বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘ইচ্ছে করে তৃণমূলের নাম খারাপ করার চেষ্টা’, কেশপুরের লিফলেট-কাণ্ডে মত দেবের
দেব। (ফাইল চিত্র)
দেব। (ফাইল চিত্র)

‘ইচ্ছে করে তৃণমূলের নাম খারাপ করার চেষ্টা’, কেশপুরের লিফলেট-কাণ্ডে মত দেবের

  • শুক্রবার সোশ্যাল মিডিয়ায় দেব স্পষ্ট জানালেন তাঁর দলের কেউ এর সঙ্গে জড়িত নয়। তিনি এই ব্যাপারে নিজে খোঁজ নিয়েছেন। 

কেশপুরের লিফলেট-কাণ্ডে তাঁর দল তৃণমূল কংগ্রেস কোনও ভাবেই জড়িত নয় বলে সোশ্যাল মিডিয়ায় দাবি করলেন ঘাটালের সাংসদ তথা অভিনেতা দেব। বৃহস্পতিবার পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশপুর ব্লকের মহিষদা গ্রামে কয়েকটি লিফলেট বিলি করা হয়। যা ভাইরাল হয় সোশ্যাল মিডিয়াতেও। যেখানে ১৮ জন বিজেপি কর্মীকে বয়কট করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। লিফলেটে লেখা ছিল, ‘পার্টির অনুমতি ছাড়া এই সমস্ত ব্যক্তিদের কোনও জিনিসপত্র বিক্রি করা যাবে না’। এমনকী, চা দেওয়া যাবে না বলেও নির্দেশ দেওয়া হয়। 

শুক্রবার রাতে এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সরব হন অভিনেতা দেব। লেখেন, ‘ব্যক্তিগত ভাবে কেশপুরের আমার দলের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছি। এবং তাঁরাও আমাকে খোঁজ নিয়ে নিশ্চিত করেছে যে টিএমসি পার্টি অফিস/সদস্যদের দ্বারা এমন নোটিস দেওয়া হয়নি।’ দেব আরও লেখেন, ‘আমি যে পার্টিরই সদস্য হই না কেন, একজন মানুষ হিসেবে কখনও এই ধরনের কাজ শপথ করব না। সাংসদ হিসেবে যখন আমি শপথ নিয়েছিলাম, তখন শুধু আমাকে যারা ভোট দিয়েছে তাঁদের নয়, সকলের পাশে থাকার দায়িত্ব নিয়েছিলাম।’

এমনিতেই করোনার জন্য সকলেই খুব কঠিন লড়াই করছেন বলে মত দেবের। তার মধ্যে এই ধরনের গুজব বা উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে তৃণমূল কংগ্রেসের নাম বদনাম না করার কথাই জানালেন তিনি। কেশপুর বিধায়ক তথা মন্ত্রী শিউলি সাহা একে বিজেপি-র চক্রান্ত আখ্যা দিয়েছেন।

যদিও দেবের এই দাবি মানতে নারাজ বিজেপি-র ঘাটাল সাংগঠনিক জেলা নেতা তন্ময় ঘোষ। তিনি বলেন, ‘ভোটের পর থেকেই কেশপুর এলাকায় সন্ত্রাস সৃষ্টি করার চেষ্টা চালাচ্ছে তৃণমূল। নির্বাচনে হার-জিত তো থাকবেই। তার মানে এই নয় যে বিরোধীদের বয়কট করতে হবে।’ তৃণমূলের কড়া নিন্দা করেছেন বিজেপি রাজ্য সম্পাদক তুষার মুখোপাধ্যায়। জানিয়েছেন, এই কাজের সঙ্গে যাঁরা শুক্ত, তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।

বন্ধ করুন