বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘চোখের বালি’ কাজ,বিয়ের পর স্বামীর প্রথম জন্মদিনে সৃজিতকে কাছে না পেলেন না মিথিলা
জন্মদিনে শ্যুটিংয়ে ব্যস্ত সৃজিত (সৌজন্যে-টুইটার)
জন্মদিনে শ্যুটিংয়ে ব্যস্ত সৃজিত (সৌজন্যে-টুইটার)

‘চোখের বালি’ কাজ,বিয়ের পর স্বামীর প্রথম জন্মদিনে সৃজিতকে কাছে না পেলেন না মিথিলা

  • মিথিলা রয়েছেন কলকাতাতেই,তবুও সৃজিতের জন্মদিনটা একসঙ্গে সেলিব্রেট করা হল না ! 

অতিমারীর প্রকোপ , লকডাউনের নিষেধাজ্ঞা , দুই দেশের সীমান্ত সমস্যা ; প্রতিকূলতা থাকতে পারে একাধিক । তবে ভালোবাসার জোরে যে কোনো বাধাই যে অতিক্রম করা যায় তা প্রমাণ করে দিয়েছেন তারকা দম্পতি সৃজিত- মিথিলা । 

আজ টলিউডের তারকা পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের জন্মদিন। বিয়ের পর পরিচালকের প্রথম জন্মদিন বলে কথা, তাই একটু স্পেশ্যাল তো বটেই। তবে আজকের দিনটা একসঙ্গে কাটাতে পারলেন না সৃজিলা জুটি। সৌজন্যে পরিচালকের কর্মব্যস্ততা। জন্মদিনের দু-দিন আগেই শ্যুটিংয়ের জন্য ভিন রাজ্যে উড়ে গিয়েছেন সৃজিত । তাই মিথিলা কলকাতা থাকলেও ভার্চুয়াল জন্মদিনই পালন করতে হল এই জুটিকে। স্বভাবতই একটু মন খারাপ মিথিলার। 

বিরহী স্ত্রী সোশ্যাল মিডিয়াতেই জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানালেন ভালবাসার মানুষকে । লিখলেন, ‘শুভ জন্মদিন মিস্টার মূখার্জি । অনেক ধন্যবাদ আমাদের জীবনে আসার জন্য । সারাজীবন এরকমই আনন্দে, খুশিতে থেকো ‘নাটকের রাজা ’ । এই প্যানডেমিকের মাথায় অনেক অভিশাপ লাগুক যে আমাদের এই শুভদিনে আলাদা করে রেখেছে । কিন্তু আমাকে কথা দাও, তুমি সাবধানে থাকবে আর খুব তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরে আসবে ।’

জবাবে সৃজিত লেখেন- ‘ (আমার) ভালোবাসা, জীবন আর সবকিছু’।

তবে সৃজিত শহর ছাড়ার আগে মিথিলা কিন্তু কর্তার জন্য নিজে হাতে রান্না করে জন্মদিনের আগাম ভোজ খাইয়ে দিয়েছেন। সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের খাদ্য প্রেমের কথা সর্বজনবিদিন। ভোজনরসিক স্বামীর মন জয় করবার উপায় ভালোভাবেই জানেন মিথিলা। সেই ছবিও সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেছিলেন সৃজিত। মিথিলা সৃজিতের জন্য রেঁধেছিলেন কষা মাংস এবং চিংড়ির মালাইকারি। 

গত বছর ৬ই ডিসেম্বর কাগজে-কলমে বিয়ের পর্ব সারেন সৃজিত ও মিথিলা।২৯ ফেব্রুয়ারি শহরের স্বভূমি হেরিটেজ প্লাজায় বসেছিল এই জুটির রিসেপশনের আসর। এরপর বাংলাদেশ ফিরে যান মিথিলা,অন্যদিকে শ্যুটিংয়ের জন্য দক্ষিণ আফ্রিকা পারি দেন সৃজিত। লকডাউন শুরুর আগে তড়িঘড়ি দেশে ফিরলেও পত্নী আর মেয়ে আইরাকে ছেড়েই সৃজিতকে কাটাতে হয়েছে লকডাউন পর্ব। 

 গত ১৫ অগাস্ট, ভারতের স্বাধীনতা দিবসের দিন বাংলাদেশের সীমান্ত পার করে স্বামীর কাছে ফিরে এসেছেন মিথিলা। নিজেই এই সুখবর সোশ্যাল মিডিয়ায় জানিয়েছিলেন সৃজিত। '১৯৪৭ সালের ১৫ অগাস্ট বহু মানুষ ঘৃণার কারণে সীমান্ত পার করেছিলেন। ২০২০-র ১৫ অগাস্ট দু'জন মানুষ ভালবাসার জন্য সীমান্ত পার করলেন' , লেখেন অটোগ্রাফের পরিচালক। পোস্টের সঙ্গে পেট্রাপোল সীমান্ত পার করে মিথিলা ও মেয়ে আয়রাকে এ'দেশে নিয়ে আসার বেশ কয়েকটি ছবিও পোস্ট করেন তিনি ।

বন্ধ করুন