বাড়ি > বায়োস্কোপ > 'ড্রাগ নেন কঙ্গনা', অধ্যায়ন সুমনের অভিযোগ খতিয়ে দেখবে মহারাষ্ট্র সরকার
নতুন করে কঙ্গনার উপর আক্রমণ শানালেন অনিল দেশমুখ (PTI)
নতুন করে কঙ্গনার উপর আক্রমণ শানালেন অনিল দেশমুখ (PTI)

'ড্রাগ নেন কঙ্গনা', অধ্যায়ন সুমনের অভিযোগ খতিয়ে দেখবে মহারাষ্ট্র সরকার

  • মঙ্গলবার মহারাষ্ট্র বিধানসভায় শিবসেনার দুই বিধায়ক কঙ্গনার মাদকাসক্ত হওয়ার অভিযোগ আনেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই কঙ্গনার বিরুদ্ধে তদন্ত করবে মহারাষ্ট্র সরকার, জানালেন অনিল দেশমুখ।

থামছে না কঙ্গনা রানাওয়াত বনাম মহারাষ্ট্র সরকারের লড়াই। প্রতি মুহূর্তে নিত্যনতুন মোড় নিচ্ছে এই দ্বন্দ্ব। বলিউডের প্রথম সারির ৯৯% তারকা মাদকাসক্ত এমন মন্তব্য করে বিতর্কে জড়িয়ে ছিলেন কঙ্গনা। এবার কঙ্গনা রানাওয়াতের বিরুদ্ধে ড্রাগ নেওয়ার অভিযোগের তদন্ত করবে মহারাষ্ট্র সরকার। মঙ্গলবার এমনই মন্তব্য করলেন রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ। 

এদিন মহারাষ্ট্রের বিধানসভায় উঠল কঙ্গনা রানাওয়াত প্রসঙ্গ। শিবসেনার দুই বিধায়ক, সুনীল প্রভু এবং প্রতাপ সরনায়কের আবেদনের ভিত্তিতে নাকি হবে এই তদন্ত। আজ বিধানসভার বাইরে সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে অনিল দেশমুখ জানান, ‘কঙ্গনা রানাওয়াতের সম্পর্ক ছিল, বন্ধুত্ব ছিল শেখর সুমনের ছেলে অধ্যায়ন সুমনের। ও এক ইন্টারভিউতে বলেছিল যে কঙ্গনা ড্রাগস নেয়, এবং ওকে জোরজবরদস্তি ড্রাগ খাওয়ানোর চেষ্টা করেছিল। সেই অভিযোগের তদন্ত করা হবে’।

উল্লেখ্য ২০১৬ সালে ডিএনএ'কে দেওয়া এই এক সাক্ষাত্কারে এমন বিস্ফোরক অভিযোগ এনেছিলেন কঙ্গনার একসময়ের বয়ফ্রেন্ড কঙ্গনা রানাওয়াত।

অন্যদিকে মঙ্গলবারই মানালি থেকে মুম্বইয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছেন কঙ্গনা রানাওয়াত। সঞ্জয় রাউত বা অনিল দেশমুখের মন্তব্য নিয়ে কোনও বক্তব্য রাখেননি কঙ্গনা। কেন্দ্র সরকারের Y ক্যাটেগরির নিরাপত্তার মাঝে এদিন মুম্বইয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দিলেন কঙ্গনা। তিনি শুধু বলেন, ‘মুম্বইতে গিয়ে দেখা যাবে সব’।

আজ মানালি থেকে চন্ডীগড় যাচ্ছেন কঙ্গনা। সেখান থেকে মুম্বইয়ের উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন অভিনেত্রী। আগামিকাল মুম্বই পৌঁছাবেন কঙ্গনা রানাওয়াত।

উল্লেখ্য শিবসেনা এমএলএ প্রতাপ সরনায়কই শুক্রবার ধমকি দেওয়ার সুরে বলেন, কঙ্গনা মুম্বই ফিরলে তাঁর উপর আমাদের মহিলা মোর্চার যোদ্ধারা আক্রমণ করলে আমাদের দল দায় স্বীকার করা থেকেও পিছপা হবে না। এরপর কঙ্গনাকে ‘হামারখোর লড়কি’ বলেও কটাক্ষ করেন সঞ্জয় রাউত। জবাবে কঙ্গনা জানিয়ে দেন ‘আমি স্বাধীন দেশের নাগরিক, আমার পূর্ণ অধিকার রয়েছে নিজের অভিব্যক্তি প্রকাশ করবার, আমি আপনার নিন্দা করছি, আপনি মহারাষ্ট্র নন’।

শিবসেনার আইটি সেল কঙ্গনার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই থানের শ্রীনগর পুলিশ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। মুম্বইকে পাক অধিকৃত কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করায় কঙ্গনার বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করল শিবসেনা। মুভি মাফিয়াদের থেকে মুম্বই পুলিশকে বেশি ভয় পাচ্ছেন তিনি, কঙ্গনার এই মন্তব্যের পর থেকেই শিবসেনার সঙ্গে নায়িকার দ্বন্দ্ব জারি রয়েছে। যা নতুন মোড় নেয় কঙ্গনা যখন বলেন, ‘আমাকে যেভাবে প্রকাশ্যে হুমকি দেওয়া হচ্ছে তা আমার মনে হচ্ছে মুম্বই পাক অধিকৃত কাশ্মীর হয়ে গেছে’। মঙ্গলবার কঙ্গনার প্রযোজনা সংস্থা মনিকর্নিকা ফিল্মসের অফিসে কাজ বন্ধের নোটিশ আটকেছে বৃহন্মুম্বই পুরসভা। তাঁদের দাবি এই নির্মানকাজে কাঠামোগত ক্ষেত্রে বিএমসির নিয়ম লঙ্ঘন করা হয়েছে। অন্যদিকে শিবসেনার লাগাতার হুমকির পর হিমাচল প্রদেশেরে সরকারের সুপারিশ মেনে অভিনেত্রীকে Y ক্যাটেগরির নিরাপত্তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়ায় কেন্দ্র সরকার এর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছে মহারাষ্ট্র সরকার। 

বন্ধ করুন