বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > কেবিসি বয়কটের হুমকি; অনুরাগীদের কাছে 'হাতজোড়' করে ক্ষমা চেয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন!
'কেবিসি' শো চলাকালীন অমিতাভ। ( ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)
'কেবিসি' শো চলাকালীন অমিতাভ। ( ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস)

কেবিসি বয়কটের হুমকি; অনুরাগীদের কাছে 'হাতজোড়' করে ক্ষমা চেয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন!

  • টেলিভিশনের ইতিহাসে অন্যতম জনপ্রিয় শো কেবিসি-কেও বয়কটের হুমকির মুখে পড়তে হয়েছিল।শেষপর্যন্ত 'ড্যামেজ কন্ট্রোল' করতে আসরে নেমেছিলেন অমিতাভ বচ্চন। 'হাতজোড়' করে অনুরাগীদের কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন কেবিসি-র সঞ্চালক।

দু' দশক পেরিয়ে রমরমিয়ে চলছে 'কৌন বনেগা ক্রোড়পতি'। জনপ্রিয়তায় এই শো আজও টেক্কা দেবে তাবড় তাবড় সুপারহিট একগুচ্ছ রিয়েলিটি শো-কে। সোমবার থেকে শুরু হয়েছে বিখ্যাত এই গেম শোয়ের ১৩তম সিজন। তবে টেলিভিশনের ইতিহাসে অন্যতম জনপ্রিয় এই শো-কেও বয়কটের হুমকির মুখে পড়তে হয়েছিল। আর তা তুলেছিল শোয়ের ফ্যানেরাই। শেষপর্যন্ত 'ড্যামেজ কন্ট্রোল' করতে আসরে নেমেছিলেন অমিতাভ বচ্চন। 'হাতজোড়' করে অনুরাগীদের কাছে ক্ষমা চেয়েছিলেন কেবিসি-র সঞ্চালক।

২০১৯ সাল। জোরকদমে চলছে কেবিসি-র ১১ নম্বর সিজন। বিতর্কের শুরু শো-তে অমিতাভের করা একটি প্রশ্নে, যা শুনে শোয়ের দর্শকদের মনে হয়েছিল ছত্রপতি শিবাজী মহারাজকে যথেষ্ট সম্মান প্রদর্শন করা হয়নি। অভিযোগকারীদের যুক্তি ছিল সেই প্রশ্নের চারটি অপশনের তিনটিতে যেখানে মহরানা প্রতাপ, রাজা রঞ্জিত সিং, রানা সংঘ প্রভৃতি ব্যক্তিত্বের নাম মর্যাদার সঙ্গে নেওয়া হয়েছে সেখানে ছত্রপতি শিবাজী মহারাজের নাম স্রেফ 'শিবাজী' হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, যা অত্যন্ত অসম্মানজনক।

বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক শুরু হতেই সোনি টিভি চ্যানেল কর্তৃপক্ষের তরফে প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়ে নেওয়া হয়। বলা হয় এই অনিচ্ছিকৃত ও অনভিপ্রেত ঘটনার জন্য যারপরনাই দুঃখিত তাঁরা।

শোয়ের প্রতিষ্ঠাতা এবং অন্যতম প্রযোজক সিদ্ধার্থ বসুও এ প্রসঙ্গে একটি টুইট করেছিলেন। অনভিপ্রেত ভুল-এর জন্য ক্ষমা চাওয়ার পাশাপাশি তিনি আরও জানান যে একটু লক্ষ্য করলেই সবাই দেখতে পাবেন যে শোয়ের বাকি অন্যান্য এপিসোডে একাধিকবার ছত্রপতি শিবাজী মহারাজের নাম পরিপূর্ণ মর্যাদা সহকারেই উচ্চারণ করা হয়েছে। সিদ্ধার্থ বসুর সেই টুইটটি রিটুইট করে অমিতাভও 'হাতজোড়' করার ইমোজি জুড়ে লেখেন যে মর্যাদাহানির কোনও উদ্দেশ্যেই ছিল না। অনিচ্ছাকৃতভাবে কারোর বিশ্বাসে আঘাত করে থাকলে ক্ষমাপ্রার্থী।

বন্ধ করুন