বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'আমার রাজ্য জ্বলছে,কাঁদছে, গান গাইতে পারব না', দিল্লি কনসার্ট বাতিল করলেন পাপন
শুক্রবার দিল্লিতে অনুষ্ঠার করার কথা ছিল পাপনের। (সৌজন্যে টুইটার)
শুক্রবার দিল্লিতে অনুষ্ঠার করার কথা ছিল পাপনের। (সৌজন্যে টুইটার)

'আমার রাজ্য জ্বলছে,কাঁদছে, গান গাইতে পারব না', দিল্লি কনসার্ট বাতিল করলেন পাপন

  • নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরোধিতায় গত কয়েকদিন ধরেই উত্তপ্ত অসম ইতিমধ্যেই মৃত্যু হয়েছে দুজনের। এই রকম অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতিতে মানুষের কাছে সুস্থ বিনোদন পৌঁছে দেওয়া সম্ভব নয়, মনে করেন পাপন।
  • শুক্রবার দিল্লিতে অনুষ্ঠান করার কথা ছিল এই অসমীয় শিল্পীর। তবে নিজেই কনসার্ট বাতিল করে দিলেন পাপন।

তাঁর রাজ্য জ্বলছে, কাঁদছে। তাই খোশমেজাজে মানুষের কাছে বিনোদন পৌঁছে দেওয়া তাঁর পক্ষে সম্ভব নয়। জানিয়ে দিলেন অসমের ভূমিপুত্র পাপন। দিল্লিতে নিজের কনসার্ট বাতিল করে দিলেন সঙ্গীতশিল্পী।

নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের বিরোধিতায় গত কয়েকদিন ধরেই উত্তপ্ত অসম, মৃত্যু হয়েছে দুজনের। বৃহস্পতিবার বিলে অনুমোদনও দিয়ে দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। পরিস্থিতি আরও জটিল। পরিস্থিতি এতটাই স্পর্শকাতর যে সেনা নামাতে বাধ্য হয়েছে কেন্দ্র। বিছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে ইন্টারনেট পরিষেবা। এই রকম পরিস্থিতিতে অন্যত্র থাকলেও একজন অসমীয়া শিল্পীর পক্ষে কি গান গাওয়া সম্ভব? তাই এই সিদ্ধান্ত।

শুক্রবার দিল্লির ইমপারফেক্টোশোরে কনসার্ট ছিল পাপনের। বৃহস্পতিবার টুইট করে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানান পাপান। এদিন একাধিক টুইট করে অসমের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে ক্ষোভ, হতাশা,চিন্তা উগড়ে দেন জাতীয় পুরস্কার জয়ী এই শিল্পী।

ট্যুইটে তিনি লিখছেন, 'প্রিয় দিল্লি, আমি খুব দুঃখিত যে, আগামীকাল ইমপারফেক্টোশোরের কনসার্টটি আমি বাতিল করছি। আমার রাজ্য অসম কাঁদছে, জ্বলছে, চারদিকে কারফিউ লাগু হয়েছে। এই অবস্থায় আমি মানুষকে বিনোদন করার মতো মানসিক পরিস্থিতিতে নেই।'



টুইট করে দিল্লিবাসীর কাছে ক্ষমাও চান এই সঙ্গীত তারকা। লেখেন, 'আমি জানি ব্যাপারটা খুবই বেমানান। কারণ ইতিমধ্যেই অনেকে টিকিট কেটে ফেলেছেন। আশা করি শো'য়ের আয়োজকরা সেই দিকটায় খেয়াল রাখবেন। তবে আপনাদের আমি আশ্বাস দিচ্ছি অন্য কোনও একদিন ওখানেই অনুষ্ঠান করব। আপনারা আমার অসুবিধাটা বোধহয় বুঝতে পারছেন'।


এখানেই থেমে থাকেন নি পাপন, তিনি আরও বলেন,‘অসমকে এভাবে জ্বলতে দেখে কষ্ট হচ্ছে, মানবিকতার উপর আঘাত এসেছে। গত কয়েক দশকে অবৈধ অনুপ্রবেশকারীদের জন্য অসমবাসীকে অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়েছে। আমরা এটা ’।


নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছেন জুবিন গর্গ সহ অসামের বহু শিল্পী, অভিনেতা-অভিনেত্রী। প্রতিবাদে দলও ছেড়েছেন অভিনেতা যতীন বোরা। অসম বিজেপির ফিল্ম ফিনান্স ডেভেলপমেন্টে কর্পোরেশনের চেয়ারপার্সন ছিলেন যতীন।

বন্ধ করুন