বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > টুইটার ফিরে পেতে কঙ্গনা রানাওয়াতের নতুন চাল, ‘নির্বোধ’ বললেন ইনস্টাগ্রামকে!

টুইটার ফিরে পেতে কঙ্গনা রানাওয়াতের নতুন চাল, ‘নির্বোধ’ বললেন ইনস্টাগ্রামকে!

ইনস্টাগ্রামকে ‘নির্বোধ’ বললেন কঙ্গনা রানাওয়াত।

২০২১ সালে টুইটার থেকে পাকাপাকিভাবে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল কঙ্গনাকে। এলন মাস্ক টুইটারের দায়িত্ব নেওয়ার পর টুইটারে ফিরতে উঠেপড়ে লেগেছেন কুইন নায়িকা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় অ্যাক্টিভ থাকতে বেশ ভালোবাসেন কঙ্গনা রানাওয়াত। নানা ধরনের ইস্যু নিয়ে স্টোরি, স্টেটাস শেয়ার করেন। এই তো দিনকয়েক আগেই টুইটারকে ‘সেরা সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম’ হিসেবে ঘোষণা করেছেন। আর বলেছেন, ‘বুদ্ধিগতভাবে, আদর্শগতভাবে অনুপ্রাণিত করে’। আর আজ ইনস্টাগ্রাম সম্পর্কে বললেন, ‘নির্বোধ’। কুইন নায়িকার মতে সেটা নাকি শুধুই ‘ছবি দেওয়ার জন্য’।

মে ২০২১ সালে টুইটার থেকে পাকাপাকিভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল কঙ্গনাকে উত্তেজনামূলক পোস্টের কারণে। তবে এলন মাস্ক টুইটারের মালিকানা হাতে নিতেই আশা জেগেছে নায়িকার মনে। টুইটারে ফেরত আসার আভাস দিয়েই চলেছেন। সঙ্গে এবার তো টুইটারের সঙ্গে ইনস্টাগ্রামের তুলনাও করে বসলেন।

শুক্রবার কঙ্গনা ইনস্টাস্টোরিতে লিখলেন, ‘নির্বোধ ইনস্টাগ্রাম শুধুই ছবি দেওয়ার জন্য। একজন নিজের যা মতামতই লেখে তা ২৪ ঘণ্টা পর গায়েব হয়ে যায়। যেন সকলেই অস্থির মস্তিষ্কের, ফালতু ডাম্বো, যে দেখতেই চায় না আর ২৪ ঘণ্টা আগে ঠিক কী লিখেছিল। কারণ ওরা তো নিজেরাই জানে না ঠিক কী বলতে চায়। তার থেকে গায়েব হয়ে যাওয়াই তো ভালো।’

আরও লেখেন, ‘কিন্তু আমাদের মতো অনেকেই তো আছে যারা নিজেদের ভাবনার ব্যাপারে স্থির। চায় তাঁদের ভাবনা যেন পরেও ডকুমেন্টেড থাকে যাতে অন্যেরা দেখতে পারে। তারা চায় তাদের বলা কথা যেন হারিয়ে না যায়। এগুলো আসলে মিনি ব্লগ। এগুলো খোলা থাকা উচিত বিষয় এবং বস্তুর আরও উন্নতির জন্য।’

কঙ্গনার ইনস্টাস্টোরি। 
কঙ্গনার ইনস্টাস্টোরি। 

দিনকয়েক আগেই এলন মাস্ককে ট্যাগ করে টুইটারের ব্লু টিক সম্পর্কে একটি পরামর্শ দেন। লেখেন, ‘কিছু মানুষ ভেরিফিকেশন পেয়ে যান, আবার কিছু মানুষ পান না। এর কারণ আমি বুঝতেই পারি না। আমি ব্লু টিক পেলেও আমার বাবা ব্লু টিকের আবেদন করলে ৩-৪ জন ব্যক্তি তা বাতিল করে দেবে। যেন তিনি বেআইনি জীবনযাপন করছেন। আমার মনে হয় ভারতে যাদের কাছে আধার কার্ড আছে সকলকেই ভেরিফিকেশন দেওয়া উচিত।’

 

বন্ধ করুন