মিলিন্দ ও অঙ্কিতা (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
মিলিন্দ ও অঙ্কিতা (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

লকডাউন: রঙ্গোলি বিহুর সেলিব্রেশন মিলিন্দ-অঙ্কিতার, এগ ফাইটে মাতলেন এই জুটি

  • করোনার জেরে দেশজুড়ে জারি লকডাউন। উত্সবের দিন অসমে নিজের পরিবারের কথা খুব বেশি করে মনে পড়ল অঙ্কিতার। তবে স্ত্রীর মুখে হাসি ফোটাতে চেষ্টায় খামতি রাখলেন না মিলিন্দ সোমান।


মঙ্গলবার ছিল বাঙালির নববর্ষ। এদিন অসম জুড়ে পালিত হল রঙ্গোলি বিহু। কিন্তু এবছর লকডাউনের বাপের বাড়ি যেতে পারেন নি মিলিন্দ সোমন পত্নী অঙ্কিতা কোনওয়ার। তাই স্ত্রীর জন্য মুম্বইতেই এক টুকরো অসমের বন্দোবস্ত করে দিলেন মিলিন্দ। নেটদুনিয়ার অন্যতম ফেবারিট দম্পতি মিলিন্দ-অঙ্কিতা। প্রেম থাকলে, বয়স শুধুই একটা সংখ্যা এটা বরবার প্রমাণ করে দিয়েছেন এই জুটি। মঙ্গলবার একদম ট্রাডিশ্যানাল অসমিয়া পোশাকে পাওয়া গেল তাঁদের। মিলিন্দ পরেছিলেন সাদা কুর্তা, গলায় অসমের ঐতিহ্যবাহী গামোছা। অফ হোয়াইট শাড়িতে পাওয়া গেল অঙ্কিতাকে। নিয়ম মেনে ডিমের লড়াই হল এই পতি-পত্নী জুটির। ইনস্টাগ্রাম পোস্টে অঙ্কিতা জানিয়েছেন সহজেই 'এগ ফাইট'-এ জয় পেয়েছেন তিনি।


মিলিন্দ ইনস্টাগ্রাম পোস্টে লেখেন, সকলকে রঙ্গোলি বিহুর অনেক শুভেচ্ছা। অঙ্কিতা গুয়াহাটিতে অবস্থিত ওর পরিবারকে খুব মিস করছে। তাই আজ আমরা একটু এগ ফাইট করে নিলাম, বিহু সেলিব্রেট করতে। এটা বিহু সেলিব্রেশনের অবিচ্ছেদ্য অংশ।এইসময় সেই সব মানুষ যাঁরা নিজেদের পরিবার, আত্মীয়, বন্ধু বা প্রিয়জনের থেকে দূরে আছো-তাদের একটাই কথা বলব- এই সময় একে অপরকে মিস করাটাকে ভালোবাসো। এটাও একটা অদ্ভূত অনুভূতি। শীঘ্রই ফের কাছের মানুষকে ফিরে পাবে। সুরক্ষিত থাক!!' এদিন বিহু গানও গাইলেন অঙ্কিতা কোনওয়ার।


কোয়ারেন্টাইনের সময়েও নিজেদের ফিট রাখতে বাড়িতেই নানারকম কসরত্ করে অনুরাগীদের অনুপ্রাণিত করার চেষ্টা করছেন মিলিন্দ-অঙ্কিতা। দিন কয়েক আগেই ২৬ বছরের ছোট স্ত্রীকে পিঠে চড়িয়ে ডন বৈঠক দিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন মিলিন্দ।

অসমিয়া নববর্ষ বোহাগ বিহু বা রঙ্গালি বিহু নামেই প্রসিদ্ধ। সাত দিন ধরে নানা রকম অনুষ্ঠানে মধ্যে দিয়ে প্রতিবেশি রাজ্যে পালন করা হয় নতুন বছরের আগমন। মূলত সাত রকমের রঙ্গোলি বিহু অনুষ্ঠিত হয় এদিন। সেগুলি হল- ছট বিহু, রাতি বিহু, মানহু বিহু, কুটুম বিহু, মেলা বিহু ও চেরা বিহু।


বন্ধ করুন