বাড়ি > বায়োস্কোপ > বিকিনি পরে, চুল স্ট্রেট করেও স্বীকৃতি পাইনি, তাপসী-স্বরাকে বার্তা অনড় কঙ্গনার
তোমরা দুজনেই ভালো অভিনেত্রী হওয়া সত্ত্বেও কেন কাজ পাও না? তাপসী-স্বরার প্রতি প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন কঙ্গনা।
তোমরা দুজনেই ভালো অভিনেত্রী হওয়া সত্ত্বেও কেন কাজ পাও না? তাপসী-স্বরার প্রতি প্রশ্ন ছুড়ে দিলেন কঙ্গনা।

বিকিনি পরে, চুল স্ট্রেট করেও স্বীকৃতি পাইনি, তাপসী-স্বরাকে বার্তা অনড় কঙ্গনার

  • তই ঢুকে পড়ার চেষ্টা কর না কেন, বাস্তবে তেমন ঘটবে না। তুমি সকলের চোখে সেই বি গ্রেড অভিনেত্রী হিসেবেই পরিচিত হবে।

তাপসী পান্নু ও স্বরা ভাস্করকে ‘বি গ্রেড’ অভিনেত্রী বলে যে বিতর্ক তৈরি করেছেন কঙ্গনা রানাউত, তার থেকে একচুল সরতে তিনি রাজি নন। 

নিজের অবস্থান থেকে না সরে সম্প্রতি টাইমস অফ ইন্ডিয়া-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কঙ্গনা ব্যাখ্যা করেছেন, তাঁর ওই মন্তব্য। তাঁর মতে, স্বরা ভাস্কর যখন সংবাদমাধ্যমে বলেন যে তিনি সোনম কাপুরের প্রিয়তম বন্ধু, কেউ তা বিশ্বাস করেন না। কারণ সকলেই জানেন, সত্যিটা কী। একই ভাবে যখন তাপসী বলেন যে বলিউডের সকলেই তাঁকে ভালোবাসেন, তখন দুনিয়া বুঝতে পারে যে, তিনি আদৌ সত্যি কথা বলছেন না। কঙ্গনার দাবি, কেউ কখনও তাপসীকে আলিয়া ভাট বা অনন্যা পান্ডের সঙ্গে একাসনে বসান না।

এর পর কঙ্গনা বলেছেন, ‘যতই তুমি ঢুকে পড়ার চেষ্টা কর না কেন, বাস্তবে তেমনটা ঘটবে না। তুমি সকলের চোখে সেই বি গ্রেড অভিনেত্রী হিসেবেই পরিচিত হবে। এই সব গলিতে আমি এর আগেই হেঁটে এসেছি। আমি জানি তার গন্তব্য কোথায় শেষ হয়েছে। যদি মনে করে থাকো যে, তুমি দিব্যি ওদের সঙ্গে ফিল্মি দুনিয়ার ইনসাইডার হয়ে গিয়েছ, সেটা তোমার ভুল।’

কঙ্গনা জানিয়েছেন, অতীতে তিনিও বহু বার চেষ্টা করেছেন নিজের ওপর থেকে বি গ্রেড অভিনেত্রীর ট্যাগ মুছে ফেলার। তাঁর কথায়, ‘এ কথা সত্যি যে গোড়ার দিকে আমিও এই চেষ্টা করেছিলাম। সেই সময় নিজের চুল স্ট্রেট করেছি, ঠোঁট ফুলিয়ে রাখার জন্য তাতে বোটক্স পুরেছি, রাস্কেল-এর মতো ছবি করেছি, বিকিনি পরে ফোটোশ্যুট করেছি- প্রাণপণ চেষ্টা করেছি স্বীকৃতি পাওয়ার। চেয়েছি ম্যাগাজিনের কভার গার্ল হতে, পুরস্কার জিততে। কিন্তু আখেরে এ সবে কোনও লাভ হয়নি। আমি সেই বি গ্রেড অভিনেত্রীই থেকে গিয়েছি আর ওরাও আমাকে স্বীকৃতি দেয়নি।’

এর আগে রিপাবলিক টিভি-র সাক্ষাৎকারে কঙ্গনা বলেছিলেন, ‘এই সাক্ষাৎকারের মাধ্যমে আমি বলতে চাইছি, আমার এখানে শুধু হারানোরই আছে, কারণ আমি জানি যে আগামিকাল তাপসী পান্নু বা স্বরা ভাস্করের মতো কমপক্ষে ২০ জন অভাবী বহিরাগত দাঁড়িয়ে উঠে বলবে, ওহ! নেপোটিজম নিয়ে মাথাব্যথা রয়েছে শুধু কঙ্গনা রানাউতের। আমরা কিন্তু করণ জোহরকে ভালোবাসি। যদি সত্যিই তোমরা করণ জোহরকে এত ভালোবাসো তাহলে কী কারণে দুজনেই এখনও বি গ্রেড অভিনেত্রী হয়ে রয়েছ? তোমরা দুজনেই আলিয়া ভাট বা অনন্যা পান্ডের থেকে দেখতে ভালো। তোমরা দুজনেই ভালো অভিনেত্রী। তা হলে কেন তোমরা কাজ পাও না? তোমাদের পুরো অস্তিত্বই তো নেপোটিজমের সপক্ষে প্রমাণ স্বরূপ। ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে তোমরা খুশি, এ সব আমাকে বলতে এস না।’

অন্য দিকে, হিন্দুস্তান টাইমস-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তাপসী পান্নু অভিযোগ করেন যে, কঙ্গনা ও তাঁর বোন রঙ্গোলি চান্ডেল মিলে তাঁর কেরিয়ার নষ্ট করার চেষ্টায় তাঁর বিরুদ্ধে মিত্যে অভিযোগ এনেছেন, আর সেই চেষ্টা কোনও ছবিতে নিজের জায়গায় কোনও স্টার-সন্তানের সুযোগ পাওয়ার সমতুল্য।

 

বন্ধ করুন