বাড়ি > বায়োস্কোপ > 'বাবা আমাকে মেরে ফেলবে', বিস্ফোরক অভিযোগ কুমকুম ভাগ্য খ্যাত অভিনেত্রীর
বিস্ফোরক অভিযোগ অভিনে্ত্রীর 
বিস্ফোরক অভিযোগ অভিনে্ত্রীর 

'বাবা আমাকে মেরে ফেলবে', বিস্ফোরক অভিযোগ কুমকুম ভাগ্য খ্যাত অভিনেত্রীর

  • বাবার পছন্দের পাত্রকে বিয়ে করতে অস্বীকার করায় নাকি নির্যাতনের শিকার হতে হয়েছে তৃপ্তি শঙ্খধর। ভিডিয়ো ভাইরাল হওয়ার পর ব্যবস্থা নিল পুলিশ।

নিজের বাবাই নাকি তাঁকে মেরে ফেলতে চায়, এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি হিন্দি টেলিভিশনের জনপ্রিয় শো ' কুমকুম ভাগ্য ' খ্যাত অভিনেত্রী তৃপ্তি শঙ্খধরের । নিজের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে ভিডিও আপলোড করে এমন বিস্ফোরক অভিযোগকে সবার সামনে নিয়ে আসেন তৃপ্তি । আপাতত তাঁর দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর বাবাকে গ্রেফতার করেছে উত্তর প্রদেশ পুলিশ ।

নিজের ভিডিওতে তৃপ্তি দাবি করেন তাঁর বাবা তাঁর ওপর অকথ্য শারীরিক নির্যাতন করছেন। এমনকি বাবা তাঁর কব্জি কেটে দেয়ারও চেষ্টা করেন বলেও জানান অভিনেত্রী । জানা গিয়েছে তাঁর সাথে বয়সে দশ বছরের বড় এক ব্যক্তির বিবাহ দিতে চেয়েছিলেন তৃপ্তির বাবা, কিন্তু সেই শর্তে রাজি না হওয়ার কারণেই এই অত্যাচার বলে দাবি করেছেন তিনি ।  তবে এটা কোনও বিছিন্ন ঘটনা নয় বলেই জানান তৃপ্তি। মাকে সঙ্গে নিয়েই এই ভিডিয়োটি বানিয়েছেন অভিনেত্রী। তিনি বলেন, তাঁর মা এবং অপর দুই ভাই-বোনের উপরেও অত্যাচার চালায় বাবা।

একসময় বাবাই তাঁকে মুম্বই নিয়ে এসেছিলেন বলে জানান অভিনেত্রী । ' কিন্তু এখন উনি সেই সময় খরচ হওয়া সমস্ত টাকা ফেরত চাইছেন । আগেও আমরা পুলিশে যোগাযোগ করতে চেয়েছি , কোনো লাভ হয়নি ' , জানান তৃপ্তি |  এই ভিডিয়ো ভাইরাল হলে নড়েচড়ে বসে বরেলি থানার পুলিশ। এবং হেফাজতে নেওয়া হয় তৃপ্তির অভিযুক্ত বাবাকে। 

যদিও গ্রেফতরা করা হয়নি অভিযুক্ত রাম রতনকে।কারণ তৃপ্তি নিজেই বাবার বিরুদ্ধে কোনও আইনি পদক্ষেপ নিতে চাননি। তাই ব্যক্তিগত বন্ডে পরবর্তী সময়ে ছেড়ে দেওয়া হয় তাঁকে। তবে সিআরপিসির ১৫১ ধারায় রাম রতনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের হয়েছে। এসপি রবীন্দ্র কুমার জানান, ‘তৃপ্তি, তাঁর মা এবং ভাইবোনকে নিয়ে ওই বাড়িতে না থাকবার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবং রাম রতন লিখিত জবানবন্দি দিয়েছে সন্তানদের ব্যক্তিগত বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে না এবং কোনওভাবেই স্ত্রী,সন্তানদের গায়ে হাত দেবে না কিংবা মানসিক নির্যাতন করবে না’।

বন্ধ করুন