বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন সৌম্যা, দীর্ঘদিন জেনেবুঝে অভুক্ত ছিলেন 'নভ্যা'!
সৌম্যা শেঠ (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
সৌম্যা শেঠ (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায় আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিলেন সৌম্যা, দীর্ঘদিন জেনেবুঝে অভুক্ত ছিলেন 'নভ্যা'!

  • বিয়ের এক বছরের মধ্যেই স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ, আপতত সন্তানের জয়েন্ট কাস্টডি রয়েছে সৌম্যার কাছে। এখন মার্কিন মুলুকের ভার্জিনিয়াতে থাকেন অভিনেত্রী। 

সৌম্যা শেঠকে মনে আছে? প্রায় বছর দশেক আগে ‘নভ্যা’র চরিত্রে দর্শক মনে পাকা জায়গা করে নিয়েছিলেন অভিনেত্রী। স্টার প্লাসের হিট শো ‘নভ্যা…নয়া ধড়কন,নয়া সওয়াল’-এর সুবাদে গোটা দেশে পরিচিত নাম হয়ে উঠেন সৌম্যা। তবে বছর পাঁচেক ধরেই শোবিজের দুনিয়া থেকে গায়েব অভিনেত্রী। ২০১৭ সালে বিয়ের পর কেরিয়ারে ইতি টেনে সংসার পেতেছিলেন অভিনেত্রী, তবে দাম্পত্য কহলের জেরে চরম হতাশা ঘিরে ধর সৌম্যাকে। এমনকি আত্মহননের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন নায়িকা। অন্তঃসত্ত্বা থাকাকালীন বহুবার জীবন শেষ করে দেওয়ার কথা ভেবেছেন সৌম্যা, কীভাবে সেই অবসাদ কাটিয়ে নতুন জীবন শুরু করেছেন পর্দার চুলবুলি নভ্যা, সেই নিয়ে প্রথমবার মুখ খুললেন। 

এক সর্বভারতীয় সংবাদপত্রকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে সৌম্যা বলেন, ‘২০১৭ সালে আমি বিয়ে করি, মাসখানেকের মধ্যেই গর্ভবতী হয়ে পড়ি। এরপর আমি আত্মহত্যা করবার রাস্তা খুঁজতে শুরু করি। এই ভাবনা আমার পিছু ধাওয়া করেছে, যতক্ষণ না পর্যন্ত আমার বাবা-মা ভার্জিনিয়া (মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র) গিয়ে পৌঁছেছিলেন। ওঁনারা গিয়ে আমার উদ্ধার করেন, এবং প্রায় মৃত্যুমুখ থেকে ফেরান। আমার আজও মনে পড়ে সেই মুহূর্তের কথা, যখন আমি আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে নিজেকে চিনতে পারছিলাম না। আমার সারা দেহ ক্ষতবিক্ষত ছিল, আমি দিনের পর দিন না-খেয়ে ছিলাম, যদিও আমি প্রেগন্যান্ট ছিলাম। প্রথমে আয়নার সামনে দাঁড়ানোর সাহস হয়নি, যখন দাঁড়ালাম মনে হল এই জীবন শেষ করে ফেলি’।

এই পরিস্থিতি থেকে সৌম্যাকে আসলে রক্ষা করেছিল তাঁর গর্ভজাত সন্তান। অভিনেত্রী বলেন, ‘আমার পরমূহূর্তেই মনে হয়েছিল, আমি অন্তঃসত্ত্বা। আমি মারা গেলে আমার সন্তান জানবে না আমি তাকে কতটা ভালোবাসি। মা’কে ছাড়াই ওকে আজীবন কাটাতে হবে। আমি নিজে মরে গেলেও আমার সন্তানকে সামান্য কষ্ট দেওয়ার কথাও ভাবতে পারব না। তাই বলতে পারেন আমার ছেলে আইডেন (Ayden) আমায় বাঁচিয়ে রেখেছে'। 

২০১৭ সালে মার্কিন মুলুকের বাসিন্দা অরুণ কুমারকে বিয়ে করেন সৌম্যা। তবে একবছরের মধ্যেই আলাদা হয়ে যান তাঁরা, পরবর্তীতে ২০১৯ সালের জুন মাসে আনুষ্ঠানিকভাবে ডিভোর্স হয় তাঁদের। 

সৌম্যা ও তাঁর প্রাক্তন স্বামী অরুণ কুমারের কাছে ছেলের যৌথ কাস্টডি রয়েছে। এক সপ্তাহ অন্তর ছেলে মায়ের কাছে থাকে। ছেলের সঙ্গে খনসুটি আর দুষ্টুমি করেই আপতত সময় কাটছে সৌম্যার। কোভিডের জন্য আপতত খুব বেশি ছেলেকে নিয়ে বাইরে বের হন না সৌম্যা। ঘরে বসেই ছবি আঁকা, গান গাওয়া- এইসব করেন। হয়ত খুব বেশি হলে বাড়ির সামনে সাইকেলে চেপে চক্কর লাগানো। 

শেষবার কালার্স টিভির শো চক্রবর্তীন অশোক সম্রাট (২০১৬)-এ দেখা গিয়েছে সৌম্যকে। অভিনয় তাঁর প্রথম ভালোবাসা, তবে কামব্যাকের ব্যাপারে কোনও পরিকল্পনা নেই তাঁর। আপতত মার্কিন মুলুকের ভার্জিনিয়াই সৌম্যার স্থায়ী বাসস্থান। সেখানে লাইসেন্স রিটেলার হিসাবে কাজ করছেন তিনি। 

বন্ধ করুন