বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > কিংবদন্তি পরিচালক বিমল রায়ের পরিবারকে ধন্যবাদ কঙ্গনার, কেন জানেন?
প্রয়াত কিংবদন্তি পরিচালক বিমল রায়ের ক্যামেরা হাতে কঙ্গনা।
প্রয়াত কিংবদন্তি পরিচালক বিমল রায়ের ক্যামেরা হাতে কঙ্গনা।

কিংবদন্তি পরিচালক বিমল রায়ের পরিবারকে ধন্যবাদ কঙ্গনার, কেন জানেন?

  • ফের একবার পরিচালকের আসনে দেখা যেতে চলেছে কঙ্গনা রানাওয়াত-কে। 

ফের একবার পরিচালকের আসনে দেখা যেতে চলেছে কঙ্গনা রানাওয়াত-কে। 'মণিকর্ণিকা'র পর এবার পালা 'এমার্জেন্সি'র। ইন্দিরা গান্ধীর জরুরী অবস্থার প্রেক্ষাপটে তৈরি হবে এই ছবি। সেই ছবি পরিচালনার পাশাপাশি প্রযোজনাও করবেন তিনি। তবে খবর সেটা নয়। খবর হল, ভারতীয় চলচ্চিত্র ইতিহাসের কিংবদন্তী পরিচালক বিমল রায়ের ব্যবহৃত ক্যামেরা নিজের সেই ছবিতে ব্যবহার করবেন এই বিতর্কিত বলি-নায়িকা।

১৯৫০ সালে ব্যবহৃত বিমল রায়ের সেই ক্যামেরা নিয়ে রীতিমতো উচ্ছ্বসিত এই অভিনেত্রী। সেই ক্যামেরা নিয়ে নিজেই দু'টি ছবি শেয়ার করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। সঙ্গে লিখেছেন এদিন আর বাকি পাঁচটা দিনের মতো সাধারণ নয় তাঁর জীবনে। কারণ তাঁর হাতে এইমুহূর্তে রয়েছে কিংবদন্তি পরিচালক বিমল রায়ের একটি ক্যামেরা। ক্যামারটি তিনি যে প্রয়াত পরিচালকের পরিবারের থেকে ধার করেছেন, ঠারেঠোরে সেকথা জানিয়ে তাঁদের উদ্দেশে কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেছেন কঙ্গনা। আপাতত ‘টিকু ওয়েডস শেরু’ ছবির কাজে ব্যস্ত কঙ্গনা। এই ছবির মাধ্যমেই বলিপাড়ায় প্রযোজক হিসেবে পা রাখছেন এই তারকা-অভিনেত্রী। ‘টিকু ওয়েডস শেরু’র সেট থেকেই ক্যামেরা হাতে এই ছবি শেয়ার করেছেন তিনি।

প্রসঙ্গত 'টিকু ওয়েডস শেরু' প্রেমের গল্প হলেও তা স্যাটেয়ারধর্মী। কঙ্গনার প্রোডাকশন হাউজ 'মণিকর্ণিকা ফিল্মস' রয়েছে এই ছবি প্রযোজনার দায়িত্বে। ছবিতে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকির বিপরীতে এই ছবিতে দেখা যাবে অভনীত কউরকে। এছাড়াও কঙ্গনার হাতে এইমুহূর্তে রয়েছে ‘মণিকর্ণিকা: রিটার্নস দ্য লেজেন্ড অফ দিদ্দা’, ‘এমার্জেন্সি’, ‘তেজস’ এবং ‘দ্য ইনকারনেশন: সিতা’ এর মতো একগুচ্ছ সিনেমা। মুক্তির অপেক্ষায় দিন গুণছে 'ধকড়'। 

বন্ধ করুন