বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > আমার গর্ব, আমার অল্টার ইগো… জন্মবার্ষিকীতে সুশান্তকে স্মরণ দিদি প্রিয়াঙ্কার
দিদি প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে সুশান্ত
দিদি প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে সুশান্ত

আমার গর্ব, আমার অল্টার ইগো… জন্মবার্ষিকীতে সুশান্তকে স্মরণ দিদি প্রিয়াঙ্কার

  • ‘এত শক্তিশালী হয়ে ফিরে এসেছিস যে প্রতিটা নিঃশ্বাসে তোকে অনুভব করি। তোর ওই উজ্জ্বল দুটো চোখ, ওই মায়া জড়ানো হাসি- এই দুটো আমার নিত্যসঙ্গী..’ ভাইয়ের স্মৃতিচারণায় প্রিয়াঙ্কা সিং। 

গত সাত মাসে গোটা দেশ বারবার বলেছে, ‘সুশান্ত..এমনটা তো হওয়ার কথা ছিল না’। কখনও মানব কখনও ম্যানি হয়ে আপামর ভারতবসীর মনে রাজ করেছেন সুশান্ত সিং রাজপুত। তবে পরিবারের কাছে তিনি শুধুই ‘গুলশন’। চার দিদির আদরের একমাত্র ভাই, গোটা পরিবারের নয়নের মণি। সুশান্তের সবচেয়ে ছোট দিদি শ্বেতা, বয়সের মাত্র এক বছরের পার্থক্য রয়েছে তাঁদের.. দিদি কম বন্ধুত্বের সম্পর্কটাই সেখানে বেশি প্রকট। অন্যদিকে সুশান্তের সবচেয়ে কাছের, সবচেয়ে প্রিয় ছিল তাঁর সোনু দিদি অর্থাত্ প্রিয়াঙ্কা সিং। নিজের মুখে সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাত্কারে সে কথা বহুবার বলেছেন সুশান্ত। 

সুশান্তের মৃত্যুর পর আজ প্রথম জন্মবার্ষিকী, আর এই দিনে ভাইকে নিয়ে আবেগঘন দিদি প্রিয়াঙ্কা। ইনস্টাগ্রামে সুশান্তের সঙ্গে ছেলেবেলার বহুস্মৃতির টুকরো টুকরো কোলাজ মেলে ধরেছেন তিনি। দীর্ঘ ইনস্টা পোস্টে তুলে ধরেছেন ভাই-বোনের অদ্ভূত বন্ডিংয়ের কথা। লিখেছেন, ‘আমার ভাই, আমার গর্ব, আমার অল্টার ইগো..

প্রিয়াঙ্কা সিংয়ের ইনস্টাগ্রাম পোস্ট
প্রিয়াঙ্কা সিংয়ের ইনস্টাগ্রাম পোস্ট

তুই যেদিন জন্মেছিলিস, আমরা শুধু সহোদর ছিলাম না বরং বন্ধুত্বের একটা অদ্ভূত সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল, সব সুখ-দুঃখের সঙ্গী, যমজ বলা যায়…জীবনের সব খোঁজে আমরা সঙ্গী ছিলাম, জীবনের বৃহত্তর অর্থ খোঁজের যাত্রাতেও, ঠিক যেন পারফেক্ট কোয়ান্টাম জট।

অতীতে তুই যখনই ছেড়ে গিয়েছিস, আবার আমার কাছে ফিরে এসেছিস। এইবার যখন চলে গেলি, এত শক্তিশালী হয়ে ফিরে এসেছিস যে প্রতিটা নিঃশ্বাসে তোকে অনুভব করি। তোর ওই উজ্জ্বল দুটো চোখ, ওই মায়া জড়ানো হাসি- এই দুটো আমার নিত্যসঙ্গী, এতটাই জোরদার এই অনুভূতিটা যে আমার প্রতিটা ভাবনার ভিতর তোর অস্তিত্ব রয়েছে। 

কিন্তু কোনও কারণে আমি তোর কথা গুলি আর শুনতে পাই না, আমি প্রার্থনা করি, অনুনয় জানাই.. দয়া করে প্রতিক্রিয়া জানা, কিছু তো বল, আমার উপর চিত্কারই নয় কর.. তোর এই নীরবতা আমি আর বইতে পারছি না। রক্তমাংসের তোর শরীরটা আর দেখতে পাব না, এই সবচেয়ে কঠিনতম ভয়! একবার শুধু বলেদে কোথায় দেখা করবি, যেমনটা প্রতিবার বলতিস, তোকে কতকিছু বলবার আছে। আমি জানি এগুলো খুব বোকা বোকা শোনাচ্ছে…

আমার সোনা, এই বোকামিটাই আমার অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখবার একমাত্র আশা.. বেপরোয়াভাবেই জানালাম।

ইতি- তোর সোনাদি। 

ট্রেড অ্যানালিস্ট কোমল নাহাতাকে দেওয়া এক সাক্ষাত্কারে সুশান্ত জানিয়েছিলেন, 'আমি পরিবারের সকলেরই খুব ঘনিষ্ঠ, তবে আমার দিদি প্রিয়াঙ্কা আমার সবচেয়ে কাছের কারণ ও আমাকে ধরে ফেলে (সবকিছু বুঝে যায়)। আমাদের চিন্তা-ভাবনা একদম এক’। অপর ক্লিপিংসে সুশান্তকে বলতে শোনা গেল, আমার সবচেয়ে পবিত্র রিসতা হচ্ছে প্রিয়াঙ্কাদির সঙ্গে।

সুশান্তের যে দুই দিদির বিরুদ্ধে রিয়া সুশান্তকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার পালটা অভিযোগ জানিয়েছেন তাঁর মধ্যে অন্যতম প্রিয়াঙ্কা। ইতিমধ্যে বম্বে হাইকোর্টে রিয়ার এফআইআর খারিজ করে দেওয়ার মামলার শুনানি সম্পন্ন হয়েছে। অপেক্ষা আদালতের রায়ের। 

বন্ধ করুন