বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Mithun Chakraborty: গায়ের রঙের জন্য ‘অপমানিত’ হয়েছেন, ‘কতদিন ফুটপাথে শুয়ে ঘুমিয়েছি’, বললেন মিঠুন

Mithun Chakraborty: গায়ের রঙের জন্য ‘অপমানিত’ হয়েছেন, ‘কতদিন ফুটপাথে শুয়ে ঘুমিয়েছি’, বললেন মিঠুন

১৯৭৬ সালে 'মৃগয়া' ছবি দিয়ে বলিউডে ডেবিউ করেন মিঠুন চক্রবর্তী

Mithun Chakraborty: গানের রিয়েলিটি শো সারেগামাপা লিটল চ্যাম্পসের মঞ্চে কঠিন সময়ের কথা স্মরণ করলেন মিঠুন চক্রবর্তী। সেলিব্রেটিং ডিস্কো কিং-এর বিশেষ পর্বে ছিলেন তিনি। 

বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। ১৯৭৬ সালে ‘মৃগয়া’ ছবি দিয়ে অভিনয় জগতে পথচলা শুরু করেন। রাতারাতি সুপারস্টার হয়ে ওঠেন। তাঁর নাচের স্টেপে মুগ্ধ ছিল আশির দশকের সিনেপ্রেমীরা। এরপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে, বলিউডকে একের পর এক হিট ছবি উপহার দিয়েছেন। ভক্তদের কাছে আজ তিনি ‘মহাগুরু’ নামে পরিচিত। 

বিনোদন জগত থেকে রাজনীতির মঞ্চে এখন কাজ করে ‘মিঠুন দাপট’। অথচ একসময় নাকি গায়ের রঙ নিয়ে পদে পদে অপমানিত হয়েছে তাঁকে, বিস্ফোরক অভিযোগ অভিনেতার। গানের রিয়েলিটি শো সারেগামাপা লিটল চ্যাম্পসের মঞ্চে কঠিন সময়ের কথা স্মরণ করলেন মিঠুন। সেলিব্রেটিং ডিস্কো কিং-এর বিশেষ পর্বে পদ্মিনী কোলপুরির পাশাপাশি হাজির ছিলেন তিনিও।

এ দিন মঞ্চে এসে মিঠুন চক্রবর্তী বলেছেন, ‘আমার সঙ্গে যা ঘটেছে আমি চাই আর কারও সঙ্গে যেন এমনটা না ঘটে। সবার জীবনেই স্ট্রাগল রয়েছে। কিন্তু প্রতি মুহূর্তে আমাকে গায়ের রঙের জন্য বছরের পর বছর অপমানিত হতে হয়েছে। এমনও দিন গিয়েছে না খেয়ে শুয়ে পড়েছি। নিজের কথা ভেবে নিজেই কাঁদতাম। ভাবতাম ওবেলা কী খাব। কোথায় ঘুমাবো। কতদিন ফুটপাথে শুয়ে ঘুমিয়ে পড়েছি।’

আরও পড়ুন: সঞ্চালকের আসন ছেড়ে হটসিটে বসলেন অমিতাভ! KBC-এর এই পর্বে সবকিছু হল ওলট-পালট

অভিনেতা যোগ করেছেন, তিনি কখনই চাননা তাঁর বায়োপিক তৈরি হোক। কারণ তিনি যে সমস্ত জিনিসগুলির মধ্যে দিয়ে গিয়েছেন, অন্য অন্য কেউ মানসিকভাবে সেই সমস্ত জিনিসের মধ্যে দিয়ে যাক। 

মিঠুনের কথায়, ‘এটাই একমাত্র কারণ, আমি চাই না আমার বায়োপিক কখনও তৈরি হোক! আমার গল্প কখনই কাউকে অনুপ্রাণিত করবে না, বরং আরও ভেঙে ফেলবে (মানসিকভাবে)। কাউকে তাঁর স্বপ্নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে বাধা দেবে। আমি যদি পাড়ি সেও পারবে। ইন্ডাস্ট্রিতে নিজেকে প্রমাণ করতে অনেক কষ্ট করেছি। হিট সিনেমা দিয়েছি তাই লোকে কিংবদন্তি বলে না, বরং জীবনের যে সমস্ত যন্ত্রণা এবং সংগ্রামকে অতিক্রম করেছি সেই কারণে লোকে কিংবদন্তি বলে।’

জাতীয় পুরস্কার পেয়েছেন মিঠুন চক্রবর্তী। আশি এবং নব্বইয়ের দশকে ডিস্কো ড্যান্সার, ওয়ারদাত, বক্সার এবং অগ্নিপথের মতো বেশ কয়েকটি বাণিজ্যিক সফল ছবি দর্শককে উপহার দিয়েছেন। তাঁকে শেষবার বলিউড ছবি ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ দেখা গিয়েছিল। আগামী মাসেই দেবের সঙ্গে মুক্তি পাবে তাঁর টলিউড ছবি ‘প্রজাপতি’।

সারেগামাপা লিটল চ্যাম্পস জি টিভিতে সপ্তাহান্তে রাত ৯টায় সম্প্রচার হয়। শোয়ে বিচারকের আসনে রয়েছেন সঙ্গীতশিল্পী শঙ্কর মহাদেবন, অনু মালিক এবং নীতি মোহন।

বন্ধ করুন