বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মুখে, হাতে ভর্তি আঘাতের চিহ্ন! হবু মা দিয়ার ছবি দেখে উদ্বিগ্ন অনুরাগীরা
দিয়া মির্জা (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
দিয়া মির্জা (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

মুখে, হাতে ভর্তি আঘাতের চিহ্ন! হবু মা দিয়ার ছবি দেখে উদ্বিগ্ন অনুরাগীরা

  • ধ্যানের গুরুত্ব নিয়ে কথা বলতে ফ্যানেদের চিন্তায় ফেলে দিলেন দিয়া মির্জা! জানুন গোটা ঘটনা-

দিয়া মির্জাকে নিয়ে বেজায় চিন্তায় পড়েছেন তাঁর ফ্যানেরা। আর তাঁদের সেই চিন্তার পিছনে রয়েছে দিয়ার সাম্প্রতিক ইনস্টাগ্রাম পোস্ট, যেখানে অভিনেত্রীর মুখে,হাতে আঘাতের চিহ্ন দেখা গিয়েছে। সেই অবস্থাতেই ধ্যান করছেন দিয়া। বিশ্ব ধ্যান দিবস উপলক্ষ্যে এই ছবি শেয়ার করেন। ছবির ক্যাপশনের নীচে দিয়া স্পষ্টভাবেই লিখে দিয়েছিলেন ছবিটি কাফির ওয়েব সিরিজের শ্যুটিং সেটে তোলা। যা মুক্তি পেয়েছে ২০১৯ সালে। কিন্তু দিয়ার সেই লেখাটি অনেকেরই চোখে পড়েনি। 

ছবিতে পাহাড়ি খরস্রোতা নদীর পাশে চেয়ার বসে রয়েছেন দিয়া। প্রেক্ষাপটে সবুজে ঘেরা পাহাড়, বিস্তৃর্ণ অংশে ছড়িয়ে আছে সাদা বরফের চাদর। সেই ঠান্ডা পরিবেশেই কালো শাল জড়িয়ে ধ্যানে মগ্ন দিয়া, কানে হেডফোন। ছবির ক্যাপশনে অভিনেত্রী লেখেন- ‘ধ্যান হল একটা সুপার পাওয়ার, আমার মনে হয় প্রত্যেক মানুষের সেটা আবিষ্কার করা উচিত। এটা জীবন বদলে দেয়। আমি কাজে থাকি কিংবা বাড়িতে থাকি, ধ্যান আমার দৈনন্দিন জীবনের অবিচ্ছেদ্য অংশ। বিঃ দ্রঃ- এই ছবিতে কাফির ছবি শ্যুটিংয়ের ফাঁকে তোলা হয়েছে, এগুলো প্রকৃত চোট নয়’।

অনেকেই দিয়ার পোস্টের শেষ লাইনটি লক্ষ্য না করে, অভিনেত্রীর চোট নিয়ে প্রশ্ন করতে শুরু করেন। একজন লেখেন- ‘ সে তো বুঝলাম, কিন্তু তোমার মুখে কী হল?’, অন্য একজন লেখেন- ‘চোট কী করে লাগল?’ অনেকেই দিয়া ও তাঁর হবু সন্তানকে নিয়ে নিজেদের চিন্তার কথা জানান। 

অনেকে আবার লেখেন, তাঁরা শুরুতে এই ছবি দেখে ঘাবড়ে গিয়েছিলেন তবে শেষের লাইনটি পড়ে তাঁদের শান্তি ফিরে এসেছে। 

উল্লেখ্য, ফেব্রুয়ারি মাসেই বৈভব রেখির সঙ্গে সাত পাঁকে বাঁধা পড়েন দিয়া মির্জা। দুজনেরই এটি দ্বিতীয় বিয়ে। ২০১৯ সালে সাহিল সঙ্ঘার সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ হয় দিয়া। বৈভবের সঙ্গে বিয়ের ৪৫ দিনের মাথায় নিজের অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আনেন দিয়া। পরবর্তী সময়ে তিনি এও জানিয়েছেন, বিয়ের আগে থেকেই গর্ভবর্তী ছিলেন তিনি। 

বন্ধ করুন