বাড়ি > বায়োস্কোপ > কঙ্গনাকে নোটিশ পাঠাল বিএমসি, অবিলম্বে অফিসে কাজ বন্ধের নির্দেশ
কঙ্গনার অফিসের দরজায় নোটিশ সাঁটালো বিএমসি 
কঙ্গনার অফিসের দরজায় নোটিশ সাঁটালো বিএমসি 

কঙ্গনাকে নোটিশ পাঠাল বিএমসি, অবিলম্বে অফিসে কাজ বন্ধের নির্দেশ

  • চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে কঙ্গনার কাছে জবাব চেয়েছে বৃহন্মুম্বই পুরসভা। কঙ্গনার অফিসের নির্মাণের কাজে কাঠামোগত ক্রুটি রয়েছে যা অবৈধ, বলল বিএমএস। 

সোমবারই বৃহন্মুম্বই পুরসভার বিরুদ্ধে এবার বিস্ফোরক অভিযোগ এনেছিলেন বলিউডের কুইন কঙ্গনা রানাওয়াত । পুরসভার পক্ষ থেকে তাঁর অফিস স্পেসকে অবৈধ নির্মাণের আওতায় এনে ভেঙে গুঁড়িয়ে দেওয়ার প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে বলে টুইটারে দাবি করেন অভিনেত্রী । কোনওরকম নোটিশ ছাড়াই এদিন কঙ্গনার অফিসে হাজির হয়েছিলেন পুরসভার একদল কর্মী, সেই ভিডিয়ো শেয়ার করেছিলেন অভিনেত্রী। আর চব্বিশ ঘন্টার মধ্যেই কঙ্গনাকে নোটিশ ধরাল বিএমসি। 

মনিকর্ণিকা ফিল্মের অফিসে 'স্টপ ওয়ার্ক' অর্থাত্ ‘কাজ বন্ধের’ নির্দেশ দেওয়া হল। মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশন আইনের আওতায় ৩৫৪/এ সেকশন অনুসারে এদিন তিন পাতার নোটিশ আটকানো হল কঙ্গনার অফিসের গেটে। 

এই নোটিশে ৮-১০ পয়েন্ট উল্লেখ করা হয়েছে, যেখানে এই নির্মাণ কাজে বেশ কিছু কাঠামোগত নিয়ম লঙ্ঘনের কথা বলা হয়েছে। আগামী চব্বিশ ঘন্টায় এই নোটিশের জবাব দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। না হলে নির্দিষ্ট সময় পর বেআইনি নির্মান ভেঙে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। অভিনেতার স্টাফেরা এই নোটিশ গ্রহণ করতে অস্বীকার করে,প্রায় ঘন্টা দরজায় দাঁড়িয়ে থেকে সেখানেই নোটিশ আটকে রওনা দেয় বৃহন্মুম্বই পুরসভার কর্মীরা

কঙ্গনার এরপর টুইট করেন, ‘আমার অনুরাগী ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা সোশ্যাল মিডিয়ায় বৃহন্মুম্বই পুরসভাকে তুলোধনা করার জন্য আজ ওঁরা বুলডোজার নিয়ে আসেনি, তার বদলে আজ কাজ বন্ধের নোটিশ দিতে এসেছিল। বন্ধুরা আমি আমার সবকিছু নিয়ে ঝুঁকি নিচ্ছি, তবুও আমি সকলে ধন্যবাদ জানাচ্ছি হাত জোড় করে যে সমর্থন এবং ভালোবাসা আপনাদের থেকে আমি পাচ্ছি তাঁর জন্য’।

বৃহন্মুম্বই পুরসভার এইচ ওয়েস্ট ওয়ার্ডের (বান্দ্রা,খার) সহকারী কমিশানার বিনায়ক বিসপুটে জানান, ‘ আমরা জায়গা পরিদর্শন করেছি বিএমসির নির্দিষ্ট উন্নয়ন পরিকল্পনা অনুসারে। আমরা নোটিশে একাধিক নিয়ম লঙ্ঘনের কথা উল্লেখ করেছি এবং ওঁনার জবাবের অপেক্ষা করছি। তার উপর নির্ভর করেই পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে’।

সোমবার নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে একটি ভিডিও পোস্ট করে কঙ্গনা দাবি করেন , 'এটাই মনিকর্ণিকা ফিল্মের অফিস। দীর্ঘ ১৫ বছর অক্লান্ত পরিশ্রম করে আমি এই অফিস তৈরি করেছি । আমার স্বপ্ন ছিল যদি কোনওদিন ছবির পরিচালক হতে পারি, তখন যেন সম্পূর্ণ নিজস্ব অফিস থাকে। কিন্তু আমার স্বপ্ন ধূলিসাৎ হওয়ার পথে। কারণ আজ আচমকাই বি এম সি-র কয়েকজন আধিকারিক আমার অফিসে চড়াও হয়েছেন।'

 ক'দিন আগেই মুম্বই পুলিশের প্রতি অনাস্থার কথা বললে প্রকাশ্যে কঙ্গনার উদ্দেশ্যে শিবসেনার সাংসদ সঞ্জয় রাউত বলেন ‘তাহলে মুম্বই ফেরবার দরকার নেই’। এই মন্তব্যের প্রেক্ষাপটে মুম্বই শহরকে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করে শিব সেনার সঙ্গে সরাসরি তিক্ততার সম্পর্কে জড়ান অভিনেত্রী । মুম্বইতে পা রাখলে শিবসেনার মহিলা বাহিনী কঙ্গনাকে আক্রমণ করবে বলে হুমকি উড়ে আসে, এমনকি জাতীয় টেলিভিশনে কঙ্গনাকে ‘হারামখোর’ বলে কটাক্ষ করেন সঞ্জয় রাউত।

এই চাপানউতোরের মাঝেই কঙ্গনাকে নোটিশ ধরাল বিএমসি। অন্যদিকে গতকালই হিমালচ প্রদেশ সরকারের সুপারিশ মেনে কঙ্গনাকে Y ক্যাটেগরির সুরক্ষা দেওয়ার কথা নিশ্চিত করেছে কেন্দ্র সরকার। বুধবারই মুম্বই ফিরছেন কঙ্গনা রানাওয়াত।

বন্ধ করুন