বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Aryan Khan case: আরিয়ান মামলায় তোলাবাজির অভিযোগ, সমীর ওয়াংখেড়ের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ NCB-র
অস্বস্তি বাড়ল সমীর ওয়াংখেড়ে
অস্বস্তি বাড়ল সমীর ওয়াংখেড়ে

Aryan Khan case: আরিয়ান মামলায় তোলাবাজির অভিযোগ, সমীর ওয়াংখেড়ের বিরুদ্ধে তদন্তের নির্দেশ NCB-র

  • সবরকম তদন্তের জন্য তৈরি এনসিবির জোনাল ডিরেক্টর, জানিয়েছেন তিনি। 

আরিয়ান মামলার অন্যতম সাক্ষী প্রভাকর সেইল নিজের বয়ান থেকে পালটি খাওয়ার চব্বিশ ঘন্টার মধ্যেই অস্বস্তি বাড়ল এনসিবি কর্তা সমীর ওয়াংখেড়ের। এনসিবির জোনাল ডিরেক্টরের বিরুদ্ধে তোলাবাজির এনেছেন প্রভাকর সেইল নামের ওই সাক্ষী। শুধু তাই নয়, খালি প়ঞ্চনামায় সই করিয়ে নেওয়ার অভিযোগও ওয়াংখেড়ের বিরুদ্ধে এনেছেন প্রভাকর সেইল। এবার সমীর ওয়াংখেড়ের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিল এনসিবি।

এনসিবি জানিয়েছে তিন সদস্যের একটি দল সমীর ওয়াংখেড়ের বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগের তদন্তে থাকবেন, যার নেতৃত্ব দেবেন এজেন্সির মুখ্য ভিজিল্যান্স অফিসার। সোমবার সন্ধ্যাতেই দিল্লি থেকে সেই দল মুম্বই পৌঁছাবে। 

গতকালই আদালতে জমা দেওয়া হলফনামায় আরিয়ান মামলায় বয়ান থেকে সরে দাঁড়ানো সাক্ষী, প্রভাকর সেইল জানিয়েছিলেন, ২রা অক্টোবর এনসিবির দফতরে তিনি তাঁর মালিক কেপি গোসাভির সঙ্গে একজনের কথোপকথন শুনেছিল। সেখানে আরিয়ানকে এই মাদককাণ্ড থেকে অব্যাহতি দেওয়ার বিনিময়ে ২৫ কোটি টাকা দাবি করবার কথা চলছিল এবং সবশেষে এই মামলা ১৮ কোটিতে চূড়ান্ত করবার কথাও শুনেছিল সে। যার মধ্যে ৮ কোটি টাকা সমীর ওয়াংখেড়েকে দেওয়ার কথা শুনেছিল সেইল। যদিও কার থেকে সেই টাকা চাওয়া হবে তা স্পষ্ট করেনি প্রভাকর সেইল। গোসাভির ব্যক্তিগত দেহরক্ষী প্রভাকর সেইল।

নিজের হলফনামায় সেইল দাবি করেছে, শাহরুখ খানের ম্যানেজার পূজা দাদলানির সঙ্গে কেপি গোসাভিকে একটি গাড়ির ভিতরে কথা বলতে দেখেছিল সে। পরবর্তীতে গোসাভি একটা নির্দিষ্ট লোকেশন থেকে ৫০ লক্ষ টাকা সংগ্রহ করে তাঁর কাছে নিয়ে আসতে বলে। দুটো টাকা ভর্তি ব্যাগ সে গোসাভির কাছে পৌঁছে দেয়।

গত ২রা অক্টোবর মুম্বইয়ের ইন্টারন্যাশন্যাল ক্রুজ টার্মিন্যালের গ্রিন গেটে এনসিবির যে দল কোর্ডেলিয়া ক্রুজে তল্লাশি চালিয়েছিল তাঁর নেতৃত্বে ছিলেন সমীর ওয়াংখেড়ে। ওই ক্রুজ থেকেই আরিয়ান খান, আরবাজ মার্চেন্ট, মুনমুন ধামেচাদের আটক করা হয়। পরবর্তী সময়ে গ্রেফতার করা হয়। 

প্রভাকর সেইলের অভিযোগ আগেই মিথ্য ও ভিত্তিহীন বলে উড়িয়ে দিয়েছেন এনসিবি কর্তা। তাঁর সাফ কথা, সবরকম তদন্তের মুখোমুখি হতে প্রস্তুত তিনি। ১৫ বছরের কেরিয়ারে তাঁর নামের পাশে কোনও দাগ নেই, কোনও রকম চাপে পড়ে মাথানত করবেন না তিনি। 

বন্ধ করুন