বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > KBC 13: শোলের শ্যুটিংয়ে যোগ দেওয়ার জন্য ২৮ কিমি পথ হেঁটেছিলেন ‘বীরু’! রইল ভিডিও
কেবিসি-র মঞ্চে অমিতাভ, হেমার সঙ্গে ভিডিও কলে আড্ডায় যোগ দিলেন ধর্মেন্দ্র। (ছবি সৌজন্যে - ইনস্টাগ্রাম)

KBC 13: শোলের শ্যুটিংয়ে যোগ দেওয়ার জন্য ২৮ কিমি পথ হেঁটেছিলেন ‘বীরু’! রইল ভিডিও

  • ‘কৌন বনেগা ক্রড়োরপতি ১৩’য় এবারে অমিতাভের অতিথি ছিলেন হেমা মালিনি ও রমেশ সিপ্পি।হট সিটে না থাকলেও শো-তে এই তিনজনের সঙ্গে ভিডিও কোলের ওপর থেকে জমিয়ে আড্ডায় বসতে দেখা গেল ধর্মেন্দ্রকেও! 

‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি ১৩’-য় এবারে অমিতাভের অতিথি ছিলেন হেমা মালিনি ও রমেশ সিপ্পি। ‘শানদার শুক্রবার’ এপিসোডে দেখা গেল তাঁদের। এককথায় যাকে বলে 'শোলে' ছবির রিইউনিয়ন। তিনজনকে তাঁদের পুরনো দিনের কথা মনে করতে দেখা গেল যখন তারা 'শোলে' ছবির শ্যুটিং করেছিলেন।

শো-তে অমিতাভ এবং হেমাকে তাঁদের শ্যুটিংয়ের সোনালি দিনগুলোর কথা স্মরণ করতে দেখা যায়। ছবির বেশ কয়েকটি হিট সংলাপও তাঁদের মুখে শো-তে বলতে শোনা গেছে। কখনও অমিতাভের মুখে এসেছে 'শোলে' ছবিতে 'বসন্তী', আসরানির বিখ্যাত সেইসব মজার সংলাপ আবার কখনও উল্টো দিকে বসা হেমার মুখেও উঠে এসেছে 'জয়' এবং 'গব্বর'-এর বাছাই করা সুপারহিট সংলাপ। কম যান নি ধর্মেন্দ্রও। ভিডিও কলে আড্ডা মারতে মারতে 'শোলে'-র শ্যুটিংয়ের সেইসব দিনগুলোর স্মৃতিচারণ করতে করতে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন তিনি। কখনও বা মজার সুরে অমিতাভ, রমেশ সিপ্পিকে মনে করিয়ে দেন কীভাবে একবার এই ছবির শ্যুটিংয়ে যোগ দেবেন বলে ২৮ কিমি পথ পায়ে হেঁটে মেরে দিয়েছিলেন!

 

ধর্মেন্দ্রর কথার জের টেনে 'বীরু'-র আরও অজানা ও মজাদার কিসসার কথা সামনে তুলে ধরেন 'জয়'। সামনে বসে থাকা 'বসন্তী'-কে বলেন কীভাবে এতবড় তারকা হওয়া সত্বেও অতি সাধারণ মানুষের মতোই শ্যুটিংয়ের মাঝখানে ব্রেক পেলে খোলা আকাশের নিচে খাটিয়াতে দিব্যি নাক ডাকিয়ে ঘুমিয়ে পড়তে পারতেন 'ধরমজী'। আবার একবার 'শোলে'-র শ্যুটিংয়ে যাওয়ার পথে 'বীরু'-কে দেখার জন্য হাজার হাজার লোক জমা হয়ে গেছিল। 'জয়' ঘাবড়ে গেলেও তাঁকে আশ্বস্ত করেছিলেন 'বীরু'। চটপট গাড়ি থেকে নেমে রাস্তা থেকে এক অটো চালককে প্রায় পাকড়াও করে তাঁর অটো চেপেই পৌঁছে গেছিলেন 'রামগড়'!

কালজয়ী বলিউড ছবি ‘শোলে’। বক্স অফিসে ব্লকবাস্টার হিট। ১৯৭৫ সালের ১৫ অগস্ট মুক্তি পেয়েছিল সেই ছবি। লেখা হয়েছিল ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসের এক নতুন অধ্যায়। পরিচালক রমেশ সিপ্পির এই ছবি মুগ্ধ করেছে জেনারেশের পর জেনারেশনকে। সঞ্জীব কুমার ও আমজাদ খান ছাড়াও ছবিতে লিড রোলে অভিনয় করেছিলেন অমিতাভ বচ্চন, জয়া বচ্চন, ধর্মেন্দ্র, হেমা মালিনী, জগদীপ প্রমুখ।১৯৯৯ সালে বিবিসি ইন্ডিয়া এটিকে ‘film of the millennium’ হিসেবে ঘোষণা করে।

বন্ধ করুন