বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ১১ মাসের অপেক্ষা শেষে হাসপাতালেই নারায়ণ দেবনাথের হাতে তুলে দেওয়া হল পদ্মশ্রী!
নারায়ণ দেবনাথের হাতে তুলে দেওয়া হল পদ্মশ্রী।
নারায়ণ দেবনাথের হাতে তুলে দেওয়া হল পদ্মশ্রী।

১১ মাসের অপেক্ষা শেষে হাসপাতালেই নারায়ণ দেবনাথের হাতে তুলে দেওয়া হল পদ্মশ্রী!

  • ২০২১ সালে পদ্মশ্রী-র ঘোষণা হলেও দীর্ঘদিন সেই সম্মান হাতে পাননি নারায়ণ দেবনাথ। অবশেষে মিটল অপেক্ষা!

সমস্ত অপেক্ষার অবসান ঘটল! পদ্মশ্রী সম্মান তুলে দেওয়া হল প্রখ্যাত কার্টুনিস্ট নারায়ণ দেবনাথের হাতে। যদিও বাড়িতে নয়, হাসপাতালেই এই সম্মান নিতে হল বর্ষীয়ান শিল্পীকে। কারণ, গত কয়েকদিন ধরে মিন্টো পার্কের এক বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা চলছে তাঁর। সেই সময় রাজ্যের তরফে হাজির ছিলেন মন্ত্রী-বিধায়ক অরূপ বিশ্বাস। 

২০২১ সালে পদ্মসম্মান প্রাপক রাজ্যের সাতজনের মধ্যে ছিলেন নারায়ণ দেবনাথ। যিনি পদ্মশ্রীর জন্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। তবে ৯৮ বছর বয়সী এই শিল্পী বার্ধক্যজনিত সমস্যার কারণে যেতে পারেননি দিল্লি। সেই সময় কেন্দ্রের তরফে বলা হয়েছিল নারায়ণবাবুর পরিবারের তরফে অন্তত দু'জন সদস্যকে আস্তে হবে দিল্লিতে এই খেতাব গ্রহণের জন্য। ঠিক হয়েছিল শিল্পী-পুত্র তাপস দেবনাথের ছোট মেয়ে অ্যালিসিয়া ও নারায়ণবাবুর মেয়ের ছেলে স্বর্ণাভর যাওয়ার কথা হয়েছিল পুরস্কার আনতে। এরপর ফের কেন্দ্রের পক্ষ থেকে জানানো হয়, দিল্লি যাওয়ার দরকার নেই। বাড়িতেই পৌঁছে দেওয়া হবে সম্মানপত্র!

তবে মাসের পর মাস কেটে গেলেও সেই সম্মান হাতে পাননি নারায়ণ দেবনাথ। এই নিয়ে গভীর চিন্তায় পড়েছিল শিল্পীর পরিবার। নারায়ণ-পুতির তাপস মাসখানেক আগে জানিয়েছিলেন , ‘কার সঙ্গে এই ব্যাপারে যোগাযোগ করব জানি না। গোটা বিষয়টাই অন্ধকারে রয়েছি। আমাদের পরিবারের একান্ত আর্জি বাবার জীবিতকালে তাঁর হাতে এই সম্মান পৌঁছে দিক কেন্দ্র।’

অবশেষে সেই স্বপ্ন পূরণ হল। যদিও বাড়িতে নয়, নারায়ণ দেবনাথের হাতে পুরস্কার উঠল বেসরকারি হাসপাতালের বেডে শুয়েই। ২৪ ডিসেম্বর তাঁকে ভর্তি করা হয় শহরের এক বেসরকারি হাসপাতালে। রাজ্য সরকারের তরফেই সমস্ত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। বিশেষেভাবে চিকিৎসকদের একটা টিমও তৈরি করা হয়েছে। 

জানা গিয়েছে, নারায়ণবাবুর শরীরে সোডিয়াম ও পটাসিয়ামের ভারসাম্যের অভাব দেখা দিয়েছে। ফলে তাঁকে রক্ত দিতে হচ্ছে। শ্বাস নিতেও সমস্যা হচ্ছে শিল্পীর। রাখা হয়েছে বাইপ্যাপে। চিকিৎসকরা বেশ উৎকণ্ঠ হয়ে পড়েছেন নারায়ণবাবুর স্বাস্থ্য নিয়ে।

বন্ধ করুন