বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘ঠকানো মানে কি শুধুই লুকিয়ে যৌন সম্পর্ক’, বিশ্বাসঘাতকতা নিয়ে সরব নীনা গুপ্তা!
ভিভিয়ান রিচার্ডসের সঙ্গে নীনা গুপ্তা।
ভিভিয়ান রিচার্ডসের সঙ্গে নীনা গুপ্তা।

‘ঠকানো মানে কি শুধুই লুকিয়ে যৌন সম্পর্ক’, বিশ্বাসঘাতকতা নিয়ে সরব নীনা গুপ্তা!

  • অকপট নীনা বরাবরই! কিন্তু কেন হঠাৎ একথা বললেন তিনি?

বলিউডের সিঙ্গেল মাদার হিসেবে প্রথমেই নাম আসে প্রবীন অভিনেত্রী নীনা গুপ্তার। একার হাতে মেয়ে মাসাবা-কে মানুষ করেছেন তিনি। নিজের জীবনের সেই ওঠাপড়ার গল্প বইয়ের আকারে লিখেছেন অকপটে, কোনও রাখঢাক না করেই। এবার সম্পর্কে বিশ্বাসঘাতকতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন তিনি। ঠিক কী করলে বিশ্বাসঘাতকতা হয়, জানতে চাইলেন সেটাও। 

Tweak India-র শেয়ার করা একটি ইনস্টাগ্রাম ভিডিয়োতে নীনাকে প্রশ্ন করতে শোনা গেল, ‘আমি তোমাকে একটা প্রশ্ন জিজ্ঞেস করতে চাই-- ‘‘বিশ্বাসঘাতকতা শুনলে তোমার মাথায় ঠিক কী আসে’?’’ নীনাকে আরও বলতে শোনা যায়, ‘বিশ্বাসঘাতকতা কী? আমি সত্যি জানতে চাই। কেউ যদি নিজের মনে অন্যকে ঠকায় তাহলে সেটাকে কী বিশ্বাসঘাতকতা বলা চলে?’ প্রশ্ন তোলেন, ‘কাওকে চুমু খাওয়ার স্বপ্ন দেখা’ কী বিশ্বাসঘাতকতার মধ্যে পড়ে? তারপরেই অভিনেত্রীকে বলতে শোনা যায়, ‘শুধু যৌন সম্পর্ক করলেই কি বিশ্বাসঘাতকতা হয়? তোমার যদি কাওকে ভালো লাগে, তুমি তাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখ, তাঁকে চুমু খাওয়ার কথা ভাবো মনে মনে সেটাকে কী ঠকানোর মধ্যে ফেলা চলে?’

গত বছর নীনা তাঁর শেয়ার করা একটা ভিডিয়োয় সকল মহিলাদের উদ্দেশে নিজের উদাহরণ টেনে বার্তা দিয়েছিলেন, ‘কখনও কোনও বিবাহিত পুরুষের প্রেমে পড়ো না। আমি এটা করেছি, আর তার ফলও ভোগ করেছি। তাই আমি আমার বন্ধুদের সবসময় বলি এই ভুলটা না করারই চেষ্টা করিস।’

নিজের বই ‘সচ কহু তো’-তে ভিভিয়ান রিচার্ডসের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক, গর্ভধারণ, ভিভিয়ানের তাঁকে বিয়ে করতে অস্বীকার, একা মা হওয়ার সিদ্ধান্ত, মাসাবাকে একা বড় করার সংগ্রাম নিয়ে কথা বলেছিলেন। এসবের কারণে ক্ষতি হয়েছিল কেরিয়ারের। বেশ কিছু বছর ইন্ডাস্ট্রি থেকে আলাদা ছিলেন। তারপর শুরু করেন জীবনের দ্বিতীয় ইনিংস। আর সেটা বেশ সফল। নিজেকে একজন হাসিখুশি ও সুখি মানুষ বলেই মনে করেন নীনা!  

বন্ধ করুন