বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মাল হ্যায় কেয়া- দীপিকাকে কটাক্ষ কঙ্গনার

প্রয়াত অভিনেতা সুশান্ত সিংয়ের মৃত্যু রহস্যের জল্পনা অব্যাহত । আর এই অবহেও নিজের ঢঙে একের পর টুইট বিস্ফোরণ ঘটিয়ে চলেছেন বলিউডের কন্ট্রোভার্সি কুইন কঙ্গনা । সম্প্রতি এই মামলার সাথে যুক্ত থাকা মাদক চক্রের হদিশ করতে গিয়ে গোয়েন্দাদের তালিকায় নাম উঠেছে সারা আলি খান , দীপিকা পাডুকোন মতো তারকা অভিনেত্রীদের । 

টুইটারে একটি নিউজ ক্লিপ শেয়ার করে , দীপিকার উদ্দেশ্যে ব্যাঙ্গের সুরে আক্রমণ হেনে কঙ্গনা লিখেছেন , 'রিপিট আফটার মি .....(আমার পুনরাবৃত্তি করুন ) , ড্রাগের অপব্যবহারের পরিণতি হতাশা । সমাজের তথাকথিত আপার ক্লাসের সমৃদ্ধ তারকা শিশুরা যাঁরা নিজেদের উৎকৃষ্ট বলে দাবি করেন , তাঁরা তাঁদের ম্যানেজারকে জিজ্ঞাসা করেন , " মাল হ্যায় কেয়া ?" ( মাল অর্থাৎ মাদক আছে ? ) ' । উল্লেখ্য জুন মাসে সুশান্তের মৃত্যুর পরে নিজের সোশ্যাল মিডিয়াতে একই ভাবে ' রিপিট আফটার মি ' কথাটি ব্যবহার করে মানসিক স্বাস্থ্য সচেতনতার প্রচারে অংশ নিয়েছিলেন দীপিকা ।

সুশান্তের মৃত্যুর সাথে জড়িয়ে যাওয়া ড্রাগ তদন্ত প্রতি সপ্তাহে তীব্র থেকে তীব্রতর হয়ে উঠছে । বর্তমানে এই মামলাকে হাতিয়ার করেই বলিউডের রন্ধ্রে রন্ধ্রে ঢুকে থাকা মাদক চক্রের যোগসাজশকে খুঁজে বের করার লক্ষ্যে কোমর বেঁধে নেমেছেন এন সি বি আধিকারিকেরা ।  অভিনেতা রিয়া চক্রবর্তীর দেওয়া নামের তালিকা অনুসারে সারা আলি খান, রাকুল প্রীত সিং এবং সিমোন খাম্বট্টাকে তলব করবেন নার্কোটিকসের প্রতিনিধিরা । এনসিবির উপ-পরিচালক কে পি এস মালহোত্রা জানিয়েছিলেন , "সারা, রাকুল এবং সিমোনকে এই সপ্তাহেই তলব করা হবে।"

ইতিমধ্যেই কয়েকটি নিউজ চ্যানেলের হাতে সুশান্তের প্রাক্তন ব্যবস্থাপক জয়া সাহার সাথে , জনৈক ‘কে’ এবং ‘ডি’ নামক দুই ব্যক্তির কিছু হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট এসে পৌঁছেছে । রিপাবলিকের প্রতিবেদন অনুসারে, চ্যাট গুলি ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসের যেখানে দেখা গিয়েছে ডি , কে -এর কাছে জানতে চেয়েছে মাল আছে কি না । উত্তরে কে জানায় আছে , কিন্তু বাড়িতে । এর পরে কে ও ডি কোনও রেস্তোরাঁয় দেখা করার পরিকল্পনা করে এবং ডি জানিয়ে দে তার ' হ্যাশ ' লাগবে , ' উইড ' নয় ।

বন্ধ করুন