রোডিজ বিতর্ক নিয়ে অবশেষে শনিবার মুখ খুললেন নেহা ধুপিয়া  (PTI)
রোডিজ বিতর্ক নিয়ে অবশেষে শনিবার মুখ খুললেন নেহা ধুপিয়া (PTI)

নেহা ধুপিয়াকে 'ভুয়ো নারীবাদী’ আখ্যা নেটিজেনদের, ট্রোলিংয়ের জবাব দিলেন নায়িকা

  • রোজিজ শোতে বিতর্কিত মন্তব্য করে নেটিজেনদের কাঠগড়ায় নেহা ধুপিয়া। অভিনেত্রীকে ফেক ফেমিনিস্ট থেকে হিপোক্রিট-নানা তকমা দিয়েছে নেটদুনিয়ার বাসিন্দারা। গোটা বিতর্ক নিয়ে অবশেষে শনিবার মুখ খুললেন নেহা।

‘নেহা ধুপিয়া ভুয়ো নারীবাদী’- এখন সোশ্যাল মিডিয়ায় চোখ রাখলেই এই সংক্রান্ত পোস্ট আপনার নজরে আসবে। এমনিতে বলিপাড়ার অন্যতম ঠোঁটকাটা নায়িকা হিসাবেই পরিচিত নেহা। তাঁর শো নো-ফিল্টার উইক নেহাতে সেলেবদেরও পড়তে হয় তাঁর বাঁকা প্রশ্নের মুখে। সম্প্রতি রিয়ালিটি শো রোডিজের মঞ্চে এক বেফাঁস মন্তব্য করে ট্রোলের শিকার নেহা।

রোডিজে এক প্রতিযোগী জানায় তাঁর প্রেমিকা একসঙ্গে পাঁচটা বয়ফ্রেন্ড রাখছিল সে কথা জানতে পেরে সে প্রেমিকাকে সব বয়ফ্রেন্ডদের একত্রিত করে চড় মারে। এই ঘটনা জেনে নেহার রোষের মুখে পড়তে হয় সেই প্রতিযোগীকে। নেহা রীতিমতো সেই ছেলের তুলোধনা করে বলে, কেউ তোমাকে অধিকার দেয়নি মেয়েটির গায়ে হাত তোলবার। সে চাইলে একসঙ্গে পাঁচটা বয়ফ্রেন্ড রাখতেই পারে। সেটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার। হয়ত সমস্যা তোমার মধ্যে আছে!


এরপর থেকেই টুইটার, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রামে নেহার নামের পাশে ভুয়ো নারীবাদী, হিপোক্রিট, ফেক নানা তকমা সেঁটে দেওয়া হয়েছে। অবশেষে শনিবার গোটা বিষয় নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রী। টুইটারে একটি বিবৃতিতে অভিনেত্রী জানিয়েছেন,' গত পাঁচ বছর ধরে রোডিজ শোয়ের সঙ্গে আমি যুক্ত এবং এই শোয়ের প্রতিটা মুহূর্ত আমাকে আনন্দ দেয়। আমি গোটা দেশ ঘুরতে পারি এর সুবাদে এবং দেশের নানান প্রান্তের রকস্টারের সঙ্গে আমার পরিচয় করিয়ে দেয়। তবে গত দু সপ্তাহ ধরে যেটা ঘটছে সেটা আমার কাছে গ্রহণযোগ্য নয়। সম্প্রতি সম্প্রচারিত এক এপিসোডে আমি হিংসার বিরুদ্ধে আওয়াজ উঠিয়েছি। একটি মেয়ে তাঁর প্রেমিককে ধোঁকা দিচ্ছল, তাই ছেলেটি মেয়েটিকে চড় মেরেছে। মেয়েটা যেটা করেছে সেটা তার ব্যক্তিগত চয়েস। সেটা ছেলে-মেয়ে নির্বিশেষে কারুর ব্যক্তিগত চয়েস। আমি সম্পর্কে থেকে ধোঁকা দেওয়াটা সমর্থন করিনি তবে গোটা ঘটনাটা মানুষ ভুল বুঝেছে। কিন্তু আমি একটা মেয়ের সুরক্ষার হয়ে আওয়াজ তুলেছি'।



নেহা আরও জানিয়েছেন তাঁর বাবা সহ পরিবারের অনান্য মানুষজনও ট্রোলারদের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছেন না। গোটা বিষয়ে মতামতের ফল স্বরূপ তাঁর পরিবার, বন্ধু, সহকর্মী এবং তাঁর বাবার ব্যক্তিগত হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটেও বিদ্রুপমূলক মেসেজ আসছে। তা কোনওদিন কাঙ্খিত নয় বলে জানিয়েছেন অভিনেত্রী। এমনকি তাঁর মেয়ের জন্য তৈরি ইনস্টাগ্রাম পেজটিও রেহাই পায়নি নেটিজেনদের রোষ থেকে। এতকিছু সত্ত্বেও নেহা নিজের মন্তব্যে অটল রয়েছেন। ‘কোনওভাবেই কোনও সম্পর্কে কেউ কাউকে শারীরিক নির্যাতন করতে পারে না’-সাফ বক্তব্য নেহার। অভিনেত্রীর এই দলিল অবশ্য হজম করতে পারছেন না অনেকেই। কারণ রোডিজ শোয়েরই পুরোনো একটি এপিসোডে একটি মেয়ে তাঁর প্রেমিককে চড় মরার কথা জানালে বেশ খুশি হয়েছিলেন নেহা। সেই ক্লিপ শেয়ার করে নেটিজেনরা জানিয়েছেন নেহার বিচারের মাপকাঠি নারী-পুরুষের ক্ষেত্রে আলাদা-তাই তিনি আদতে ভুয়ো নারীবাদী।


বন্ধ করুন