বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > এজাজ-পবিত্রর চুমু ঘিরে বিতর্ক, লভ জিহাদের অভিযোগ এনে বিগ বস বন্ধের দাবি করণি সেনার
নয়া বিতর্ক বিগ বস 
নয়া বিতর্ক বিগ বস 

এজাজ-পবিত্রর চুমু ঘিরে বিতর্ক, লভ জিহাদের অভিযোগ এনে বিগ বস বন্ধের দাবি করণি সেনার

  • বিগ বসের ঘরে এজাজ-পবিত্রর ঘনিষ্ঠতা এবার প্রশ্নের মুখে। প্রযোজক সংস্থাকে নোটিশ ধরাল রাজপুত করণি সেনা। 

কালার্স চ্যানেলের বিরুদ্ধে এবার গুরুতর অভিযোগ করণি সেনার। এই জনপ্রিয় রিয়ালিটি শোয়ের মাধ্যমে লভ জিহাদের প্রচার চালানো হচ্ছে বলে দাবি করল করণি সেনা। বিতর্ক কোনওভাই পিছু ছাড়ছে না বিগ বস সিজন ১৪-র। এই মর্মে ইতিমধ্যেই প্রযোজক সংস্থা এন্ডামোল সাইন ইন্ডিয়াকে একটি নোটিস পাঠিয়েছে শ্রী রাজপুত করণি সেনা। শোয়ের প্রমো ও ভিডিয়োর মাধ্যমে লভ জেহাদে উস্কানি দিচ্ছে কর্তৃপক্ষ অভিযোগ তাঁদের। মূলত এজাজ খান ও পবিত্র পুনিয়ার যে চুম্বনের দৃশ্যগুলি সোশ্যালে ভাইরাল হয়ে গিয়েছে তাই নিয়েই আপত্তি করণি সেনার। তাঁদের দাবি  এগুলি অশ্লীল এবং নিঃসন্দেহে লভ জেহাদে উত্সাহ জোগাচ্ছে। রাজপুত করণি সেনার তরফে প্রযোজক সংস্থার কাছে যে নোটিশ পৌঁছেছে তা ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ্যে এসেছে। 

নোটিশে করণি সেনার দাবি এই শো ভারতীয় সংস্কৃতি বিরুদ্ধ এবং যেরকম অন্তরঙ্গ মুহূর্ত এখানে তুলে ধরা হচ্ছে তা অপসংস্কৃতির নিদর্শন মাত্র। 

বিগ বসের ঘরের সমীকরণ প্রতিদিনই পালটে যায়, তবে প্রত্যেক সিজনেই নতুন নতুন প্রেমিক যুগল নিজেদের ভালোবাসারন নীড় বানিয়ে ফেলে বিগ বসের ঘরকে। গত সিজনে আসিম-হিমাংশীকে দেখছে দর্শক, এবার তালিকায় এজাজ-পবিত্র। যদিও এই জুটির প্রেম কাহিনিটা মাথায় আসছে না বিগ বসের দর্শকদেরও। কারণ কোথা থেকে আচমকা এই প্রেমের জোয়ার এল সেটা ঠাওর করা যাচ্ছে না। একদিন আচমকাই পবিত্র চুম্বনে ভরিয়ে দেন এজাজকে। তারপর থেকেই তাঁদের মাখোমাখো রসায়ন চোখ পড়ছে সর্বত্র। 

শুরুতে এজাজ নিজের মুখে বলেছিলেন বিগ বসের ঘরে কোনওরকম সম্পর্কে জড়াতে আসেননি তিনি। তবে পবিত্রর প্রতি ঘনিষ্ঠতার জেরে ১৮০ ডিগ্রী ঘুরে তিনি বলেন শো শেষ হলে পবিত্রকে নিজের বাবার সঙ্গে দেখা করাবেন। কারণ বহু বছর পর তাঁর জীবনে স্পেশ্যাল একটা অনুভূতি কাজ করছে। যদিও পবিত্র এরপর সাফ করেন তাঁরা শুধুই ভালো বন্ধু। 

এর আগে শো চলাকালীন মরাঠি ভাষা নিয়ে জান কুমার শানুর এক মন্তব্য ঘিরে বিতর্কে জড়িয়ে ছিল এই শো। রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল শিবসেনার ক্ষোভের মুখেও পড়তে হয় প্রযোজক সংস্থা,চ্যানেল কর্তৃপক্ষকে। তড়িঘড়ি চিঠি লিখে মুখ্যমন্ত্রীর কাছে ক্ষমা চেয়ে নেয় কালার্স কর্তৃপক্ষ। 

বন্ধ করুন