বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > আগুনে দগ্ধ হতে হতে এক ব্যক্তি বলেছিলেন, 'আমাকে বাঁচান দিদি!', কী করেছিলেন নীনা?
ছোট্ট মাসাবাকে পাশে নিয়ে নীনা। ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস
ছোট্ট মাসাবাকে পাশে নিয়ে নীনা। ছবি সৌজন্যে - হিন্দুস্তান টাইমস

আগুনে দগ্ধ হতে হতে এক ব্যক্তি বলেছিলেন, 'আমাকে বাঁচান দিদি!', কী করেছিলেন নীনা?

সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে নীনা গুপ্তার আত্মজীবনী 'সচ কহু তো'। ভার্চুয়ালি এই বই উদ্বোধন করলেন করিনা কাপুর খান। অনুষ্ঠানে একাধিক ঘটনা বলার পাশাপাশি নীনার স্মৃতিচারণে উঠে এলো এক ভয়ঙ্কর ঘটনার কথাও।

গত সোমবার প্রকাশিত হলো নীনা গুপ্তার আত্মজীবনী 'সচ কহু তো'। উদ্বোধন করলেন করিনা কাপুর খান। বর্ষীয়ান এই বলি-অভিনেত্রী জানালেন তাঁর মতে করিনাই সবথেকে উপযুক্ত এই বই প্রকাশের ব্যাপারে। এই মন্তব্যের যুক্তিও দিয়েছেন নীনা। বলেছেন, 'একজন অভিনেত্রী ও মা হিসেবে অনেকের কাছে আদর্শ করিনা।'

ভার্চুয়ালি এই বইপ্রকাশের অনুষ্ঠানে নীনা স্মৃতির পুকুরে ডুব দিয়েছিলেন। একাধিক ঘটনা বলার পাশাপাশি তাঁর স্মৃতিচারণে উঠে এলো এক ভয়ঙ্কর ঘটনার কথাও। ঘটনাটি ঘটে ছোটপর্দার জনপ্রিয় ধারাবাহিক 'টিপু সুলতান' এর শ্যুটিং চলাকালীন। নীনার কথায়, ' ধারাবাহিকের সেটে সেদিন আমার বিয়ের অংশের শ্যুটিংয়ের তোড়জোড় চলছিল। সেই সময়ে মাসাবার বয়স হবে বড়জোর বছর দেড়েক। আমি আর মাসাবা সেইমুহূর্তে এক কামরার একটি ফ্ল্যাটে থাকতাম। ঐদিন মাসাবার অল্প জ্বর আসাতে ওকে আর শ্যুটিংয়ের মেক আপ রুমে নিয়ে যাইনি। যতটা সম্ভব কাছাকছি রাখতে চেয়েছিলাম। এরপর স্টুডিওতে মাসাবাকে নিয়েই হাজির হয়েছিলাম লাঞ্চ সেরে ফেলার জন্য। এরপর কোনও কারণে সেদিনের শ্যুটিংয়ের সময় একটু বাড়ানো হয়েছিল। আমি তাই একটু সময় বের করেফের মাসাবার কাছে গেছিলাম ছোট্ট করে তদারকি সেরে নিতে।'

 

সামান্য থেমে নীনা আবার শুরু করেন,' মাসাবাকে নিয়ে যেই না বেড়িয়েছি সেটে যাবো বলে, এমন সময় কান ফাটানো একটি বিস্ফোরণের আওয়াজ শুনলাম। মুহূর্তের মধ্যে দেখে এক ব্যক্তি আমাদের দিকে ছুটে আসছেন। তাঁর সারা শরীর জুড়ে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছে। আগুনে দগ্ধ হতে হতে হঠাৎ সে আমার দিকে তাকিয়ে আর্তস্বরে জানিয়ে উঠছিল,' দিদি আমাকে বাঁচান!' 

এদিকে ঘটনার আকস্মিকতায় আমি ততক্ষণে পুরো পাথর হয়ে গেছি। মাসাবাকে কোলে আঁকড়ে রেখে কোনওরকমে চিৎকার করে বলে উঠেছিলাম যে আমি কীভাবে কিছু করব কারণ আমার কোলে বাচ্চা রয়েছে!' ওই আলোচনা থেকেই জানা যায় এরমধ্যে শ্যুটিং সেটের বাকিরা সেখানে পৌঁছে নীনা ও মাসাবাকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যায়। ঘটনাটি শেয়ার করে দৃঢ় স্বরে নীনা বলেন,' সেদিন যদি আমার কোলে মাসাবা না থাকতো,কিছুতেই ওই জায়গা ছেড়ে আমি চলে যেতাম না!'

 

বন্ধ করুন