বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ফিরিয়ে আনলেন ‘কেকে-র স্মৃতি’, ‘ইয়ারো দোস্তি'-এবার পুত্র-কন্যা নকুল-তামারার কণ্ঠে
১৯৯৯ সালে ‘রকর্ফোড’ ছবিতে গাওয়া কেকের গান ‘ইয়ারো দোস্তি’

ফিরিয়ে আনলেন ‘কেকে-র স্মৃতি’, ‘ইয়ারো দোস্তি'-এবার পুত্র-কন্যা নকুল-তামারার কণ্ঠে

  • ‘ইয়ারো দোস্তি'র সুরকার লেসলি লুইস নতুন করে রেকর্ড করালেন এই গান। কেকের পুত্র-কন্যা নকুল-তামারা কণ্ঠ দিয়েছেন বাবার গানে।

‘শিল্পীর কখনও মৃত্যু হয় না। বেঁচে থাকেন তাঁর তৈরি শিল্পের মধ্যে..' তেমনি কেকে নেই দেখতে দেখতে কয়েক মাস পেরিয়ে গিয়েছে। কিন্তু এখনও তিনি পরিবার এবং অনুরাগীদের হৃদয়ের মধ্যে রয়েছেন। নিজের সৃষ্ট গানের মধ্যে দিয়েই বেঁচে রয়েছেন সকলের মধ্যে। কলকাতায় কনসার্টের শেষে ৩১ মে মারা যান কেকে।

১৯৯৯ সালে ‘রকর্ফোড’ ছবিতে গাওয়া কেকের গান ‘ইয়ারো দোস্তি’। গানটি বন্ধুত্ব কী তা শিখিয়েছে হাজার হাজার মানুষকে। বন্ধুত্বের সংজ্ঞা লিখে দেওয়া গান বললে, কেকে-র 'ইয়ারো' এককথায় গেয়ে উঠবেন সকলে। গানটিকে পুনরায় রেকর্ড করলেন এই গানের সুরকার লেসলি লুইস। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে সেকথা জানিয়েছেন সুরকার।

আরও পড়ুন: বিয়ের পর হিন্দুধর্ম গ্রহণ তৃতীয় স্ত্রী! প্রাক্তন বিয়ে প্রসঙ্গে অকপট রাহুল মহাজন

লেসলি লুইস সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে জানিয়েছেন, ‘এই দিনটি আমার জীবনে একটা অবিস্মরণীয় দিন। আমার গান ‘ইয়ারো দোস্তি বড়ি হি’ গানটি রেকর্ড করলাম আমার বন্ধু কেকে-এর দুই প্রতিভাবান ছেলেমেয়ের সঙ্গে। ওই একই স্টুডিয়োতে, যে স্টুডিয়োতে কেকে-র সঙ্গে গানটি রেকর্ড করেছিলাম। দুর্দান্ত মুহূর্ত। ঈশ্বর তাদের এবং তাদের সুপার মা জ্যোতিকে আশীর্বাদ করুক।’

এ দিন কেকের দুই ছেলেমেয়ে নকুল, তামারা এবং কেকে পত্নী জ্যোতির সঙ্গে একটি সেলফিও নেটমাধ্যমে পোস্ট করেন সুরকার লেসলি লুইস। তাঁদের এই উদ্যোগে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন অজস্র অনুরাগী।

বন্ধ করুন