। মানসিক স্বাস্থ্য নিয়ে নতুন প্রয়াস ইরার।

 

 

বন্ধ করুন