বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Jacqueline Fernandez: প্রেমের আগুন ছিল দুতরফা! বাথরুমে প্রতারক সুকেশের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ জ্যাকলিন, ফাঁস ছবি
জ্যাকলিনের ছবি ফাঁস হতেই শোরগোল
জ্যাকলিনের ছবি ফাঁস হতেই শোরগোল

Jacqueline Fernandez: প্রেমের আগুন ছিল দুতরফা! বাথরুমে প্রতারক সুকেশের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ জ্যাকলিন, ফাঁস ছবি

  • কয়েক হাজার কোটি টাকার জালিয়াতি মামলায় অভিযুক্ত সুকেশ চন্দ্রশেখরের সঙ্গে জ্যাকলিনের নয়া ছবি ফাঁস। ফের ঘনিষ্ঠ দুজনে। 

কয়েক হাজার কোটি টাকার প্রতারণার মামলায় অভিযুক্ত সুকেশ চন্দ্রশেখরের গালে গাঢ় চুমু খাচ্ছেন জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ।তেমনই এক ছবি ঘিরে তোলপাড় নেটমাধ্যম। বাথরুমের ভিতর আয়নার সামনে আইফোন হাতে দাঁড়িয়ে সুকেশ, এবং তাঁর গালে চুমু খাচ্ছেন ‘কিক’ নায়িকা। দিন কয়েক আগেও সুকেশ আর জ্যাকলিনের একটি ঘনিষ্ঠ ছবি ফাঁস হয়েছিল, সেখানে প্রতারক সুকেশকে জ্যাকলিনের গালে চুমু খেতে দেখা গিয়েছিল। 

সুকেশ-জ্যাকলিনের নয়া ছবি ফাঁস হতেই ফের চর্চায় দুজনের সম্পর্ক। আর্থিক তছরুপের এই মামলায় বারবার ইডির জেরার মুখে পড়েছেন জ্যাকলিন। তবে মিডিয়ায় বিবৃতি দিয়ে নায়িকা জানিয়েছিলেন, সুকেশের সঙ্গে তাঁর প্রেম সম্পর্কের খবর ভুয়ো, যদিও এই ছবি বলছে অন্য কথা! 

অন্তরঙ্গ অবস্থায় জ্যাকলিন-সুকেশ, বাঁ দিকের ছবিটি সামনে এসেছে সম্প্রতি
অন্তরঙ্গ অবস্থায় জ্যাকলিন-সুকেশ, বাঁ দিকের ছবিটি সামনে এসেছে সম্প্রতি

ইন্ডিয়া টুডে-র এক প্রতিবেদনে ছবি দাবি করা হয়েছে জ্যাকলিন-সুকেশের এই অন্তরঙ্গ ছবিটি চলতি বছর এপ্রিল থেকে জুন মাসের মধ্যে তোলা হয়েছে। এবং সুকেশের হাতে যে ফোনটি রয়েছে, সেটির মাধ্যমেই বিরাট অঙ্কের প্রতারণার যাবতীয় কাজ সেরেছেন সুকেশ।

অভিযুক্ত সুকেশের আইনজীবী অনন্ত মালিক আগেই দাবি করেছেন, জ্যাকলিনের সঙ্গে প্রেম সম্পর্ক ছিল বিবাহিত সুকেশের। যদিও জ্যাকলিনের মুখপাত্র পালটা বিবৃতি দিয়ে জানান, ‘তদন্তকারীদের সঙ্গে সবরকম সহযোগিতা করছেন জ্যাকলিন, উনি এই মামলার অভিযুক্ত নন। ওনাকে সাক্ষী দেওয়ার জন্য ডাকা হয়েছে। জ্যাকলিনের সঙ্গে অভিযুক্তের ব্যক্তিগত সম্পর্কের খবর ভুয়ো ও ভিত্তিহীন’। কিন্তু গত কয়েকদিনে জ্যাকলিন-সুকেশের ছবি ভাইরাল হতেই অস্বস্তিতে ‘ভূত-পুলিশ’ নায়িকা। 

ইন্ডিয়া টুডের প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে চারবার চেন্নাইতে জ্যাকলিনের সঙ্গে দেখা করেছেন সুকেশ, এমনকি অভিনেত্রীর জন্য প্রাইভেট জেটের বন্দোবস্তও করে দেন তিনি। এমনটাও জানা গিয়েছে তিহার জেল থেকে জ্যাকলিনকে ফোন করতেন সুকেশ, পাঠাতেন চকোলেট, ফুলের তোড়াও। কিন্তু সুকেশের আসল পরিচয় জানা ছিল না জ্যাকলিনের। অভিনেত্রীর সঙ্গেও প্রতারণা করেছেন সুকেশ।

সূত্রের খবর, প্রায় ১০০ জনেরও বেশি মানুষকে ঠকিয়ে তাঁদের থেকে কোটি কোটি টাকা তুলেছে চন্দ্রশেখর ওরফে বালাজি। সুকেশ এবং স্ত্রী লীনা পালও এর আগে ২০১১ সালে এক ব্যাঙ্ক জালিয়াতির মামলার অভিযুক্ত। গ্রেফতারও হয়েছিলে তারা, পরে জামিনে ছাড়া পায়। কিন্তু তা সত্ত্বেও স্বভাব পালটায়নি দুজনের।

বন্ধ করুন