বাড়ি > বায়োস্কোপ > সুশান্তের লেখা ৫টি ডায়রি খতিয়ে দেখছে পুলিশ,বন্ধু মুকেশ ছাবড়ার বয়ান রেকর্ড
সুশান্ত সিং রাজপুতের অ্যাপার্টমেন্ট থেকে অভিনেতার লেখা পাঁচটি ডায়রি উদ্ধার করেছে পুলিশ (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
সুশান্ত সিং রাজপুতের অ্যাপার্টমেন্ট থেকে অভিনেতার লেখা পাঁচটি ডায়রি উদ্ধার করেছে পুলিশ (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

সুশান্তের লেখা ৫টি ডায়রি খতিয়ে দেখছে পুলিশ,বন্ধু মুকেশ ছাবড়ার বয়ান রেকর্ড

  • বুধবার সুশান্ত সিং রাজপুতের আত্মহত্যার মামলায় মুকেশ ছাবড়াকে তলব করেছিল বান্দ্রা পুলিশ। রেকর্ড করা হয়েছে বয়ান।

বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর ৭২ ঘন্টারও বেশি সময় পেরিয়ে গিয়েছে। পুলিশের প্রাথমিক তদন্তের রিপোর্ট বলছে আত্মহত্যাই করেছেন অভিনেতা,ময়না তদন্তের প্রাথমিক রিপোর্টে সেটাই উল্লেখ রয়েছে। কিন্তু কোনও সুইসাইড নোট উদ্ধার হয়নি তাঁর বাড়ি থেকে। পুলিশ জানিয়েছে মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন অভিনেতা। তবে পেশাগত বিদ্বেষই তাঁর মানসিক অবসাদের কারণ কিনা সেই দিকটা খতিয়ে দেখছে মুম্বই পুলিশ। 

টাইমস নাও সূত্রে খবর,পুলিশ সুশান্তের বান্দ্রার কাটার রোডের অ্যাপার্টমেন্ট থেকে পাঁচটি ব্যক্তিগত ডায়রি উদ্ধার করেছেন। সেই ডায়রির প্রতিটি লেখা খতিয়ে দেখছে মুম্বই পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ,যাতে সুশান্তের জীবনে কী ঘটছিল সেই সম্পর্কে একটা মূর্ত ধারণা পাওয়া যায়। এছাড়াও অভিনেতার মোবাইল,ল্যাপটপও হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। 

 এদিন কাস্টিক ডিরেক্টর তথা সুশান্তের শেষ ছবির পরিচালক এবং বন্ধু মুকেশ ছাবড়ার বয়ান রেকর্ড করেছে মুম্বই পুলিশ, জানিয়েছে সংবাদ সংস্থা এএনআই।সূত্রের খবর পুলিশকে দেওয়া দেওয়া বয়ানে ছাবড়া জানান, সুশান্ত ভীষণ ইন্ট্রোভার্ট মানুষ,মনের কথা খুব বেশি মন খুলে বলত না। ছাবড়া জানান সুশান্তের পেশাগত বিদ্বেষ সম্পর্কে তিনি বিশেষ কিছু জানেন না,কোন বড় প্রযোজক সংস্থার সঙ্গে সুশান্তের সমস্যা সম্পর্কে তাঁর কাছে কোনও তথ্য নেই।

তিনি আরও জানান, খুব বুদ্ধিদীপ্ত অভিনেতা সুশান্ত,ফোনে কথা বলতে খুব বেশি পছন্দ করত না।বেশিরভাগ সময়ই ফোন করলে কেটে দিত,কিন্তু প্লেস্টেশনে গেম খেলার নেশা ছিল, বই পড়তে বেজায় ভালোবাসত, বিশেষত কোয়ান্টাম অফ ফিজিক্স ওর পছন্দের বিষয়'। শেষবার ২৭ মে, নিজের জন্মদিনের দিন সুশান্তের সঙ্গে শেষবার কথা হয়েছে মুকেশ ছাবড়ার এবং সুশান্তের কথাবার্তায় কোনওরকম অস্বাভিকতা অনুভব করেননি তিনি।

সুশান্তের আত্মহত্যার ঘটনায় ইতিমধ্যে অভিনেতার বাবা কেকে সিং এবং তাঁর দুই দিদি, দুই ম্যানেজার,বাড়ির বাঁধুনি,পরিচারক সহ মোট ৯ জনের বয়ান আগেই রেকর্ড করেছিল পুলিশ। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস সূত্রে খবর,সুশান্তের বাবা পুলিশকে জানিয়েছেন তাঁর ছেলে অবসাদগ্রস্ত ছিল না জানতেন না তিনি। হ্যাঁ,মাঝেসাঝে মন খারাপের কথা বলত,ব্যাস ওইটুকুই। সুশান্তের মৃত্যুর জন্য কারুর দিকে সন্দেহের আঙুল তোলেনি প্রয়াত অভিনেতার পরিবার,জানিয়েছেন মুম্বই পুলিশের এক সিনিয়ার অফিসার।

সুশান্তের মৃত্যুর পর সোশ্যাল মিডিয়ায় মুকেশ ছাবড়া জানান, এটা তাঁর ব্যক্তিগত ক্ষতি,কারণ সুশান্তকে ছোটভাইয়ের চোখে দেখতেন তিনি। ওর ট্যালেন্ট এবং বুদ্ধিদীপ্ত মনোভাব শব্দে প্রকাশ করা সম্ভব নয়,জানিয়েছিলেন তিনি।

মুকেশ ছাবড়ার পরিচালিত দিল বেচারাই হতে চলেছে সুশান্তের শেষ ছবি। হলিউড ছবি ফল্ট ইন আওয়ার স্টারের অফিসিয়্যাল রিমেক এই ছবি। দিল বেচারায় সুশান্তের নায়িকা হিসাবে থাকছেন সঞ্জনা সাংভি। ৮ মে মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল এই ছবির তবে করোনা সংকটে আপতত মুক্তি স্থগিত রয়েছে। 

বন্ধ করুন