বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Mithai: 'বত্তমিজ দিল'-এ নাচ, উচ্ছেবাবুকে নকল করল মিঠাই! মুগ্ধ সিদ্ধার্থের বন্ধুরা, রেগে কাঁই টেস বুড়ি
মিঠাইয়ে মুগ্ধ সিদ্ধার্থের বন্ধুরা
মিঠাইয়ে মুগ্ধ সিদ্ধার্থের বন্ধুরা

Mithai: 'বত্তমিজ দিল'-এ নাচ, উচ্ছেবাবুকে নকল করল মিঠাই! মুগ্ধ সিদ্ধার্থের বন্ধুরা, রেগে কাঁই টেস বুড়ি

  • মিঠাই সব পারে! নাচে-গানে নিউ ইয়ার পার্টির আসর জমিয়ে দিল মিঠাই। বউয়ের অন্য রূপ দেখে অবাক উচ্ছেবাবু!

মিঠাই ম্যাজিকে বুঁদ সিদ্ধার্থের বন্ধুরা। ‘উচ্ছেবাবু’র বন্ধুরা তো হতবাক এমন মিষ্টি বৌদিকে দেখে। কেন বিয়ে নামক প্রতিষ্ঠানে বিশ্বাস না রাখা সিদ্ধার্থ মোদক, মিঠাইকে স্ত্রী হিসাবে মেনে নিয়েছে তা ভালোভাবেই বুঝতে পেরেছে তাঁর বন্ধুরা। নিউ ইয়ার পার্টিতে এক্কেবারে ভোল পালটে হাজির মিঠাই। সিদ্ধার্থ যখন ভয়ে কাঁটা যে না জানি মিঠাই রানি এবার কী কাণ্ড করে বসবে! তখন নিজের স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে সব্বার মন জয়ে করে নিল মিঠাই। তাঁর সারল্য, প্রাণখোলা হাসি আর মনখোলা কথায় ফিদা সকলে। 

শহুরে আদব-কায়দার সঙ্গে একদমই পরিচিত নয় মিঠাই, তাই সিদ্ধার্থের হাই সোসাইটির বন্ধুদের সঙ্গে মানিয়ে নিতে পারবে না মিঠাই, নিউ ইয়ার পার্টিতে ঠাট্টার পাত্রী হবে সে, এমনটাই ভেবেছিল টেস বুড়ি। কিন্তু দাবার চাল উলটে গেল। পার্টি জুড়ে এক কোণে মুখ ফুলিয়ে দাঁড়িয়ে থাকল তোর্সা আর স্যাটি-সহ অনান্যদের সঙ্গে ‘বত্তমিজ দিল’ গান জমিয়ে নাচল মিঠাই। সেইসব দেখে তো রেগে কাঁই তোর্সা, রেগেমেগে পার্টি থেকে বেরিয়েই যায় সে। 

বড় জা-র এই কীর্তির পরেও ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামে মিঠাই। স্বামীর বন্ধুদের মোদক বাড়িতে আমন্ত্রণ জানায় সে। বলে, ‘তোমরা সবাই পরের বার আমাদের বাড়িতে একজোট হও, খুব মজা হবে’। বউয়ের জোরাজুরিতে বন্ধুদের আমন্ত্রণ জানায় সিদ্ধার্থ। একথা শুনেও আশ্চর্য তাঁরা। বলেই বসে, ‘তোর বাড়ি! ফ্যামিলির সঙ্গে তো কোনওদিনই কানেকটেট ছিলি না, এটাও কি মিঠাইয়ের জন্য?’ সিধকে স্যাটি (প্রমিতা) জানায়- ‘তোর জন্য আমার খুব ভালো লাগছে। মিঠাই হয়ত আমাদের মতো ম্যানেজমেন্ট পড়েনি কিন্তু ও হ্যাপি সোল। মিঠাই সবাইকে নিয়ে আনন্দে থাকতে পারে, ও সবাইকে আনন্দ দিতে পারে। ওকে খুব ভালো রাখিস সিধ’। শুধু তাই নয়, এদিনের পার্টিতে সিদ্ধার্থকে নকল করেও সবাইকে চমকে দিয়েছে মিঠাই। 

বন্ধুর কাছে স্ত্রীর প্রশংসা শুনে সিদ্ধার্থের মুখেও চওড়া হাসি। ম্যানেজমেন্ট পাস আউট, উচ্চশিক্ষিত, বড়োলোক বাড়ির এই ছেলেমেয়েরা মিঠাইরানির নন-স্টপ এন্টারটেনমেন্টে এতো উচ্ছ্বসিত হবে তা একদমই কল্পনা করেনি সে। সুতরাং বোঝাই যাচ্ছে ধীরে ধীরে রং বদলাচ্ছে সিদ্ধার্থ মনে। বছরের শেষ এপিসোডে সিদ্ধার্থ-মিঠাইয়ের অব্যক্ত প্রেমের সেই ঝলক উঠে এসেছে। ফ্যানেরা তো রীতিমতো এক্সাইটেড। নতুন বছরে ‘সিদাই’ জুটির প্রেম জমে ক্ষীর হবে, সেই অপেক্ষাতেই তারা। 

 

 

বন্ধ করুন