বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘এক মুহূর্ত তোমায় ফিরে পেতে..’, বাবাকে ছাড়া প্রথম পিতৃ দিবস কেকে-কন্যা তামারার
বাবাকে ছাড়া প্রথম পিতৃদিবস কেকে-কন্যা তামারার

‘এক মুহূর্ত তোমায় ফিরে পেতে..’, বাবাকে ছাড়া প্রথম পিতৃ দিবস কেকে-কন্যা তামারার

  • সদ্য প্রয়াত গায়ক কেকে-র উদ্দেশ্যে আবেগঘন পোস্ট কন্যা তামারার।

বাবাকে কেকে-কে ছাড়া এই প্রথম পিতৃ দিবস মেয়ে তামারার। কেকের সঙ্গে স্মৃতির পাতা উলটে দশক পুরনো ছবি নেটমাধ্যমে শেয়ার করেছেন গায়ক কন্যা। কেকের অদেখা ছবি তামারার সামাজিক মাধ্যমের পাতায় ভেসে উঠতেই চোখে জল নেটিজেনের। কেকে মারা গিয়েছেন এক মাসও হয়নি, পুরনো ছবি শেয়ার করে বাবার উদ্দেশে আবেগঘন বার্তাও লিখেছেন তামারা।

স্মৃতি পাতা থেকে শেয়ার করা ছবিতে কখনও কেকর পিঠে চড়ে দেখা গিয়েছে দুই ভাই-বোনকে। আবার কখনও বাবার কোলে বসে সঙ্গীতচর্চা করতে দেখা গিয়েছে একরত্তি কেকে কন্যাকে। বাবা-মায়ের মিষ্টি মুহূর্তের ছবি ভেসে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায়। আরও পড়ুন: ডেনিম কর্সেট টপ, হাই-রাইজ রিপড জিনসে গ্ল্যামারাস লুকে জাহ্নবী; মুগ্ধ ভক্তরা

ছবি শেয়ার করে তামারা লিখেছেন, ‘তোমাকে ফিরে পেতে, ১০০ বার তোমাকে হারানোর কষ্ট সইতেও আমি রাজি। তোমাকে ছাড়া জীবন অন্ধকার, বাবা।' আরও লিখেছেন, ‘তুমি আমার কাছে পরম স্নেহের বাবা ৷ তুমি বাড়ি ফিরে মুচকি হাসতে, তারপর আমাদের মাঝে শুয়ে স্নেহে জড়িয়ে ধরতে, তোমাকে মিস করছি ৷ তোমার সঙ্গে খাওয়া মিস করছি ৷ তোমার সঙ্গে হাসিটা মিস করছি ৷ তোমার সঙ্গে রান্নাঘরে ঢুকে গোপনে স্ন্যাক্স খাওয়াও মিস করছি ৷’

কেকে কন্যার কথায়, 'একে অপরকে প্রশংসায় ভরানোর মুহূর্তগুলো মিস করছি। শোনাতে পারছি না আমার ছোট্ট ছোট্ট মিউজিক আইডিয়া। পাচ্ছি না তোমার প্রতিক্রিয়াও। সবথেকে মিস করছি যেটা, তা হল তুমি আর আমার হাতটা ধরে নেই।'

‘আমাদের ভালোবাসায় ভরিয়ে রেখেছিলে। সুরক্ষিত রেখেছিল। এ জীবনে বেঁচে থাকতে ঠিক যেমন মানুষ দরকার, তুমি ছিলে ঠিক তেমন। আর সেই তুমিই কিনা চলে গেলে! এটা আর কেউ অনুভব করতে পারবে না। তোমার নিঃস্বার্থ ভালোবাসা এভাবে থমকে যেতে পারে ভাবতেই পারিনি। তোমার ভালোবাসাই আমাদের শক্তি', লিখেছে সে।

শেষে লিখেছে, ‘নকুল আর মা প্রতিটা মুহূর্ত, প্রতিটা দিন তোমাকে গর্বিত করার জন্য আর তোমার শক্তি সুদূরপ্রসারী জন্য কাজ করছে। আমরা প্রত্যেকে প্রত্যেকের খেয়াল রাখছি। ঠিক যেভাবে তুমি রাখতে। হ্যাপি ফাদার্স ডে। তুমি এই পৃথিবীর সবথেকে ভালো বাবা। চিরকাল ভালোবাসব। তোমায় প্রতিটা মুহূর্তে মনে পড়ে বাবা। বিশ্বাস করি তুমি আমাদের সঙ্গেই আছো।’

গত ৩১ মে কলকাতায় অনুষ্ঠান করতে এসে আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়েন গায়ক। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথেই মৃত্যু হয় কেকের। গায়কের আচমকা এভাবে চলে যাওয়াটা মেনে নিতে পারছে না পরিবার। পিতৃদিবসে সারা দুনিয়া যখন বাবাদের ঘিরে উদযাপনে মেতে, মনখারাপ সদ্য পিতৃহারা মেয়ের। কেকে ছাড়াও এদিন মা জ্যোতি এবং ভাই নকুলের ছবি ভেসে উঠেছে তামারার পোস্টে।

 

বন্ধ করুন