বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > প্রথম রোজগার দিয়ে কী করেছিলেন রণবীর ও ঋদ্ধিমা কাপুর? জানালেন মা নীতু কাপুর
ছেলে রণবীর এবং মেয়ে ঋধিমার সঙ্গে নীতু কাপুর। ছবি সৌজন্যে - ট্যুইটার
ছেলে রণবীর এবং মেয়ে ঋধিমার সঙ্গে নীতু কাপুর। ছবি সৌজন্যে - ট্যুইটার

প্রথম রোজগার দিয়ে কী করেছিলেন রণবীর ও ঋদ্ধিমা কাপুর? জানালেন মা নীতু কাপুর

  • ছেলে রণবীর কাপুর ও মেয়ে ঋধিমা কাপুরের ছেলেবেলার ঘটনা শেয়ার করলেন মা নীতু কাপুর। প্রথম রোজগারের টাকা দিয়ে কী করেছিলেন রণবীর-ঋধিমা সেকথাই সম্প্রতি দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানালেন নীতু।

তারকাদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বরাবরই সাধারণ মানুষের অসীম কৌতূহল। তারকারাও কি তাঁদের জীবনে খুঁটিনাটি সমস্যা কিংবা ছোটখাটো আনন্দে সাধারণ মানুষের মতোই আচরণ করেন এইসব প্রশ্ন চিরকালীন। বিশেষ করে তারকাদের ছোটবেলা নিয়ে তো কৌতূহলের শেষ থাকে না তাঁদের অনুরাগীদের। সম্প্রতি, এক সাক্ষাৎকারে ছেলে রণবীর কাপুর এবং মেয়ে ঋধিমা কাপুরের ছেলেবেলার কিছু ঘটনা ভাগ করলেন মা নীতু কাপুর। নীতু জানিয়েছেন তিনি আর রণবীর যখন একসঙ্গে সময় কাটান সেই সময়ের বেশিরভাগটাই তাঁদের আলোচনার বিষয় থাকে সিনেমা এবং রণবীরের কাজ নিয়ে। এমনকি কোন অভিনেতা কেমন অভিনয় করে সেসব নিয়েও একপ্রস্থ তর্ক হয় তাঁদের মধ্যে। আলোচনা হয় তাঁদের কাজ নিয়েও। এছাড়া নিজের আগামী ছবির গল্প,চিত্রনাট্যও নীতুর সঙ্গে আলোচনা করেন রণবীর। যদিও রণবীরের মায়ের কথায় ছবি ও কাজের ব্যাপারে শেষপর্যন্ত সব সিদ্ধান্ত নিজেই নেন তাঁর ছেলে। এই কথাপ্রসঙ্গেই উঠে আসে রণবীরের প্রথম রোজগার নিয়ে। নীতুর কথায় জানা যায় সঞ্জয় লীলা বনশালি পরিচালিত 'ব্ল্যাক' ছবিতে তখন সহকারী পরিচালকের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন তাঁর ছেলে। সেই কাজে পাওয়া প্রথম মাইনে থেকে ১০০ টাকা খরচ করে তাঁর মা-কে ভরপেট লাঞ্চ খাইয়েছিলেন। দিনটা ছিল 'মাতৃ দিবস'. নীতুর হৃদয়ে যে সেই দিনটি তারিখ থেকে ঘটনার স্মৃতি আজও জ্বলজ্বল করছে সেকথার অকপট স্বীকারোক্তি নিজেই করেছেন এই বর্ষীয়ান অভিনেত্রী।

রণবীর এবং ঋধিমা কাপুর। ছবি সৌজন্যে - ফেসবুক
রণবীর এবং ঋধিমা কাপুর। ছবি সৌজন্যে - ফেসবুক

অন্যদিকে রণবীরের দিদি ঋধিমাও কম যান না এসব ব্যাপারে। মা নীতুর জবানিতেই জানা গেল সেকথা। ঋধিমা তখন পড়াশোনার জন্য রয়েছেন লন্ডনে। সেখানেই পড়াশোনা করার পাশাপাশি 'পার্ট টাইম' কাজ করে সেই টাকা দিনের পর দিন জমিয়েছিলেন ঋধিমা। সেই জমানো টাকা দিয়েই মায়ের জন্য একটি গাড়ি বুক করেছিলেন ঋধিমা। নীতু যখন লন্ডন গেছিলেন তাঁর মেয়ের কাছে সেই সময়ে বিমানবন্দরের বাইরে থেকে ফের একবার বিমানবন্দরে দেশের জন্য বিমানে ওঠার আগে পর্যন্ত মাটিতে পা 'রাখতে' হয়নি নীতুকে। ছবির মতো সুন্দর লন্ডন শহর সেই গাড়িতে করে ঘুরিয়েছিলেন ঋধিমা। সব জায়গায় গিয়েছিলেন,ঘুরেছিলেন তিনি গাড়ি করেই।

বন্ধ করুন