বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Ayush Garg: প্রেমিকাকে সঙ্গে নিয়ে কেবিসিতে খেলতে এসেছিলেন আয়ুষ! পরিবারের কী প্রতিক্রিয়া?
কৌন বনেগা ক্রোড়পতি প্রতিযোগী আয়ুষ গর্গ হোস্ট অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে

Ayush Garg: প্রেমিকাকে সঙ্গে নিয়ে কেবিসিতে খেলতে এসেছিলেন আয়ুষ! পরিবারের কী প্রতিক্রিয়া?

  • কেবিসি ১৪ প্রতিযোগী আয়ুশ গর্গ বলেছেন, তাঁর বন্ধুদের বাবা-মা এখন তাঁদের ডেটিং অ্যাপে যোগ দিতে বলছেন। 

টেলিভিশনের অন্যতম জনপ্রিয় রিয়ালিটি শো ‘কৌন বনেগা ক্রোড়পতি’ (কেবিসি)। ১৪ নম্বর সিজন শুরু হওয়ার পরই দর্শকের মধ্যে উন্মাদনা তুঙ্গে। শোয়ে সঞ্চালকের আসনে অমিতাভ বচ্চন। সপ্তাহখানেক আগের এক এপিসোডে হাজির হয়েছিলেন আয়ুষ গর্গ।

হোস্ট অমিতাভ বচ্চন আয়ুষকে প্রশ্ন করেছিলেন, এদিন সঙ্গে করে কাকে নিয়ে এসেছে সে? উত্তরে আয়ুষ বলেছিলেন, ‘স্যার, আমি আমার বান্ধবী আরুশি শর্মাকে নিয়ে এসেছি।’ আয়ুষ এ দিন শো থেকে ৭৫ লক্ষ টাকা জিতে বাড়ি ফিরেছিলেন। প্রতিযোগী খেলার সময় জানিয়েছিলেন, বান্ধবীর সঙ্গে তাঁর অনলাইন ডেটিং অ্যাপে পরিচয় হয়েছে। আরও পড়ুন: KBC: ৮০০০মিটারের বেশি উচ্চতায় প্রথম কোন পর্বত শৃঙ্গ মানুষ জয় করেছে? কোটি টাকার প্রশ্ন

কেবিসির হট সিটে বসার পর আয়ুষের জীবনে কতটা বদল এসেছে, হিন্দুস্তান টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সেকথা নিয়েই খোলামেলা আড্ডা দিয়েছেন। আইআইটি-দিল্লি এবং আইআইএম-আহমেদাবাদের স্নাতক, একটি টেক স্টার্ট-আপের কোম্পানীর সঙ্গে যুক্ত আয়ুষ। অপারেশন ম্যানেজার হিসাবে কাজ করেন তিনি। অনলাই ডেটিং অ্য়াপ থেকে, খেলতে আসার পর পরিবার বাবা-মায়ের প্রতিক্রিয়া, বিভিন্ন বিষয় কথা বলেছেন তিনি। আরও পড়ুন: মাল্টিপ্লেক্সে মাত্র ৭৫ টাকায় সিনেমা দেখুন

আয়ুষ বলেন, ‘অনলাইন ডেটিং আমাদের কাছে খুব সহজ (তরুণ প্রজন্ম), প্রায় প্রত্যেকেই যারা অবিবাহিত এই অ্যাপগুলিতে রয়েছে। কিন্তু, আমাদের বাবা-মায়েদের ক্ষেত্রে বেশিরভাগ প্রজন্ম কখনই ডেটিং করেনি, তাই তাঁদের জন্য এটি একটি অনাবিষ্কৃত অঞ্চল। আমি কেবিসিতে অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে আমার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে পেরে এবং অনলাইন ডেটিং অ্যাপের মাধ্যমে সম্ভাব্য সাক্ষাৎকারীদের মধ্যে আশা জাগাতে পেরে বেশ খুশি। আসলে, শো সম্প্রচারের পরে, আমার অনেক সহকর্মী এবং বন্ধুদের তাঁদের বাবা-মা জিজ্ঞাসা করেছিলেন, তারা ডেটিং অ্যাপে আছেন কিনা। তাঁদের বাবা-মা চান তাঁরা এখন নতুন উপায়ে পার্টনার খুঁজুক এবং তাঁদের বলছে- যদি এই অ্যাপগুলিতে না থাকে তবে তাঁদের হওয়া উচিত। এমন কিছু ছিল একটি ইতিবাচক ফলাফল যা এটিকে (টেলিভিশনে তার সম্পর্কের কথা বলা) মূল্যবান করে তোলে।’ আরও পড়ুন: ঐশ্বর্যর ডুপ্লিকেট আশিতাকে দেখলে চমকে যাবেন! নেটিজেনের দাবি, ‘ইয়ং অ্য়াশ’

কেবিসিতে আসার পর এমনটা ঘটবে, কখনই আশা করেননি আয়ুষ। তিনি খুব স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেছিলেন বলে জানিয়েছেন। পাশাপাশি নতুন পাওয়া খ্যাতির বাধ্যবাধকতা নিয়ে বেশি কিছু ভাবছেন না তিনি। আয়ুষের পরিবার তাঁর বোনের সমাবর্তনের জন্য ভারতের বাইরে ছিল, সেই সময় মুম্বইয়ে কেবিসির মঞ্চে হট সিটে খেলতে এসেছিলেন তিনি। পরিবারের থেকে অনেক সমর্থন পেয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

 

 

বন্ধ করুন